আজ : বুধবার, ২২শে আগস্ট, ২০১৭ ইং | ৮ই ভাদ্র, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

হানিফ ফ্লাইওভারের মাঝপথে থাকছে না ‘যাত্রী সিঁড়ি

সময় : ১:০৭ অপরাহ্ণ , তারিখ : ১০ জুলাই, ২০১৭


রাজধানীর মেয়র মোহাম্মদ হানিফ ফ্লাইওভারে মাঝপথ দিয়ে যাত্রাবাড়ী ও সায়েদাবাদ এলাকার বিভিন্ন পয়েন্টে বসানো সিঁড়ি অপসারণের নির্দেশ দিয়ে হাইকোর্টের রায় বহাল রেখেছেন আপিল বিভাগ।

হাইকোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ওরিয়ন ইনফ্রাস্ট্রাকচার লিমিটেডের আবেদন (লিভ টু আপিল) খারিজ করেছেন আপিল বিভাগ। আদেশে প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘পৃথিবীর কোনো দেশে মাঝপথ থেকে ফ্লাইওভারে ওঠার সিঁড়ি নেই।’

আইনজীবীরা জানিয়েছেন, আপিল বিভাগের এই আদেশের ফলে ওরিয়ন গ্রুপ কর্তৃপক্ষকে শিগগিরই হানিফ ফ্লাইওভারের মাঝপথের বিভিন্ন স্থানে থাকা ‘যাত্রী ওঠার সিঁড়ি’ অপসারণ করতে হবে।

আদালতে ওরিয়ন গ্রুপের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার রোকন উদ্দিন মাহমুদ ও আইনজীবী আহসানুল করিম। আর রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম, অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল মুরাদ রেজা। এর আগে গত ৩১ মে বিচারপতি জুবায়ের রহমান চৌধুরীর নেতৃত্বাধীন হাইকোর্ট বেঞ্চ একটি পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদ আমলে নিয়ে স্বপ্রণোদিত হয়ে হানিফ ফ্লাইওভারের মাঝপথের সিঁড়ি দুই সপ্তাহের মধ্যে অপসারণের নির্দেশ দেন। এই নির্দেশের বিরুদ্ধে হানিফ ফ্লাইওভার নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান ওরিয়ন কর্তৃপক্ষ লিভ টু আপিল করেন। আজ আপিল বিভাগ তা খারিজ করে দিয়ে হাইকোর্টের আদেশ বহাল রাখলেন।

প্রসঙ্গত, যাত্রাবাড়ী ফ্লাইওভারে উঠার জন্য ৬ থেকে ৭টি সিঁড়ি ও বাসস্টপেজ আছে। এসব বাসস্টপেজে বাস ও লেগুনায় যাত্রী ওঠানামা করে। ফলে প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটছে। এছাড়া বাসসহ যাত্রী পরিবহনকারী ছোট-বড় বিভিন্ন যান এসব স্টপেজে থামার কারণে প্রায়ই যানজট থাকে। অন্যান্য ফ্লাইওভারে সিঁড়ি ও বাসস্টপেজ নেই। এসব যুক্তি তুলে ধরে ফ্লাইওভারে বাসস্টপেজ ও সিঁড়ি অপসারণ চেয়ে রিট করা হয়েছে।

Top