আজ : শনিবার, ১৯শে আগস্ট, ২০১৭ ইং | ৪ঠা ভাদ্র, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

বাংলাদেশিদের ছোঁয়ায় মরুর বুকে সবুজের হাসি ফুটেছে

সময় : ৯:৩৭ পূর্বাহ্ণ , তারিখ : ২৪ এপ্রিল, ২০১৭


কৃষির অপার সম্ভাবনাময় জন্মভূমি ছেড়ে প্রবাসে এসেও নানা প্রতিকূলতার মধ্যে কুয়েতে কৃষিক্ষেত্রে এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করে চলেছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা। মেধা ও কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে বাংলাদেশি শ্রমিকরা তাদের হাতের ছোঁয়ায় মরুর বুকে সবুজের হাসি ফুটিয়ে চলছেন।

২২ এপ্রিল শনিবার কুয়েতে সীমান্তবর্তী এলাকা আবদালি এলাকায় কৃষি খামার পরিদর্শনকালে কুয়েতে নিযুক্ত বাংলাদেশি রাষ্ট্রদূত এস এস আবুল কালাম এসব কথা বলেন।

এ সময় দূতাবাস প্রধান রাজনৈতিক সচিব আনিছুজ্জামান, শ্রম কাউন্সিলর আব্দুল লতিফ খান, সোনালী ব্যাংক কর্মকর্তা সাখাওয়াত হোসেন পাটোয়ারী, দূতাবাসের প্রশাসনিক কর্মকর্তা মিজানুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

আবদালি এলাকায় কৃষি কাজে নিয়োজিত কৃষিজীবী প্রবাসীদের খোঁজ খবর নেন রাষ্ট্রদূত। এ সময় তিনি সেখানে কর্মরত শ্রমিকদের সুখ-দুঃখ ও সমস্যা সম্ভাবনার কথা রাষ্ট্রদূতকে অবহিত করেন।

রাষ্ট্রদূত এস এস আবুল কালাম বলেন, বাংলাদেশিদের ছোঁয়ায় মরুর বুকে সবুজের হাসি। বাংলা মায়ের সূর্য সন্তানেরা কৃষি খামারের গৌরবোজ্জ্বল দৃষ্টান্তে ও সাফল্যে উদ্ভাসিত হোক গোটা দেশ ও জাতি।

মরুভূমিতে কীভাবে সবজি চাষ সম্ভব হয়েছে? জানতে চাইলে কৃষিকাজে নিয়োজিত চট্টগ্রামের জয়নাল আবেদিন দিদার বলেন, দেশে থাকতে বাবার সঙ্গে ক্ষেতে কৃষি কাজ করেছি। সে অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে প্রবাসে নিত্যনতুন প্রযুক্তি ব্যবহার করে এখানে কৃষিকাজ করছি।

তবে পরিশ্রমের তুলনায় তাদের পারিশ্রমিক একেবারেই কম বলে জানালেন সেখানকার অনেক কৃষি কাজে নিয়োজিত একাধিক কৃষিজীবী প্রবাসী।

Top