আজ : শনিবার, ২১শে জুলাই, ২০১৭ ইং | ৭ই শ্রাবণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

সরকার গণতান্ত্রিক চর্চা ব্যাহত করতে চায় : ফখরুল

সময় : ৮:৫০ অপরাহ্ণ , তারিখ : ২০ মে, ২০১৭


বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার গুলশান কার্যালয়ে পুলিশি তল্লাশির ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়ে দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, এই সরকার দেশে গণতান্ত্রিক চর্চা ব্যাহত করতে চাচ্ছে।

শনিবার সকাল ১০টায় এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনে ঠাকুরগাঁওয়ের নিজ বাসভবনে মির্জা ফখরুল একথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, তিন তিন বারের প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে পুলিশি তল্লাশি করে সরকার এটাই বুঝিয়েছে যে দেশে গণতন্ত্রের লেশমাত্র নেই। বাংলাদেশ সম্পূর্ণ গণতন্ত্রবিহীন রাষ্ট্রে পরিণত হয়েছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সাহায্যে এই সরকার দেশ চালাচ্ছে।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, জেলা বিএনপির আহ্বায়ক তৈমুর রহমান, পৌর মেয়র মির্জা ফয়সল আমিন প্রমুখ।

এদিকে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত করতে তার গুলশানের কার্যালয়ে পুলিশি অভিযান চালানো হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

শনিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে দিকে পুলিশ খালেদার গুলশান কার্যালয় থেকে বের হয়ে যাওয়ার পর রিজভী সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, একটি অজ্ঞাতানামা জিডির রেশ ধরে এ তল্লাশি চালানো হয়েছে। বিএনপির মতো একটি দলের কার্যালয়ে এভাবে হঠাৎ করে কোনো প্রকার নোটিশ বা আগাম না জানিয়ে তল্লাশি চালানো গণতান্ত্রিক রাজনীতির উপর নগ্ন হস্তক্ষেপ। এর তীব্র নিন্দা জানাই। খালেদা জিয়াকে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত করতেই ক্ষমতাসীন সরকার এই পুলিশি হানা দিয়েছে।

শনিবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে পুলিশের গুলশান জোনের ডিসি মোশতাক আহমেদের নেতৃত্বে খালেদার কার্যালয়ে অভিযান চালানো হয়। সকাল সাড়ে ৯টার দিকে তারা চলে যান।

খালেদার গুলশান কার্যালয়ে পুলিশের এই অভিযানের বিরুদ্ধে সরকারবিরোধী বিভিন্ন স্লোগান দিচ্ছেন বিএনপির নেতাকর্মীরা।

Top