আজ : মঙ্গলবার, ২৩শে মে, ২০১৭ ইং | ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

পাক সেনার মত নারীদের অত্যাচার করেছে বিএনপি-জামায়াত

সময় : ১০:২২ পূর্বাহ্ণ , তারিখ : ১১ মার্চ, ২০১৭


ঢাকা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ১৯৭১ সালে নারীদের ওপর পাকিস্তানিদের নির্যাতনের মতো বিএনপি-জামায়াত জোটও নারীদের নির্যাতন করেছে।

আজ শনিবার রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশনে শুরু হওয়া যুব মহিলা লীগের সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘২০০১ সালে ১ অক্টোবর নির্বাচনের শুরু থেকেই বিএনপি-জামায়াত জোট মিলে অত্যাচার-নির্যাতন শুরু করে। তাদের অত্যাচারের ধরণটা যদি আমরা দেখি, ঠিক পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী যেভাবে বাংলাদেশের মানুষের ওপর নির্যাতন করেছিল, একই কায়দায় অত্যাচার-নির্যাতন শুরু করে বিএনপি-জামায়াত জোট। ওই পরিস্থিতিতেই আমি যুব মহিলা লীগ সংগঠনটি তৈরি করি।’

“যখন রাস্তায় কেউ নামতে পারছিল না, বারবার বাধা আসছে, পুলিশের অত্যাচার চলছে, গ্রামের পর গ্রামে আক্রমণ চলছে, অন্তস্বত্ত্বা, সদ্যপ্রসূত নারীদেরও নির্যাতন করতে ছাড়েনি বিএনপি-জামায়াত সরকার, ঠিক সেই সময় যুব মহিলা লীগ মাঠে নামে,” বলেন প্রধানমন্ত্রী।

৬৪টি জেলার প্রায় প্রতিটি জায়গায়ই এভাবে বিএনপি-জামায়াত নিপীড়ন-নির্যাতন চালায় বলে উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী। ২৫ হাজার মানুষ আশ্রয় নেয় গোপালগঞ্জ, টুঙ্গিপাড়া, কোটালিপাড়ায়।

যুব মহিলা লীগ যখন থেকে সৃষ্টি হয়, তখন থেকেই রাজপথের লড়াকু সৈনিক হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠা করেছে বলে মন্তব্য করেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘এজন্য আমি তাদেরকে ধন্যবাদ ও অভিনন্দন জানাই। তাদের ওপর অনেক অত্যাচার ও নির্যাতন হয়েছে। আজকেও মাঝে মাঝেই বিএনপি নেতারা অভিযোগ করেন, তাদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে, তারা ঘরে থাকতে পারেননি। আমি তাদের একটু স্মরণ করিয়ে দিতে চাই, ২০০১ এ বিএনপি-ছাত্রদলের গুণ্ডা-সন্ত্রাসী বাহিনী পুলিশের সঙ্গে যৌথভাবে আমার নারী নেত্রীদের ওপর যে অত্যাচার করেছিল, যে লজ্জাজনক অবস্থার সৃষ্টি করেছিল, সেসব স্মৃতি আমরা ভুলে যাইনি। বাংলাদেশের মানুষ সেসব ভুলে যেতে পারে না এবং ভুলে গেলে চলবেও না।’

২০০৭ সালে জরুরি অবস্থা চলাকালে শেখ হাসিনা গ্রেফতার হওয়ার পর অন্যান্য আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের সঙ্গে প্রথম যুব মহিলা লীগ পথে নামে বলে উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী। ‘এবং এটা সত্যি কথা, আমার মুক্তির জন্য সই সংগ্রহের কাজ যুব মহিলা লীগই প্রথম শুরু করেছিল। মহানগর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে অন্য নেতাকর্মী-সংগঠনের সঙ্গে মিলে মাত্র ১৫ দিনে ২৫ লাখ সই তারা সংগ্রহ করেছিল।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, চরম বিপদের সময় রাজপথে সব থেকে সাহসী ভূমিকা রেখেছে যুব মহিলা লীগ। ‘অনেক সময় পুরুষেরা সাহস করে যা করতে পারেনি, আমার মেয়েরা সেসব করে দেখিয়েছে।

Top