আজ : বৃহস্পতিবার, ১৭ই আগস্ট, ২০১৭ ইং | ২রা ভাদ্র, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পাঁচ দফা দাবিতে স্মারকলিপি

সময় : ৩:১০ পূর্বাহ্ণ , তারিখ : ২৪ মার্চ, ২০১৭


ব্রাহ্মণবাড়িয়া:ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পাঁচ দফা দাবি বাস্তবায়নের দাবিতে রেলমন্ত্রীর কাছে জেলা কমিউনিস্ট পার্টির স্মারকলিপি
বুধবার বেলা ১১ টায় বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি জেলা কমিটির

উদ্যোগে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় রেলের আসন বৃদ্ধি সহ বিভিন্ন দাবি

বাস্তবায়নের জন্য ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে রেলপথ মন্ত্রীর

কাছে স্মারক লিপি প্রদান করা হয়। কাউতলী মোড় থেকে লাল পতাকার

মিছিল নিয়ে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের প্রাঙ্গনে এক পথসভা

অনুষ্ঠিত হয়। ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা কমিউনিস্ট পার্টির সভাপতি

কমরেড শাহরিয়ার মোঃ ফিরোজের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক কমরেড সাজিদুল

ইসলাম, সহ-সাধারণ সম্পাদক কমরেড আছমা খানম, সম্পাদক মন্ডলীর

সদস্য কমরেড অ্যাড. সৈয়দ মোঃ জামাল, তেল-গ্যাস, বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা

জাতীয় কমিটি ব্রাহ্মণবাড়িয়া শাখার সদস্য সচিব এড. মোঃ নাসির

মিয়া, সদর উপজেলা কমিটির সভাপতি কমরেড আহমেদ হোসেন, জেলা

কমিটির সদস্য কমরেড অসিত পাল, কমরেড নীতিশ রঞ্জন রায়, কমরেড

শাহজাহান সোহেল, কমরেড আল মামুন, ছাত্রনেতা মাহবুবুর রহমান

আদর প্রমুখ।

নেতৃবৃন্দ বলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া – ঢাকা, ব্রাহ্মণবাড়িয়া – চট্টগ্রাম

যাতায়াতের জন্য ২০০১ সাল থেকে ৬৯৮টি আসন সংখ্যা বরাদ্দ ছিল।

সা¤প্রতিক সময়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলষ্টেশনের জন্য অন্যায্য বিবেচনায়

স্থান গুলোতে যাতায়াতের জন্য বরাদ্দকৃত আসন সংখ্যা ৬৯৮টি থেকে

কমিয়ে ৪৩০টি করা হয়। যা ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলাবাসীর জন্য চরম

দুর্ভোগের কারণ।

স্মারক লিপিতে উল্লেখিত পাঁচ দফা ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সর্বস্তরের মানুষের

প্রাণের দাবি ও ন্যায্য দাবি। আগামী এক মাসের মধ্যে স্মারক লিপিতে

উল্লেখিত দাবি না বাস্তবায়িত হলে ব্রাহ্মণবাড়িয়াবাসীকে নিয়ে

আমরা কঠোর কর্মসূচী পালনে বাধ্য হব। পাঁচ দফা দাবি হচ্ছে আসন

সংখ্যা কমানোর সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করা, বর্তমান চাহিদা অনুযায়ী

আসন সংখ্যা বাড়িয়ে ৬৯৮ এর দ্বিগুণ করা, বুকিং কাউন্টার বাড়ানো

এবং টিকেট কাউন্টার থেকে টিকেট সরাসরি যাত্রীগণের হাতে দেয়া,

টিকেট কালোবাজারি বন্ধ করা, ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলস্টেশনে কালনী

এক্সপ্রেস ও বিজয় এক্সপ্রেস ট্রেনের যাত্রা বিরতি, রেলষ্টেশনের সেবার

মান ও পরিবেশ উন্নয়ন করা ।

Top