আজ : রবিবার, ২৪শে জুন, ২০১৭ ইং | ১১ই আষাঢ়, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

জীববৈচিত্র টিকিয়ে রাখতে সকলক্ষেত্রে ব্যবহারযোগ্য পানির প্রাপ্যতা জরুরি

সময় : ৩:২৭ অপরাহ্ণ , তারিখ : ২১ মার্চ, ২০১৭


ঢাকা : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, জীববৈচিত্র্য টিকিয়ে রাখার জন্য কৃষি, শিল্পসহ সকল ক্ষেত্রে ব্যবহারযোগ্য পানির প্রাপ্যতা জরুরি। তিনি বলেন, নদীমাতৃক বাংলাদেশে সুপেয় পানির গুরুত্ব অপরিসীম। ভূ-গর্ভস্থ পানির অত্যাধিক ব্যবহার, লবণাক্ততা বৃদ্ধি, জনসংখ্যা বৃদ্ধি, নগরায়ন ও শিল্পায়ন, মারাত্মক পরিবেশ দূষণ, পানি প্রবাহে কৃত্রিম বাধা সৃষ্টি ও জলবায়ু পরিবর্তন সুপেয় পানির উৎসকে ক্রমশঃ অনিশ্চয়তার দিকে ঠেলে দিচ্ছে। এ পরিস্থিতিতে জীববৈচিত্র্য টিকিয়ে রাখার জন্য কৃষি, শিল্পসহ সকল ক্ষেত্রে ব্যবহারযোগ্য পানির প্রাপ্যতা জরুরি। প্রধানমন্ত্রী ২২ মার্চ বিশ্ব পানি দিবস উপলক্ষে আজ দেয়া এক বাণীতে এ সব কথা বলেন। তিনি বলেন, জীবন ও পরিবেশের মৌলিক উপাদান পানি। কৃষি, শিল্প, মৎস্য ও পশুপালন, নৌ-চলাচল, বনায়নসহ জীববৈচিত্র্য পানির ওপর নির্ভরশীল। আমি আশা করি, দিবসটি পালনের মাধ্যমে পানি ও খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করার বিষয়ে সবার সচেতনতা বৃদ্ধি পাবে। প্রধানমন্ত্রী বলেন, সরকারি-বেসরকারি সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় আমরা সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ক্ষুধা-দারিদ্র্যমুক্ত ও উন্নত-সমৃদ্ধ ‘সোনার বাংলা’ গড়ে তুলতে সক্ষম হবো। তিনি বিশ্ব পানি দিবস ২০১৭ উপলক্ষে নদীমাতৃক বাংলাদেশের জনগণকে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানান এবং দিবসটির এবারের প্রতিপাদ্য ‘বর্জ্য পানি’ খুবই সময়োপযোগী ও তাৎপর্যপূর্ণ হয়েছে বলে বাণীতে উল্লেখ করেন। শেখ হাসিনা বলেন, দেশের পানি সম্পদ ব্যবস্থাপনায় পানি সম্পদ মন্ত্রণালয় এবং এর অধীনস্থ বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড, ওয়ারপো, হাওড় ও জলাভূমি উন্নয়ন অধিদপ্তর, যৌথ নদী কমিশন, নদী গবেষণা ইনস্টিটিউট, সিইজিআইএস ও আইডব্লিউএম নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। খাদ্য নিরাপত্তা এবং বন্যা ও অন্যান্য প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবিলায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে চলেছে। প্রধানমন্ত্রী ‘বিশ্ব পানি দিবস ২০১৭’ এর সার্বিক সাফল্য কামনা করেন ।

Top