আজ : সোমবার, ৩০শে এপ্রিল, ২০১৭ ইং | ১৮ই বৈশাখ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

নারী পুরুষের যে তথ্য অদ্ভুত হলেও সত্য

সময় : ৩:৫১ পূর্বাহ্ণ , তারিখ : ২৭ মার্চ, ২০১৭


অনেক পুরুষই বিরক্ত হয়ে ভাবেন ‘কেন যে মেয়েরা পুরুষের মতো হতে পারেন না চিন্তাভাবনায়!’, তেমনই নারীরাও ভাবেন ‘ইস, যদি আমি যেভাবে ভাবি ছেলেরাও সেভাবে ভাবতো’। কিন্তু আসলেই নারী পুরুষের মতামত ও চিন্তাভাবনা একরকম হওয়া সম্ভব নয়। কারণ তারা পুরোপুরি ভিন্ন মানসিকতার বলেই একে অপরের প্রতি আকর্ষণ বোধ করেন।

সাইকোলজিস্টরা নারীপুরুষের মানসিকতার বেশ কিছু মিল, অমিল খুঁজে পেয়েছেন। অবশ্য এর মধ্যে অমিলের সংখ্যাই বেশি। কিন্তু এই ব্যাপারগুলো বেশ অদ্ভুত এবং কিছু কিছু ব্যাপার চরম হাস্যকরও বটে। নারীপুরুষ সম্পর্কিত এমনই কিছু অদ্ভুত তথ্য নিয়ে জানুন।

● ৪০% নারীপুরুষ নিজের প্রেমিক ও প্রেমিকার সাথে ব্রেকআপ করেন এবং করতে মাঝে মাঝে বাধ্য হন যখন তার বন্ধুবান্ধবেরা তার প্রেমিক/প্রেমিকাকে পছন্দ করেন না।

● নারীরা দিনে গড়ে প্রায় ৭,০০০ শব্দ বলেন, অপরপক্ষে পুরুষেরা দিনে গড়ে বলেন মাত্র ২,০০০ শব্দ। সত্যিই নারীরা একটু বেশিই কথা বলেন।

● সঙ্গীর সাথে ঝগড়া বাড়ে কি কারণে জানেন? গবেষকরা বলেন, যখন সঙ্গীর সাথে কোনো বিষয় নিয়ে তর্ক হয় তখন হার্টবিট মিনিটে প্রায় ১০০ এর কাছাকাছি হয়ে যায়। এর ফলে সঙ্গী কি বলছেন এবং বোঝাতে চাইছেন তা কান দিয়ে ঢোকেই না।

● আপনি জানেন কি? পুরুষের কাছে নারীদের লাল রঙের কাপড়ে সবচেয়ে বেশি আকর্ষণীয় মনে হয়। এবং অপরপক্ষে নারীদের কাছে পুরুষদের নীল রঙের কাপড়ে সবচেয়ে বেশি আকর্ষণীয় লাগে।

● সাইকোলজিস্টদের গবেষণায় দেখা যায় যখন নারীরা অনলাইনে কারো সাথে সম্পর্কে জড়িয়ে যান তারা মনে মনে ভয় পান মানুষটি যেন ধর্ষক না হন। কিন্তু আশ্চর্য হলেও সত্যি পুরুষেরা অনলাইনে সম্পর্কে জড়ালে ভয় পান নারীটি যেন মোটা না হন।

● গবেষণায় দেখা যায় পুরুষেরা কোনো কথা না বলেই শুধুমাত্র দাঁড়ানোর ভঙ্গির কারণে প্রায় ৮০% নারীর মনে খুব ভালো ইম্প্রেশন তৈরি করতে পারেন।

● নারীর মনে প্রথমেই পুরুষের জন্য খারাপ ইম্প্রেশন জন্মে যদি পুরুষটির পোশাকআশাক অপরিচ্ছন্ন ও পরিপাটি না হয়, হাতের নখ বড় বড় থাকে, চুলের স্টাইল একেবারে বেমানান হয় ও মুখের ত্বকে দাগ থাকে।

● পুরুষেরা নারীদের তুলনায় একাকীত্ব প্রায় ৭০% কম সহ্য করতে পারেন। এটির মূল কারণ ছেলেদের ঘরে বসে না থাকার। যেখানে নারীরা দিনের পর দিন বাসা থেকে বের না হয় ঘরে নিজের কাজ আপনমনে করতে পারেন সেখানে পুরুষেরা একটি দিন বাড়ির বাইরে না বেরিয়ে থাকতে পারেন না।

Top