আজ : সোমবার, ২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং | ১০ই আশ্বিন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

বরিশালে চাঁদাবাজির ঘটনায় পুলিশ কনস্টেবল মানিকসহ তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা

সময় : ৮:১৫ অপরাহ্ণ , তারিখ : ২৭ আগস্ট, ২০১৭


আপডেট নিউজ পেতে পেইজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বরিশালে একগৃহবধুর কাছে ৩ লাখ টাকাচাঁদা দাবি ও মারধর করেশ্লীলতাহানির ঘটনায় ভোলাজেলা পুলিশের কনস্টেবলমানিকসহ তিন জনের বিরুদ্ধেচাঁদাবাজির মামলা করা হয়েছে।মামলায় আসামীরা হলেনআলোকান্দা ১৩ নং ওয়ার্ডেরমৃত. খালেক হাওলাদারের ছেলেপুলিশ কনস্টেবল (কং নং ৩৭৪,বর্তমানে ভোলা জেলায় কর্মরত)মানিক হাওলাদার, তার স্ত্রী রুমিবেগম ও তার শ্বশুর হরিনাফুলিয়া২৬ নং ওয়ার্ডের মৃত হাকিমসরদারের ছেলে আবু সরদার ।গতকাল সকালে গৃহবধূ মুকুলবেগম বাদী হয়ে মোকাম বিঞ্জবরিশাল চীফ মেট্রোপলিটনম্যাজিস্ট্রেট আমলী আদালতেমামলাটি দায়ের করেন। মামলায়আদালতের বিচারক মো: আলীহোসাইন আমলে নিয়ে বরিশালপুলিশ ব্যুরো ইনভেস্টিগেশন(পিবিআই)কে তদন্ত করেআদালতে তদন্ত জমা দেয়ার নির্দেশদেয়া হয়েছে।আদালত সূত্রে জানা গেছে, বাদীমুকুল বেগম বরিশাল নগরীর ১০নং ওয়ার্ডের চাঁদমারি এলাকার¯’ায়ী বাসিন্দা। তার মা মৃত.রিজিয়া বেগমের ওয়ারিশ সূত্রেজমির মালিক বাদী। বাদীর নানারপ্রাপ্ত জমি রূপাতলী মৌজার ৫৬নং জে. এল, এস.এ খতিয়ান১৩৭৯, ১৩৭২,২২১৩ নতুন এস.এ১০৫৮ মোট জমির পরিমান ৬৭.৬৮শতাংশ। উক্ত জমির এস.এ ১৫৭৬দাগের জমি হইতে ৩.৩৭ যাহারবি.এস ডিপি ১০২৫৯ এবংবি.এস হাল ১৩৭১৪, ১৩৪১৩ দাগেরহেবা ঘোষনা দলিল মূলে মালিকবাদী মুকুল বেগম। কিš‘ বাদীগত দুই বছর যাবৎ বাদী তারজমিতে যাইতে পারছে না। কারনআসামী পাশ্ববর্তী পুলিশ সদস্য(বর্তমানে ভোলা জেলায় কর্মরত,যার কনস্টেবল নং ৩৭৪) আলেকান্দা১৩ নং ওয়ার্ডের মৃত খালেকহাওলাদার ছেলে মানিক হাওলাদার,তার স্ত্রী রুমি বেগম তার শ্বশুরআবু সরদার দীর্ঘদিন যাবৎ ৩ লাখটাকা চাঁদা দাবি করেন। চাঁদানা দিলে আসামীরা বাদীকেহত্যা করবে বলে হুমকি প্রদানকরেন। এ ছাড়া বিভিন্ন সময়বাদীর প্রাপ্ত জমিতে যাইতেবাধা প্রদান করছে আসামীমানিক হাওলাদার, তার স্ত্রী ওশ্বশুরসহ অজ্ঞাত ১০/১২ জন। এর জেরধরে গত ১০ আগষ্ট বৃহস্পতিবারসকাল ১০টায় বাদী লেবার নিয়েআমার জমিতে কাজ করতে গেলে(পুলিশ সদস্য বর্তমানে ভোলাজেলায় কর্মরত, যার কনস্টেবল নং৩৭৪) মানিক ও রুমী বেগম তারশ্বশুর আবু সরদারসহ ১০/১২ জনসন্ত্রাসী বাদী মুকুল বেগমকেমারধর করে এবং শ্লীলতাহানিঘটায়। এ সময় সন্ত্রাসীরা বলে,তোরা কাজ করলে ৩ লাখ টাকাচাঁদা দিতে হবে। চাঁদা না দিলেতোরা কাজ করতে পারবি না,তোদের হত্যা করিয়া লাশপাঠাইয়া দেবো। উক্ত হুমকিতেবাদী ভীত হইয়া পড়ে। এরপর বাদীআত্মীয় স্বজন কে বিষয়টিঅবহিত করেন। আসামীরাচাঁদাবাজ ডাকাত, সন্ত্রাসী ওপরলোভী। নিজ ভাই বোনের জমিআত্মসাৎ করার অভিযোগ রয়েছেতাহাদের বিরুদ্ধে। এছাড়াসন্ত্রাসী মানিক বিভিন্ন সময়বাদীকে মিথ্যা মামলা দিয়েহয়রানী করেছেন। যেকোন সময়বাদীর পরিবারের ক্ষতি করিতেপারে। এমনকি পুলিশ মানিকহাওলাদার ও তার শ্বশুর মামলাবাজহওয়ায় বাদীর বিরুদ্ধে ২টিমিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানীকরেছে। এরপরও ভবিষ্যতে আবারওমামলা দিয়ে হয়রানি করিতেপারে বলে বাদীর আশংকা রয়েছে।এ ঘটনায় পুলিশ মানিকেরহয়ানির হাত থেকে রক্ষা পেতেঅবশেষে গতকাল সকালে মামলাকরেন বাদী মুকুল বেগম। চীফমেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেটআমলী আদালতের বিচারকমামলাটি আমলে নিয়েপিবিআইকে তদন্তের নির্দেশদিয়েছেন।

আপডেট নিউজ পেতে পেইজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন

Top