আজ : শুক্রবার, ২৩শে জুন, ২০১৭ ইং | ৯ই আষাঢ়, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

যুক্তরাষ্ট্রের ভ্রমণ সতর্কতাকে যেভাবে দেখছে বাংলাদেশ

সময় : ৮:৩৮ পূর্বাহ্ণ , তারিখ : ০৮ মার্চ, ২০১৭


নিউজ ডেস্ক : বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তানে ভ্রমণের ব্যাপারে নাগরিকদের ওপর সতর্কতা জারি করেছে যুক্তরাষ্ট্র। বাংলাদেশের ক্ষেত্রে একাধিক সন্ত্রাসী হামলার কথা উল্লেখ করেছে তারা। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী মনে করে, নিরাপত্তা সংকট নেই দেশে।

সোমবার মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এই সতর্কতা জারি করে বলে, ‘সন্ত্রাসীরা বাংলাদেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে হামলা চালাচ্ছে। তাই বাংলাদেশ ভ্রমণে নিরাপত্তার বিষয়টি গুরুত্বপূর্ণ।’

তবে ‘বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তান ভ্রমণের ক্ষেত্রে এ সতর্কতা নতুন করে জারি করা হয়নি, আগে থেকেই এ সতর্কতা কার্যকর ছিল। আর সেটাই আবার জানিয়ে দেয়া হয়েছে নাগরিকদের।’

বলা হয়েছে, ‘বিশ্বের বিভিন্ন দেশ ভ্রমণে মার্কিন নাগরিকদের সতর্ক করার অংশ হিসেবে এ সতর্কতা জারি করা হয়েছে।’

মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, যুক্তরাষ্ট্রের আশঙ্কা, দক্ষিণ এশিয়ায় সন্ত্রাসীরা হামলার পরিকল্পনা করছে। মার্কিন স্থাপনা, নাগরিক ও স্বার্থে এ হামলা হতে পারে।

মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আরো জানায়, আফগানিস্তানের কোনো এলাকাই সহিংসতা থেকে মুক্ত নয়। প্রতিষ্ঠিত সন্ত্রাসী সংগঠন, আদিবাসীদের বিদ্রোহী গ্রুপ ও অন্যান্য জঙ্গিরা পাকিস্তানেও মার্কিন নাগরিকদের জন্য হুমকি। এছাড়া উগ্রপন্থিরা ভারতেও সক্রিয় বলে জানানো হয়েছে ঐ সতর্ক-বার্তায়।

মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, সন্ত্রাসী হামলা, রাজনৈতিক বিক্ষোভ ও সহিংসতা হঠাৎ করেই ঘটে। ফলে এই তিনটি দেশ ভ্রমণের সময় মার্কিন নাগরিকদের অত্যাধিক সতর্কতা এবং নিজেদের নিরাপত্তায় সচেতন থাকতে হবে।

সতর্ক-বার্তায় আরো বলা হয়, আইএস, আল-কায়েদা এবং তাদের সমর্থকর বিশ্বের নানা জায়গায় মার্কিন নাগরিকদের ওপর হামলা চালানোর পরিকল্পনা করছে। উগ্রপন্থিরা প্রচলিত ও অপ্রচলিত অস্ত্র দিয়ে মার্কিন সরকারি ও বেসরকারি স্বার্থ সংশ্লিষ্ট স্থাপনার ওপর হামলা চালাতে পারে।

বাংলাদেশে মার্কিন নাগরিকদের এই ভ্রমণ সতর্কতার ব্যাপারে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-কমিশসনার মাসুদুর রহমান ডয়চে ভেলেকে বলেন, বাংলাদেশে বিদেশি নাগরিকদের নিরাপত্তার কোনো সংকট নেই। হোলি আর্টিজানের ঘটনার পর বিদেশিদের নিরপত্তা বাড়ানো হয়েছে। বিদেশি নাগরিক এবং বিদেশি স্থাপনায় বাড়তি নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হয়েছে।

আরেক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বাংলাদেশে জঙ্গিদের এখন বড় ধরনের কোনো হামলা চালানোর শক্তি বা সংগঠন কোনোটাই নেই। শীর্ষ জঙ্গিরা হয় ধরা পড়েছে, নয় নিহত হয়েছে। আর তারা পুলিশের তৎপরতার কারণে নতুন করে সংগঠিত হওয়ারও সুযোগ পচ্ছে না। তার কথায়, বাংলাদেশিরা অতিথিপরায়ণ এবং বিদেশিরা এখানে নিরাপদ।

Top