আজ : বৃহস্পতিবার, ১৭ই আগস্ট, ২০১৭ ইং | ২রা ভাদ্র, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

কল্পনা চাকমা অপহরণ মামলার শুনানি পিছিয়েছে

সময় : ১১:৪৫ পূর্বাহ্ণ , তারিখ : ২২ মার্চ, ২০১৭


হিল উইমেন্স ফেডারেশনের সাবেক কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক কল্পনা চাকমা অপহরণ মামলার শুনানি ফের পিছিয়েছে। আগামী ২ মে শুনানির নতুন তারিখ নির্ধারণ করেছেন রাঙামাটির বিচারিক আদালত।
বুধবার সকাল ১১টায় রাঙামাটি অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট সাবরিনা আলীর আদালতে কল্পনা চাকমা অপহরণ মামলার শুনানি শুরু হয়। এতে রাঙামাটি জেলা পুলিশ সুপারের তদন্ত প্রতিবেদনের উপর বাদী পক্ষ নারাজি দিয়ে মামলাটির ফের বিচার বিভাগীয় তদন্তের আবেদন জানান। সংক্ষিপ্ত শুনানি শেষে আদালত ২ মে এ শুনানীর আদেশ দেন।
কল্পনার চাকমা অপহরণ মামলার আইনজীবী রেজাউল করিম চৌধুরী বলেন, মামলায় পুলিশের যে চুড়ান্ত প্রতিবেদন দেয়া হয়েছে তা যথাযথ নয় এবং তা ন্যায় বিচারের পরিপন্থী।
এ ব্যাপারে হিল উইমেন্স ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সভাপতি নিরূপা চাকমা বলেন, কল্পনা চাকমাকে অপহরণের ২০ বছর পরেও চিহ্নিত অপহরণকারীদের গ্রেফতার না করে সরকার অপরাধীদের বাচাঁনোর চেষ্টা করে যাচ্ছে। এ যাবত অনেক তদন্ত কমিটি গঠন করা হলেও পরিকল্পিতভাবে তদন্ত প্রতিবেদনে চিহ্নিত অপহরণকারীদের নাম উল্লেখ করা হয়নি।
কল্পনার বড় ভাই কালিন্দি কুমার চাকমা বলেন, তদন্ত প্রতিবেদনে চিহ্নিত অপহরণকারী নাম উল্লেখ করা হয়নি। এ প্রতিবেদন গ্রহণযোগ্য না। তাই ফের এ মামলার বিচার বিভাগীয় তদন্তের আবেদন জানিয়েছি।
কল্পনা অপহরণ মামলার শুনানির সময় রাঙামাটি চাকমা সার্কেল রাজা ব্যারিষ্টার দেবাশীষ রায়, রাণী ইয়ান ইয়ানসহ হিল উইমেন্স ফেডারেশনের নেত্রীরা উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য, ১৯৯৬ সালের ১২ জুন তৎকালীন হিল উইমেন্স ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক কল্পনা চাকমাকে রাঙ্গামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলা লাইল্যা ঘোনা এলাকার নিজ বাড়ি থেকে একদল সশস্ত্র দুর্বৃত্ত তুলে নিয়ে যায় বলে দাবি করেন তার পরিবার। এ ঘটনার পর কল্পনা চাকমার ভাই কালিন্দি কুমার চাকমা বাদি হয়ে থানায় মামলা করেন। দীর্ঘ ২০ বছর ধরে চলছে কল্পনা অপহরণ মামলা।

Top