আজ : রবিবার, ২৫শে জুন, ২০১৭ ইং | ১১ই আষাঢ়, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

পিএসএলের ফাইনাল খেলোয়াড়রা তৃতীয় শ্রেণীর ক্রিকেটার!

সময় : ৪:৪৭ পূর্বাহ্ণ , তারিখ : ০৯ মার্চ, ২০১৭


স্পোর্টস ডেস্ক : শুরু থেকেই লাহোরে পিএসএলের ফাইনাল নিয়ে সমালোচনায় মুখর ছিলেন কিংবদন্তি ইমরান খান। এবার পাকিস্তান সুপার লিগের (পিএসএল) দ্বিতীয় আসরের ফাইনাল খেলতে লাহোরে আসা বিদেশী ক্রিকেটারদের ‘তৃতীয় শ্রেণীর’ ক্রিকেটার বলে মন্তব্য করেছেন তিনি। শুরু থেকেই লাহোরে পিএসএলের ফাইনাল নিয়ে সমালোচনায় মুখর ছিলেন কিংবদন্তি এই ক্রিকেটার। প্রতিযোগিতা শেষেও নিজের অবস্থান থেকে সরেননি তিনি।

ফাইনালে ওঠা কোয়েটা গ্লাডিয়েটরসের চার বিদেশি ক্রিকেটার কেভিন পিটারসেন, লুক রাইট, টাইমাল মিলস ও রিলে রুশো নিজেদের সরিয়ে নেন। তাদের বদলি হিসেবে পাকিস্তানে খেলতে যান বাংলাদেশের এনামুল হক বিজয়, দক্ষিণ আফ্রিকার মরনে ভ্যান উইক, জিম্বাবুয়ের শন আরভিন আর ওয়েস্ট ইন্ডিজের রায়াদ এমরিট। অন্যদিকে, পেশোয়ার জালমির সবাই খেলেছেন লাহোরের ফাইনালে। শুরুতে শোনা যাচ্ছিল আসবেন না তাদের কেউই। পরবর্তীতে ড্যারেন স্যামির পাশাপাশি মারলন স্যামুয়েলস, ইংল্যান্ডের ক্রিস জর্ডান ও দাওইদ মালান; সবাই খেলেছেন।

কিন্তু এই ক্রিকেটারদেরকেই নামিদামি ক্রিকেটার মানতে নারাজ ইমরান খান,। তার মতে, এই ক্রিকেটারদের জোর করে ধরে এনেছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। এ প্রসঙ্গে দেশটিকে বিশ্বকাপ জেতানো এই কিংবদন্তি ক্রিকেটার বলেন, ‘আমি তো এদের কাউকেই চিনি না। আফ্রিকা ও অন্য দেশগুলো থেকে পিসিবি তৃতীয় শ্রেণির কিছু ক্রিকেটারকে ধরে এনেছে।’

স্যামি-স্যামুয়েলসরা লাহোরের ফাইনাল ম্যাচ খেললেও তাদের তারকা ক্রিকেটার বলতে নারাজ ইমরান, ‘ড্যারেন স্যামি অধিনায়ক ছিল তবে তাকে নামিদামি ক্রিকেটার বলবো না আমি।’ পাকিস্তানের সাবেক এই অধিনায়কের মতে, ক্রিস গেইল-কেভিন পিটারসনরাই তারকা ক্রিকেটার, ‘গেইল এসেছে? পিটারসন এসেছে? আমি তাদের আন্তর্জাতিক মানের ক্রিকেটার ও বড় ক্রিকেটার মনে করি।’

গনমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের বদৌলতে সাবেক এই অধিনায়কের বক্তব্য এখন পুরো ক্রিকেট বিশ্বের আলোচনায়। যদিও জাভেদ মিয়াদাদ, আবদুল কাদির, সরফরাজ নেওয়াজদের মতো সাবেক ক্রিকেটাররা ইমরানের পক্ষেই কথা বলেছেন। জাভেদ মিয়াঁদাদ বলেন, ‘তৃতীয় শ্রেণির ক্রিকেটার বলে কোনো ভুল করেননি ইমরান। এটা ক্রিকেটীয় টার্ম। আর পাকিস্তান এখনো আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের জন্য নিরাপদ নয়।’

কিংবদন্তি সাবেক লেগ স্পিনার আবদুল কাদিরতো একে জোচ্চুরি বলে আখ্যা দিয়েছেন, ‘ইমরান ভুল কিছু বলেননি। ক্লাব পর্যায়ের কিছু ক্রিকেটারকে এনে আপনি বিদেশি ক্রিকেটারের তকমা দিতে পারেন না। এটা জোচ্চুরি।’

২০০৯ সালে লাহোরে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের ওপর সন্ত্রাসী হামলার পর থেকে পাকিস্তানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে একরকম নিষিদ্ধ। মাঝে শুধু জিম্বাবুয়ে সীমিত ওভারের সিরিজ খেলে গেছে। নিজেদের আবারও নিরাপদ প্রমাণ করতেই পিসিএলের ফাইনাল লাহোরে করার ঘোষণা দেয় পিসিবি। চলতি মাসের শুরুর দিকে লাহোরে আত্মঘাতী বোমা হামলায় ১৩ জন মানুষ নিহত হওয়ার পরও নিজেদের সিদ্ধান্তে অনড় থাকে দেশটির সর্বোচ্চ ক্রীড়া সংস্থাটি।

Top