আজ : সোমবার, ৩০শে এপ্রিল, ২০১৭ ইং | ১৮ই বৈশাখ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

সাংবাদিকদের সুরক্ষা গণতন্ত্র বিকাশের পূর্বশত

সময় : ৩:২০ অপরাহ্ণ , তারিখ : ১২ এপ্রিল, ২০১৭


ঢাকা : ‘সুরক্ষা ছাড়া মুক্ত সাংবাদিকতার বিকাশ হয় না , আর গণতন্ত্র বিকাশের পূর্বশর্ত হচ্ছে মুক্ত সাংবাদিকতা।’ আর্টিকেল ১৯ আয়োজিত সাংবাদিক ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকর্মীদের জন্য আয়োজিত পেশাগত ঝুঁকি প্রশমনে ‘সুরক্ষা’ বিষয়ক প্রশিক্ষণের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি হিসেবে প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী এসব কথা বলেন। সাংবাদিকদের সুরক্ষার জন্য রাষ্ট্র পাশে রয়েছে বলে উল্লেখ করেন তিনি। তিনি আরও বলেন, সাংবাদিকতা একই সঙ্গে একটি মহৎ ও ঝুকিপূর্ণ পেশা । রাজধানীর ব্র্যাক সেন্টার ইন এ আজ মঙ্গলবার গণমাধ্যম কর্মীদের পেশাগত ঝুঁকি প্রশমন বিষয়ক ‘সুরক্ষা’ কর্মসূচির উদ্বোধন করা হয়। এ অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন আর্টিকেল ১৯ এর বাংলাদেশ ও দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের পরিচালক তাহ্মিনা রহমান।
আর্টিকেল ১৯ সাংবাদিকদের সুরক্ষার জন্য সময়োপযোগী প্রশিক্ষণ কার্যক্রম শুরু করেছে, যা দেশের সাংবাদিক ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কর্মরত গণমাধ্যমকর্মীদের পেশাগত নিরাপত্তা ও সুরক্ষা প্রদানে গুরুত্বপূর্ণ ভ‚মিকা পালন করবে। এসব প্রশিক্ষণের মাধ্যমে সাংবাদিকরা পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে শারীরিক আঘাতজনি ঝুঁকি, ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহারের ঝুঁকি, আইনি ঝুঁকি ও লিঙ্গভিত্তিক ঝুঁকি মোকাবেলায় সক্ষম হবে। অনুষ্ঠানের সভাপতি ও আর্টিকেল ১৯ এর বাংলাদেশ ও দক্ষিণ এশিয়ার পরিচালক তাহমিনা রহমান এসব কথা বলেন।
সাংবাদিকরা তথ্য অধিকার আইনের প্রয়োগ ও সচেতনতার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভ‚মিকা পালন করতে পারেন। মুক্ত ও স¦াধীন সাংবাদিকতা বিকাশে তথ্য অধিকার আইনের ব্যবহার নিশ্চিত করার জন্য সাংবাদিকদের প্রতি আহবান জানান অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি ও প্রধান তথ্য কমিশনার প্রফেসর ড. গোলাম রহমান। তিনি পেশাগত ক্ষেত্রে বহুমুখী চাপ মোকাবেলা করেই সাংবাদিকদের দায়িত্ব পালন করতে হয় বলে উল্লেখ করেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পর দিনব্যাপি সুরক্ষা বিষয়ে বিভিন্ন সেশন পরিচালনায় অংশগ্রহণ করেন আর্টিকেল ১৯ এর বাংলাদেশ ও দক্ষিণ এশিয়ার পরিচালক তাহ্মিনা রহমান, মানবাধিকার ও উন্নয়ন বিষয়ক কনসালট্যান্ট সিল্ক নেবেনফিউর , ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক রোবায়েত ফেরদৌস ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান এবং ডিবিসি নিউজের এডিটর নবনীতা চৌধুরী। প্রশিক্ষণ কর্মসূচিতে ঢাকা ও দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে ৭৫ জনের অধিক সাংবাদিক ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকর্মী অংশগ্রহণ করেন।

Top