আজ : রবিবার, ১৯শে আগস্ট, ২০১৭ ইং | ৫ই ভাদ্র, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

১০ টাকা কেজিতে চাল ওজনে কম দেয়ায় সৈয়দপুরে দুইজনের ডিলারশীপ বাতিল

সময় : ১১:২৩ পূর্বাহ্ণ , তারিখ : ১৪ মার্চ, ২০১৭


আব্দুর রাজ্জাক, নীলফামারী প্রতিনিধিঃ

১০ টাকা কেজি দরে চাল বিক্রিতে ওজনে কম দেয়ায় সৈয়দপুরে দুইজনের ডিলারশীপ

বাতিল ও জামানত বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। গতকাল বিকেলে উপজেলা খাদ্য কমিটির

সভায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। উপজেলার খাতামধুপুর ইউনিয়নের স্বল্প মূল্যের

চাল বিক্রির ডিলার হাসিনা বেগম ও কাশিরাম বেলপুকুর ইউনিয়নের সৌরভ

হোসেন হতদরিদ্রদের ওজনে কম দেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার ওজনে কম দেওয়ার

বিষয়টি হাতে নাতে ধরে ফেলেন এবং উপজেলা খাদ্য কমিটির সভায় সিদ্ধান্ত

নেওয়া হবে বলে ডিলারদেরকে জানিয়ে দেন। জানা যায়, জেলার সৈয়দপুর উপজেলার

৫টি ইউনিয়নে সরকারের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচীর আওতায় হতদরিদ্রদের মধ্যে দ্বিতীয়

পর্যায়ের (মার্চ-এপ্রিল) কার্ডধারীদের মধ্যে চলতি মাসের চাল বিতরণ করার

নির্ধারিত দিন ধার্য ছিল গত শুক্রবার (১০ মার্চ)। ওই দিন উপজেলার খাদ্য

কমিটি’র নিয়োগকৃত ডিলাররা নিজ নিজ স্পটে হতদরিদ্রদের মাঝে ১০ টাকা

কেজি দরে চাল বিতরণ করছিল। নিয়মানুযায়ী প্রতি কার্ডধারীকে ১০ টাকা

কেজি দরে ৩০ কেজি চাল দেওয়ার কথা ছিল। ওই দিন সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাহী

অফিসার (ইউএনও) আবু ছালেহ মো. এুসা জঙ্গী ইউনিয়নগুলোতে চাল বিতরণ

কার্যক্রম সরেজমিনে পরিদর্শনে যান। পরিদর্শনে গিয়ে ইউএনও আবু ছালেহ মো.

এুসা জঙ্গী উপজেলার কাশিরাম বেলপুকুর ইউনিয়নের ডিলার মো. সৌরভ আলী এবং

খাতামধুপুর ইউনিয়নের ডিলার হাসিনা বেগমের চাল ওজনে কম দেওয়ার বিষয়টি

হাতেনাতে ধরে ফেলেন। ডিলার সৌর আলী কাশিরাম বেলপুকুর ইউনিয়নের

হাজারীহাটে এবং হাসিনা বেগম খাতামধুপুর ইউনিয়নের খালিশায় চাল বিতরণ

কার্যক্রম পরিচালনা করছিল। পরবর্তীতে গতকাল বিকালে সৈয়দপুর উপজেলা খাদ্য

কমিটির সভায় সরকারের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচীর আওতায় চাল বিতরণে ওজনে কম

দেওয়ার অভিযোগে উল্লিখিত দুই জন ডিলারের ডিলাশীপ বাতিল করে। সেই সঙ্গে

তাদের জামানতের ২০ হাজার টাকা করেও বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। সৈয়দপুর উপজেলা

নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) ও উপজেলা খাদ্য কমিটির সভাপতি আবু ছালেহ মো.

এুসা জঙ্গী উক্ত দুই জনের ডিলারশীপ বাতিলের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

Top