আজ : বৃহস্পতিবার, ২৩শে আগস্ট, ২০১৭ ইং | ৯ই ভাদ্র, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

তিস্তা চুক্তির মাধ্যমে মোদীকে রাজনৈতিক সুবিধা দিতে চান না মমতা

সময় : ৯:২৩ পূর্বাহ্ণ , তারিখ : ২১ মার্চ, ২০১৭


আর্ন্তজাতিক ডেস্ক: তিস্তা নিয়ে চুক্তি হলে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী তার সুফল পান- এটি চাচ্ছেন না পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। চুক্তি হলে তার রাজনৈতিক কি সুবিধা হবে তাও বোঝার চেষ্টা করছেন তিনি। আর তাই সে কারণেই দিল্লির পরবর্তী পদক্ষেপ কি হয় তা দেখার জন্য অপেক্ষায় রয়েছেন মমতা।

নিজের ঘনিষ্ঠ মহলে মমতা জানিয়েছেন, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দিল্লি সফরের এখনও দু’সপ্তাহের বেশি বাকি। এই সময়ের মধ্যে ভাবনার অনেক কিছু অদল-বদল হতে পারে। হতে পারে শেষ মুহূর্তে শেখ হাসিনার সফরসূচিতেও কিছু অদল-বদল। বেশকিছু দ্বিপাক্ষিক চুক্তি করতে চার দিনের সফরে ৭ এপ্রিল বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী দিল্লি আসছেন। সেই সফরে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক, মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণকারী ভারতীয় সেনাবাহিনীর সদস্যদের সম্মাননা জানানোর পাশাপাশি আজমির সফরে যাবেন তিনি। তার ফাঁকেই চেষ্টা চলছে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির সঙ্গে তাঁর একটি আলাদা করে বৈঠক করানোর। আর এটা নিয়েই যাবতীয় ভাবনা মমতা ব্যানার্জির। কিন্তু কেন শেখ হাসিনার সফরসূচিতে শেষ মুহূর্তে কিছু অদল-বদল হতে পারে বলে ভাবনা পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীর, সেটা তিনি খোলসা করেন নি।

তবে নিজের ঘনিষ্ঠ মহলে তিনি বলেছেন, তিস্তা চুক্তি যদি হয় তবে তার সুফল ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বা তাঁর দল বিজেপি পেয়ে যাক এটা তিনি কোনমতেই চান না। সেক্ষেত্রে ২০১৮ সালে পশ্চিমবঙ্গে পঞ্চায়েত নির্বাচন বা তার পরের বছর ২০১৯-এ লোকসভা নির্বাচনের সময় বাড়তি সুবিধা পেয়ে যেতে পারে বিজেপি। ২০১৫ সালে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ঢাকা সফরে সঙ্গে গিয়েছিলেন মমতা ব্যানার্জি। সেই সময় স্থল সীমান্ত চুক্তি হয়েছিল। তবে সেই চুক্তির রাজনৈতিক লাভ তুলে নিয়েছিলেন মমতা ব্যানার্জি এবং তাঁর দল তৃণমূল কংগ্রেস। ফলে? পরের বছর বিধানসভা নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গের উত্তরবঙ্গের বিস্তীর্ণ অঞ্চল এবং ছিটমহল প্রধান কেন্দ্রগুলোতে তৃণমূলের জয় জয়কার হয়েছিল। কিন্তু এখন তিস্তা নিয়ে কোনও পদক্ষেপ নেওয়া হলে বিজেপি সুবিধা পেয়ে যাবে না তো?? কারণ ভারতে নোট বাতিল কাণ্ডের পর মনে করা হয়েছিল বিজেপির ভোট ব্যাংকে তার প্রভাব পড়বে। বাস্তবে তা হয় নি। উল্টো উত্তরপ্রদেশের মতো বড় রাজ্যে একচেটিয়া জয় পেয়েছে বিজেপি। আর তাই তিস্তা নিয়ে কোনও পদক্ষেপ নেওয়া হলে তার সুফল বিজেপি পেয়ে যাবে কি না, তা পর্যালোচনা করে দেখছেন মমতা।

Top