আজ : মঙ্গলবার, ২১শে নভেম্বর ২০১৭ ইং | ৭ই অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

হাজীগঞ্জে ভূয়া বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক আটক হসপিটালের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেই।হতাশ হাজীগঞ্জ বাসী


সকল নিউজ আপডেট পেতে পেইজে লাইক দিন

নিজস্ব প্রতিনিধি:
হাজীগঞ্জে আবারো ভূয়া বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকসহ তার এক সহযোগিকে আটক করেছে পুলিশ। সোমবার দুপুরে হাজীগঞ্জ বাজারস্থ ইসলামীয়া মর্ডাণ হাসপাতাল (প্রাঃ) থেকে ডা. এম. এস জামান চৌধুরী (৪০) নামের এ ভূয়া চিকিৎসক ও তার সহযোগি ইমরুল হোসেন পাটওয়ারী (৪৮)কে আটক করা হয়।
ডা. এম. এস জামান চৌধুরী গত ছয় মাস যাবৎ মেডিসিন, চর্ম, যৌন ও কসমেটিক বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক হিসেবে নিজেকে পরিচয় দিয়ে প্রতি সোমবার ৫শ টাকা ফি’তে চিকিৎসা সেবা দিয়ে আসছিলেন ইসলামীয়া মর্ডাণ হাসাপাতালে।
আটককৃত জামান চৌধূরী চাঁদপুর জেলার হাইমচর থানার বাজপ্তি গ্রামের মৃত আছাদুজ্জামানের ছেলে। তিনি বর্তমানে গাজীপুর জেলার মাওনা উপজেলার শিংচুর (মূলাইদ) গ্রামের বাসিন্দা। তার সহযোগি ইমরুল হোসেন পাটওয়ারী চাঁদপুর সদর উপজেলার হানারচর গ্রামের (আকনহাট) মৃত বেলায়েত পাটওয়ারীর ছেলে। তিনি বর্তমানে নারায়ণগঞ্জ জেলার রুপগঞ্জ উপজেলার মুগরাকুল গ্রামের বাসিন্দা।
থানা সূত্রে জানা যায়, জামান চৌধুরী ভূয়া চিকিৎসক পরিচয়ে দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা দিয়ে আসছিলেন। একই ব্যক্তি হাজীগঞ্জের ইসলামীয়া মর্ডাণ হাসপাতালে প্রতি সোমবার নিয়মিত রোগি দেখেন  এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তাদেরকে আটক করে থানা নিয়ে আসা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা নিজেদের ভূয়া চিকিৎসক বলে স্বীকার করে।
হাজীগঞ্জ থানা অফিসার ইনর্চাজ মোহাং জাবেদুল ইসলাম ভূয়া চিকিৎসক ও তার সহযোগিকে আটকের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, আটককৃতদের কাছে নিজ নামে চিকিৎসকের ব্যবহৃত প্যাড ও ভিজিটিং কার্ড পাওয়া গেছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসা তারা নিজেদের দোষ স্বীকার করেছে। তাদের বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছেন এই কর্মকর্তা।

Top