আজ : সোমবার, ২৫শে জুন, ২০১৭ ইং | ১২ই আষাঢ়, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

ইফস্টাইল শরীরচর্চা বিছানায় আত্মবিশ্বাসী পুরুষ হওয়ার সাত-কাহন

সময় : ১২:০৯ পূর্বাহ্ণ , তারিখ : ০৬ জুন, ২০১৭


এমন অনেক পুরুষ রয়েছেন, যাঁরা মুখে অনেক কিছু বলেন কিন্তু কাজে পারেন না। আবার অনেকে আছেন যতটা বলেন, তার থেকে বেশি কিছু করার ক্ষমতা রাখেন। এমন অনেক ক্ষেত্রে ঘটে, স্ত্রী বা সঙ্গিনীকে কাছে পেয়ে পুরুষটি তাঁর আত্মবিশ্বাস হারিয়ে ফেলেন। আগে যে মেয়েটির সঙ্গে কথা বললেই উত্তেজনা বোধ করত, এখন তাঁকে কাছে পেয়েও কঠিন হতাশায় ভোগেন- এমন পুরুষ অনেকে আছেন। এর কারণ কি? কারণ সেই পুরুষের মনে ভয় থাকে যে, তাঁর পার্টনারকে সুখী করতে পারবেন কি না। ভয়ের কিছু নেই। এই ধরনের সমস্যার সমাধানও রয়েছে।

আপনার সঙ্গিনী কিন্তু আপনার কাছ থেকে অনেক কিছু আশা করেন। তিনি মনে মনে আপনাকে নিয়ে অনেক কল্পনা ইতিমধ্যেই সেরে ফেলেছে। সেই চিন্তা ভাবনার বাস্তব রূপদান যেন সঠিকভাবে হয়, তা না হলে কিন্তু তাঁর মনে সংকোচ জন্ম নেবে। তাই প্রথম মিলনেরসময় নিজেকে ভালেভাবে প্রস্তুত করতে হবে। সব চেয়ে বড় জোর মনের জোর। মনে থেকে নিজেকে প্রস্তুত করুন।

শুধু নিজের তৃপ্তি পেলেই হবে না।আপনার সঙ্গীর বিষয়টা আগে দেখতে হবে। ফোরপ্লে করলেই শুধু হবে না। এতে সে আপনাকে স্বার্থপর বলে মনে করবেন। স্ত্রীকে ভালোবসেন এটা তাঁকে বোঝান
দ্বিধায়, হতাশায় ভুগবেন না। বিদেশি পর্ন সিনেমায় যা দেখেন সেটা আপনার চিন্তার বিষয় না। আপনি একজন ভারতীয় পুরুষ এবং অন্য পাঁচটা পুরুষের মধ্যে যে যে গুণ রয়েছে, আপনার ভিতরও তাই আছে। তাই হাতাশায় ভুগবেন না।

নিজের সৌন্দর্যের প্রতি একটু নজর দিন। একথা ভাবা ঠিক না যে, মেয়েরা খোঁচা খোঁচা দাড়ি পছন্দ করে। সহবাসের সময় যদি আপনার দাঁড়ির খোঁচায় আপনার সঙ্গিনী ব্যাথা পায়, তবে সেটা বাস্তবে মোটেও ভাল প্রভাব ফেলে না। আর রাতে অবশ্যই দাঁত ব্রাশ করবেন। মুখে যেন দুর্গন্ধ না থাকে। শরীরে বডি স্প্রেও ইউজ করতে পারেন।

সহবাসকালে একমনে আপনার সঙ্গীকে আদর করুন। অন্য চিন্তা-ভাবনা মনে আনবেন না। অন্য কোনও চিন্তা ভাবনা মাথায় ঘুরলে সেটা অপনার মুখের অভিব্যক্তিতেই ফুটে উঠবে। আপনার সঙ্গিনী বুঝতে পারবেন যে আপনি অন্যমনষ্ক। কারণ মানুষের মুখ আয়নার মত।

এমন কিছু করবেন না যাতে আপনার স্ত্রী অখুশী হয়। আপনি যদি সহবাসে অভ্যস্ত না হন, তবে আপনার স্ত্রীর সাহায্য নিন। এতে অখুশী না বরং খুশী হয়ে আপনার পার্টনার অবশ্যই আপনাকে সাহায্য করবেন। চরম মুহূর্তে আপনার স্ত্রী হঠাৎ থেমে যেতে পারে- এমন চিন্তা ভুলেও মাথায় আনবেন না।
আর নিজেদেরে মধ্যের কেমিস্ট্রিটাই সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ। আপনার স্ত্রী বা পার্টনারও একজন মানুষ তাই তাঁকে খুশি করা আপনার পক্ষে কোনও ব্যাপারই নয়।

Top