আজ : রবিবার, ২৪শে জুন, ২০১৭ ইং | ১১ই আষাঢ়, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

নাজিরপুরে শিক্ষককে কুপিয়ে হত্যা

সময় : ১১:১৭ পূর্বাহ্ণ , তারিখ : ২৩ মার্চ, ২০১৭


পিরোজপুর ব্যুরোঃপিরোজপুরের নাজিরপুর উপজেলার সমীরণ মজুমদার (৪০) নামের এক শিক্ষক কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। আহত হয়েছেন নিহত সমীরণ মজুমদারের স্ত্রী স্বপ্না মজুমদার (২৮) । বুধবার (২২ মার্চ) দিবাগত রাত তিনটার দিকে উপজেলার মাটিভাংগা ইউনিয়নের পশ্চিম

বানিয়ারি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

সমীরণ মজুমদার পশ্চিম বানিয়ারি সরকারি প্রাথমিক

বিদ্যালয়ের শিক্ষক ছিলেন। সে পশ্চিম বানিয়ারি

গ্রামের শৈলেন্দু মজুমদারের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে,

বুধবার দিবাগত রাত তিনটার দিকে সমীরণের ঘরের

সিঁদ কেটে এক ব্যক্তি ঘরে ঢুকে সমীরণ মজুমদার ও

তাঁর স্ত্রীকে কুপিয়ে জখম করে। তাদের ডাক চিৎকার

শুনে স্থানীয় লোকজন সমীরণ মজুমদারকে উদ্ধার করে

খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে আজ

বৃহস্পতিবার ভোর পাঁচটার দিকে তিন মারা যায়।

সমীরণের স্ত্রী স্বপ্না মজুমদারকে খুলনা মেডিকেল

কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। খঁবর পেয়ে আজ

সকাল ১০টার দিকে পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে

ময়নাতদন্তের জন্য পিরোজপুর সদর হাসপাতাল মর্গে

পাঠিয়েছে। নিহত সমীরণ মাটিভাঙ্গা গ্রামের

শৈলেন্দ্রনাথ মজুমদারের ছেলে এবং উপজেলার পশ্চিম

বানিয়ারী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী

শিক্ষক।

নাজিরপুর থানার ওসি হাবিবুর রহমান

সাংবাদিকদের বলেন, সন্দেহ করা হচ্ছে জমি নিয়ে

বিরোধের জের ধরে এ ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায়

জিজ্ঞাসাবাদের জন্য এক জনকে আটক করা হয়েছে।

পিরোজপুরের পুলিশ সুপার মোঃ ওয়ালিদ হোসেন

সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, স্থানীয়ভাবে জমিজমা

সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে এ হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটতে

পারে বলে প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে । এ ঘটনায়

জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ মন্টু নামের এক জনকে

আটক করেছে।

এদিকে স্থানীয় পর্যায়ে জনশ্রুতি রয়েছে

দীর্ঘদিন ধরে সমীরনের সাথে একটি জমি সংক্রান্ত

বিরোধে ওই স্থানীয় প্রভাবশালী এক জনপ্রতিনিধি

জড়িত থাকতে পারে।নাজিরপুরে শিক্ষককে কুপিয়ে হত্যা

পিরোজপুর ব্যুরোঃ

পিরোজপুরের নাজিরপুর উপজেলার সমীরণ

মজুমদার (৪০) নামের এক শিক্ষক কুপিয়ে হত্যা করা

হয়েছে। আহত হয়েছেন নিহত সমীরণ মজুমদারের স্ত্রী

স্বপ্না মজুমদার (২৮) । বুধবার (২২ মার্চ) দিবাগত রাত

তিনটার দিকে উপজেলার মাটিভাংগা ইউনিয়নের পশ্চিম

বানিয়ারি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

সমীরণ মজুমদার পশ্চিম বানিয়ারি সরকারি প্রাথমিক

বিদ্যালয়ের শিক্ষক ছিলেন। সে পশ্চিম বানিয়ারি

গ্রামের শৈলেন্দু মজুমদারের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে,

বুধবার দিবাগত রাত তিনটার দিকে সমীরণের ঘরের

সিঁদ কেটে এক ব্যক্তি ঘরে ঢুকে সমীরণ মজুমদার ও

তাঁর স্ত্রীকে কুপিয়ে জখম করে। তাদের ডাক চিৎকার

শুনে স্থানীয় লোকজন সমীরণ মজুমদারকে উদ্ধার করে

খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে আজ

বৃহস্পতিবার ভোর পাঁচটার দিকে তিন মারা যায়।

সমীরণের স্ত্রী স্বপ্না মজুমদারকে খুলনা মেডিকেল

কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। খঁবর পেয়ে আজ

সকাল ১০টার দিকে পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে

ময়নাতদন্তের জন্য পিরোজপুর সদর হাসপাতাল মর্গে

পাঠিয়েছে। নিহত সমীরণ মাটিভাঙ্গা গ্রামের

শৈলেন্দ্রনাথ মজুমদারের ছেলে এবং উপজেলার পশ্চিম

বানিয়ারী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী

শিক্ষক।

নাজিরপুর থানার ওসি হাবিবুর রহমান

সাংবাদিকদের বলেন, সন্দেহ করা হচ্ছে জমি নিয়ে

বিরোধের জের ধরে এ ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায়

জিজ্ঞাসাবাদের জন্য এক জনকে আটক করা হয়েছে।

পিরোজপুরের পুলিশ সুপার মোঃ ওয়ালিদ হোসেন

সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, স্থানীয়ভাবে জমিজমা

সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে এ হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটতে

পারে বলে প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে । এ ঘটনায়

জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ মন্টু নামের এক জনকে

আটক করেছে।

এদিকে স্থানীয় পর্যায়ে জনশ্রুতি রয়েছে

দীর্ঘদিন ধরে সমীরনের সাথে একটি জমি সংক্রান্ত

বিরোধে ওই স্থানীয় প্রভাবশালী এক জনপ্রতিনিধি

জড়িত থাকতে পারে।

Top