আজ : সোমবার, ২৪শে জুলাই, ২০১৭ ইং | ৯ই শ্রাবণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

সুন্দর ঠোঁট চান? বাড়িতেই বানিয়ে ফেলুন এই লিপবাম…

সময় : ৬:৩৩ অপরাহ্ণ , তারিখ : ২৩ এপ্রিল, ২০১৭


নিউজ ডেস্ক : গরম বলে ঠোঁটের যত্ন নেবেন না, এ কেমন কথা। আপনি কি জানেন, গ্রীষ্মেই সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয় ঠোঁট। সূর্যের অতিবেগুনি (আলট্রা ভায়োলেট রশ্মি বা UV রশ্মি) রশ্মি কালো করে দেয় ঠোঁট। আপনি বলবেন লিপবাম বা পেট্রোলিয়াম জেলি তো আছে। আর আছে বাঙালির অতিপ্রিয় বোরোলিন। ঠোঁটে ভালো করে ঘষে নিলেই কাজ হয়ে যাবে! বেশ, তা ভালো কথা। কিন্তু ঠোঁটের যত্ন বলেও তো একটা কথা আছে। সঠিকভাবে খেয়াল না নিলে সারাবছর গোলাপের পাপড়ির মতো কীভাবে সুন্দর থাকবে কীভাবে ঠোঁট। তারজন্য আছে নারকেল তেল। এর প্রাকৃতিক ময়েশ্চারাইজ়ার ও অ্যান্টি-অক্সিডেন্টস্ ঠোঁট করে তোলে নরম, কোমল, গোলাপি ও তারুণ্যে ভরপুর।

কীভাবে ব্যবহার করবেন নারকেল তেল?
অনেকভাবে ব্যবহার করতে পারেন নারকেল তেল। যেমন –

১] নারকেল তেল ও অলিভ অয়েল

একটা ছোটো বাটিতে ১ চামচ নারকেল তেল ও ১ চামচ অলিভ অয়েলের সঙ্গে ১/৪ চামচ কাঁচা মধু মেশান।
ভালো করে মেশানো হয়ে গেলে তৈরি করুন লিপবাম। লিপবামের খালি কৌটো জোগাড় করুন। তাতে এই মিশ্রণটি ঢেলে দিন। ঠোঁটের স্বাভাবিক আর্দ্রতা বাড়ায় মধু। ঠোঁট রুক্ষ হতে দেয় না। অলিভ অয়েল ঠোঁটে পুষ্টি জোগায়, ঠোঁট উজ্জ্বল করতে সাহায্য করে।
২] নারকেল তেল ও ভ্যানিলা

আরও একটি লিপবাম বানাতে পারেন আপনি। এর জন্য দরকার ভ্যানিলা ও নারকেল তেল। ভ্যানিলায় আছে মিষ্টি সুবাস, লিপবামের স্বাদ বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। এর জন্য প্রয়োজন ১ চামচ ম্যাঙ্গো বাটার, ২ চামচ নারকেল তেল, ২ চামচ বিওয়্যাক্স ও ১ চা চামচ ভ্যানিলার নির্যাস।
একটি পাত্রে জল নিন। গ্যাসে ফুটতে দিন। সেই পাত্রের উপর বাটি বসান। তাতে দিন ম্যাঙ্গো বাটার, নারকেল তেল ও বিওয়্যাক্স। ভালো করে মিশিয়ে পাত্রটি নামিয়ে নিন। তারপর দিন ভ্যানিলার নির্যাস। ভালো করে মেশান। ঠান্ডা হয়ে গেলে ফ্রিজে রেখে দিন। ঠান্ডা হয়ে জমে গেলে দেখবেন আপনার ভ্যানিলা-কোকোনাট লিপবাম তৈরি!

৩] শুধু নারকেল তেল

হাতে সামান্য নারকেল তেল নিয়ে ঠোঁটে লাগান। এবার হালকাভাবে ম্যাসাজ করুন। দেখবেন, আগের চেয়ে অনেক নরম হয়েছে ঠোঁট।
৪] নারকেল তেল ও নুন

একটি বাটিতে কয়েক ফোঁটা নারকেল তেল নিন। তাতে সামান্য নুন মেশান। মিশ্রণটিতে তুলো ডুবিয়ে ঠোঁটে লাগান। এবার হাত দিয়ে ভালো করে ঠোঁট ঘষে নিন। কিছুক্ষণ রাখার পর ধুয়ে নিন। দেখবেন ঠোঁটের রুক্ষতা অনেকটাই কমে গেছে।

Top