আজ : বুধবার, ২৩শে আগস্ট, ২০১৭ ইং | ৮ই ভাদ্র, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

প্রথম দেখাতেই যে কোন পুরুষের সাথে… মন চায়

সময় : ৩:৫১ পূর্বাহ্ণ , তারিখ : ২৬ মার্চ, ২০১৭


নাম প্রকাশে অনিচ্ছুকঃ আশা করি ভাল আছেন । অনেক দিন পর আবার চোখের জলে লিখতে বসলাম। দয়া করে আইডি টা হাইড রাখবেন।আমার বিগত লেখা গুলো আপনি পড়েছেন। মানুষ তার প্রিয়জনকে যেমন ভালবাসে তেমনি আমিও আমার সহধর্মিনীকে খুব বেশি ভালবাসি- এটাই কি আমার ভুল। যাই হোক মুল ঘটনায় আসছি।
বিযের আগে তার সব কিছু জানার পরও তাকে খুব ভালবেসে বিয়ে করেছিলাম । বিয়ের শুরুটা খুব ভালই ছিল । আমাদের কোল জুড়ে এলো এক সন্তান। আমি সব সময় চেয়েছি ওয়াইফের সাথে থাকতে , ওকে ছাড়া্ একটা রাতও কাটাই নাই কোনদিন। আমার এই কেয়ারিং গুলো বিয়ের শুরুতে ও খুব পছন্দ করত। কিন্তু সন্তান হওয়ার পর থেকে ও বদলে যেতে থাকে। ও আগে থেকে অনেক শক্ত হয়ে গেছে। নিজের অপরাধ কোন দিন স্বীকার করে না । আর যে কোন পুরুষের সাথে খুব বেশী ঘনিষ্ট হয়ে যায় প্রথম দেখাতেই।

আগে আমাকে ছাড়া বাপের বাড়ি গিয়ে থাকতে পারত না, এখন উল্টা বেশী থাকতে চায়। কিন্তু আমি ওকে ছাড়া থাকতে পারি না । আমি তো আগের মতই আছি ও কেন বদলে গেল। কোন দিন ঝগড়া হলে , রাগ করে থাকলে আমি ওর পা ধরে পর্যন্ত মাফ চাই । অথচ বিয়ের শুরুতে ঝগড়া হলে ও আগে আমার রাগ ভাঙাতো কিন্তু এখন তার বিপরীত। মাঝে মাঝে অবাক লাগে কিভাবে ও পারে এসব?? অনেক বেশি ভালবাসার এটাই কি ফল? আগে কোথাও গেলে আমাকে বলে যেত। আমাকে না বলে কোনদিন কোথাও যায়নি। এখন আর আমাকে জানানোর প্রয়োজন মনে করেনা। কিছু না বলেই যেখানে খুশী চলে যায়। কি করব বু্ঝতে পারছিনা । এত বেশী ভালবাসার এটাই কি ফল? ভাই আমি ক্লান্ত, এখন আর এসব ভাল লাগে না ।
আরেকটা কথা, এটা কি সত্য – কোন নারী তার জীবনে প্রথম যার দ্বারা শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হয় তার কথা ভুলতে পারে না?? ভাই কিছুই ভাল লাগে না । কি করব আমি

উত্তরঃ হ্যাঁ এটা কথা সত্যি কোনো নারী যাকে প্রথম ইজ্জত দেয় তাকে ভুলতে পারেনা. তুমি খবরে দেখনা বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার অনশন. এর একমাত্র কারণ হচ্ছে মেয়েরা তার জীবনের সর্বোচ্চ সম্পদ যে পুরুষের হাতে দেয়. তুমি আরো জানতে চেয়েছো তোমার স্ত্রী যা করছে তা বেশি ভালবাসার ফল কিনা? হ্যাঁ সত্যি. অতিরিক্ত কোনো কিছুই ভাল নয়। অন্তত ৫% নিজের হাতে রেখে প্রয়োজনে ৯৫% মন দিয়ে দাও। যাইহোক ধর তুমি একজন ক্ষুধার্ত মানুষকে খাবারের দাওয়াত দিয়েছো তো তাকে শুধু ভাত দিলেই হবে নাকি সাথে তরকারি দিতে হবে? তেমনি শুধু ভালবাসা দিয়ে তো স্ত্রীর মন জয় করা যাবেনা. তুমি একটা টেস্ট করে রিপোর্ট জানাও তারপর আমি বলে দিবো কিভাবে স্ত্রীকে বাধ্য করা যাবে. টেস্টটি হলো টেস্টোস্টেরন হরমোন টেস্ট. শুধু দেখবে তোমার টেস্টোস্টেরন হরমোন লেভেল ৫.৫ এর নিচে কিনা. যাইহোক স্ত্রী যদি অন্য কাউকে মন দিয়ে থাকে বা তোমার চেয়ে অন্য কারও কাছে সুখ পায় তুমি হাজারো চেষ্টা করে তাকে পাবেনা. তুমি চাইলে ইসলামী শরিয়ত মোতাবেক যে যে ধারাবাহিকতা আছে তা করতে পার যেমন প্রথমে বিছানা আলাদা করা ইত্যাদি ইত্যাদি. তবে তোমার স্ত্রীর কপাল খারাপ যে তোমার মতো স্বামীকে পেয়েও সে অবহেলা করলো। তোমার অতিত কি আমি জানিনা আর তুমি তার কি যে অতিত দেখে শুনেই বিয়ে করেছো জানিনা. তাই পারলে পুরো ঘটনা এবং টেস্টোস্টেরন হরমোনের. মাত্রা উল্লেখ করে আর একটি পোস্ট দিও

Top