আজ : বৃহস্পতিবার, ২৩শে আগস্ট, ২০১৭ ইং | ৯ই ভাদ্র, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

ইসলামের স্বার্থেই

সময় : ৮:৫৫ পূর্বাহ্ণ , তারিখ : ০৯ এপ্রিল, ২০১৭


ইসলাম কখনও নিরীহ মানুষ হত্যা সমর্থন করে না। যারা ইসলামের নামে মানুষ হত্যা করছে, তারা মূলত মুসলমানদের ক্ষতি করছে। মুসলমানদের জীবনকে কঠিন করে দিচ্ছে। গত বৃহস্পতিবার রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলেম-ওলামা সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন। শেখ হাসিনা বলেন, ধর্ম নিয়ে ব্যবসা হয়েছে, কিন্তু প্রকৃত ধর্ম প্রচার করা হয়নি। বাংলাদেশ মুসলিম অধ্যুষিত ভূখণ্ড। এখানে সব ধর্মের মানুষ স্বাধীনভাবে তাদের ধর্ম পালন করবে। তিনি অস্ত্রবাজদের অস্ত্র বিক্রির হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহৃত না হতেও আহ্বান জানান।

প্রধানমন্ত্রীর এই বক্তব্য অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। সম্মেলনে দেশ বিদেশের যেসব আলেম-ওলামা অংশ নেন তাদের কণ্ঠেও ছিল একই সুরের প্রতিধ্বনি। ইসলামের নাম নিয়ে আজ যে সন্ত্রাস চলছে তা করছে ইসলাম নামধারী কিছু বিকৃত মানসিকতার মানুষ। আর এর শিকারও হচ্ছে ইসলাম ধর্মাবলম্বীরাই। এর ফলে সারা বিশ্বে শান্তির ধর্ম ইসলাম হেয় প্রতিপন্ন হচ্ছে। নানা ধরনের প্রচারণায় বিভ্রান্ত হয়ে বোমা মেরে নিরীহ মানুষ হত্যা করা হচ্ছে। এমনকি আত্মঘাতী হামলার ঘটনাও ঘটছে যা ইসলাম কোনোভাবেই সমর্থন করে না।

সম্মেলনে বিশেষ অতিথি হিসেবে যোগ দেন সৌদি আরবের মসজিদুল হারাম ও মসজিদে নববীর ভাইস প্রেসিডেন্ট শায়খ ড. মুহাম্মদ বিন নাসির আল খুজাইম এবং মদিনার মসজিদে নববীর ইমাম ও খতিব শায়খ ড. আবদুল মহসিন বিন মুহাম্মদ আল কাসিম। মক্কার পবিত্র মসজিদের খতিব মুহাম্মদ বিন নাসির আল খুজাইম আলোচনায় অংশ নিয়ে বলেছেন, অন্যায়ভাবে যারা এসব হত্যাকাণ্ড ঘটাচ্ছে, তাদের জন্য রয়েছে জাহান্নামের আগুন। তাদের সঙ্গে পবিত্র ইসলাম ধর্মের কোনো সম্পর্ক নেই। তিনি জঙ্গিবাদের সঙ্গে ইসলামকে জড়িত করার যে বৈশ্বিক প্রবণতা তারও সমালোচনা করেন।

ইসলামের স্বার্থেই তাই আজ মুসলিম বিশ্বকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। ইসলামের নাম নিয়ে যাতে কেউ সন্ত্রাস বা জঙ্গিবাদের মতো উগ্র মতবাদে যুক্ত হতে না পারে সেজন্য সকলকে একসাথে কাজ করতে হবে। শান্তির ধর্ম ইসলামকে জড়িয়ে কেউ যাতে কোনো ফায়দা নিতে না পারে দৃষ্টি দিতে হবে সেদিকেও।

Top