আজ : রবিবার, ২৪শে জুন, ২০১৭ ইং | ১১ই আষাঢ়, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

১ মাসের মধ্যে জাতিসংঘে ‘গণহত্যা দিবস’র আবেদন

সময় : ১০:০১ পূর্বাহ্ণ , তারিখ : ২৩ মার্চ, ২০১৭


সম্প্রতি জাতীয় সংসদে পাস হওয়া ২৫ মার্চকে ‘গণহত্যা দিবস’ হিসেবে পালনের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করতে এ সংক্রান্ত আবেদন আগামী ১ মাসের মধ্যে জাতিসংঘে প্রেরণ করা হবে বলে জানিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক।

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে তথ্য অধিদফতরের সভাকক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান তিনি।

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী বলেন, ২৫ মার্চকে গণহত্যা দিবস হিসেবে পালনের বিষয়টি জাতীয় সংসদে পাস হয়েছে। দিবস হিসাবে পালনের জন্য এটাই যথেষ্ট। একইসাথে এই দিনটির আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির জন্য এক মাসের মাসেই জাতিসংঘকে চিঠি দেয়া হবে।

তিনি বলেন, এজন্য আবেদন প্রস্তুত করে রাখা হয়েছে। কবে এবং কাকে দিয়ে পাঠানো হবে তা ঠিক করা হচ্ছে। জাতিসংঘে এটা (প্রস্তাব) উঠানোর পাশাপাশি বিভিন্ন দেশের সমর্থন আদায়ে কূটনৈতিক প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে বলেও জানান মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী।

সাংবাদিকদের মন্ত্রী আরও জানিয়েছেন, বাংলাদেশ সরকার কূটনৈতিকভাবে চেষ্টা করছে যেন এ ব্যাপারে জাতিসংঘে বাংলাদেশের উদ্যোগ ব্যর্থ না হয়।

উল্লেখ্য, গত সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার বৈঠকে ২৫ মার্চকে গণহত্যা দিবস ঘোষণার বিষয়টি সর্বসম্মতভাবে গৃহীত হয়। সভা শেষে মন্ত্রিপরিষদসচিব জানান, জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে পালনের জন্য ২৫ মার্চকে ক শ্রেণিভুক্ত একটি দিবস হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করার প্রস্তাবও মন্ত্রিসভা অনুমোদন করেছে। গত ১১ মার্চ জাতীয় সংসদে গণহত্যা দিবস পালনের এই প্রস্তাব সর্বসম্মতভাবে গৃহীত হয়।

মন্ত্রিসভার অনুমোদনের আনুষ্ঠানিকতা শেষ হওয়ায় এখন থেকে প্রতিবছর বাংলাদেশে জাতীয়ভাবে দিবসটি পালন করা হবে। পাশাপাশি দিবসটি যেন আন্তর্জাতিকভাবেও পালন করা হয় সে জন্য উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এরই অংশ হিসেবে এ-সংক্রান্ত প্রস্তাবনা জাতিসংঘে পাঠানো হবে বলে উল্লেখ করেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী।

Top