আজ : রবিবার, ১৯শে আগস্ট, ২০১৭ ইং | ৫ই ভাদ্র, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

শফিউলের আগুনে মুশফিকরা পুড়ে ছাই

সময় : ১০:৫৪ অপরাহ্ণ , তারিখ : ০৯ আগস্ট, ২০১৭


http://bdbarta24.net

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে টাইগারদের প্রস্তুতি ম্যাচের শুরু থেকেই ছিল বোলারদের দাপট। আরও সংক্ষিপ্ত করে বললে বলা যায় ছিল পেসারদের দাপট। এটাকে আরও ছোট করলে বলা যায় শফিউল ইসলামের দাপট। কারণ এই মিডিয়াম পেসারের বোলিং তোপেই তামিমের দলের কাছে বিপর্যস্ত হয় মুশফিকুর রহীমের দল। শফিউল একাই তুলে নিয়েছেন ৫টি উইকেট। শুধু উইকেটই তুলে নেননি, গতি-সুইং আর বাউন্সে ভুগিয়েছেন ব্যাটসম্যানদের। বুধবার তিনদিনের ম্যাচের বৃষ্টিস্নাত প্রথম দিনের পুরো আলোটাই কেড়ে নেন শফিউল।
মঙ্গলবার রাত থেকেই বৃষ্টি চট্টগ্রামে। বুধবার সকালেও আকাশ থমথমে । ম্যাচ শুরুর আগে আবার বৃষ্টি। তবে ১১টার পর বৃষ্টি থামলেও মাঠ উপযোগী করতে লাগে আরও দেড় ঘণ্টা। ফলে নির্ধারিত সময়ের ঘণ্টা তিনেক পর তামিম-মুশফিকদের লড়াই শুরু হয় পৌনে ১টায়। আর টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন তামিম ইকবাল। তার সিদ্ধান্তের যথার্থতা প্রমাণ করেন শফিউল ইসলাম।

বল হাতে নিয়ে প্রথম তিন ওভারেই মুশফিকদের ভুগিয়েছেন শফিউল। প্রথম ওভারটা দারুণ বোলিংয়ে মেডেন নেন তিনি। পরের ওভারে আবার বল হাতে নিয়ে তুলে নেন সৌম্য সরকারকে (১)। দ্বিতীয় স্লিপে ধরা পড়েন সৌম্য। তৃতীয় ওভারের তৃতীয় বলে ইমরুল কায়েসকে (৫) আউট করেন শফিউল। উইকেটরক্ষক লিটন দাসের গ্লাভসবন্দী হন তিনি। একই ওভারের শেষ বলে মাহমুদউল্লাহকেও তুলে নেন শফিউল। রানের খাতাই খুলতে পারেননি সাইলেন্ট কিলার।

এরপর দলের হাল ধরেন নাজমুল হোসেন শান্ত ও অধিনায়ক মুশফিকুর রহীম। তবে তাদেরও ভুগিয়েছেন শফিউল। দুইবার শফিউলের বলে আউট হতে গিয়ে বেঁচেছেন শান্ত। দারুণ খেলছিলেন মুশফিক। তবে সঞ্জিত সাহার বলে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন ব্যক্তিগত ৩০ রানে। ভাঙে ৫৬ রানের জুটি। এরপর হাফ সেঞ্চুরি করেই সানজামুলের বলে বিদায় নেন শান্ত। তার পর কিছুটা লড়াই চালিয়েছিলেন নুরুল হাসান সোহান। তবে তাসকিনের বলে পয়েন্টে ক্যাচ দিয়ে তিনিও ফেরেন সাজঘরে।

এরপর একাই লড়াই চালিয়ে যান তাইজুল ইসলাম। খেলেন ২৬ রানের ইনিংস। আর অপর প্রান্তে আসা যাওয়ার মিছিলে থাকেন ব্যাটসম্যানরা। ১৪০ রানে ৯ উইকেট হারানোর পর ইনিংস ঘোষণা করেন মুশফিক।

এরপর নিজেদের প্রথম ইনিংসে ব্যাটিং করতে নেমে ১৭ ওভারে এক উইকেটে ৪৯ রান তুলে দিন শেষ করেছে তামিমের দল। তামিম ইকবাল ২৩ ও মুমিনুল হক ১৯ রানে অপরাজিত আছেন। ইনিংসের শুরুতেই রুবেল হোসেনের অফ স্টাস্পের বাইরের বল খেলতে গিয়ে স্লিপে ইমরুলের হাতে ধরা পড়েন লিটন (৫)।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:
মুশফিক একাদশ: ৪৭.১ ওভারে ১৪০/ ৯ (ইনিংস ঘোষণা) (ইমরুল ৫, সৌম্য ১, শান্ত ৫৩, মাহমুদউল্লাহ ০, মুশফিক ৩০, সোহান ১৬, তাইজুল ২৬, সাকলাইন ১, রুবেল ১; শফিউল ৫/১৭, সঞ্জিত ১/১৯, মোস্তাফিজ ১/১৫, সানজামুল ১/৩২, তাসকিন ১/৩২)।

তামিম একাদশ: ১৭ ওভারে ৪৯/১ (তামিম ২৩*, মুমিনুল ১৯*, লিটন ৫; রুবেল ১৫/১, সাকলাইন ০/৩, শুভাশীস ০/৬, নাইম ০/৬, তাইজুল ০/১০, আল-আমিন ০/৭)।

Top