আজ : বুধবার, ২২শে নভেম্বর ২০১৭ ইং | ৮ই অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

ছবি চেয়ারম্যান এর অবৈধ ইট-ভাটার প্রভাবে ক্ষতিগ্রস্ত কোমলমতি শিশুরা! ইটভাটা বন্ধের দাবী


সকল নিউজ আপডেট পেতে পেইজে লাইক দিন

নিয়াজ মো: বরিশালের চরকাউয়ার সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মনিরুল ইসলাম ছবি কতৃক অবৈধ ইট-ভাটা লুনা ব্রিকস্ পরিচালনার অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেছে। সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, চরকাউয়ার বিশিষ্ট ব্যাবসায়ী, চরকাউয়ার বাস মালিক সমিতির সভাপতি, ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধি মনিরুল ইসলাম ছবি এ ভাটার লিস নেয় গত প্রায় ৩ বছর আগে।তার এক অতি নিকট আত্নীয় সমস্ত টাকা পয়সার লেনদেন ও দেখাশোনা করেন, ছবি চেয়ারম্যান শুধু নাম ব্যাবহার করেন। গভীর অনুসন্ধান রিপোর্ট বলে, পরিবেশ বিরোধী এ ইট ভাটার মধ্যে রয়েছে একটি প্রাইমারি স্কুল। ১১৩ নং চরকাউয়া মাতৃ স.প্রাথমিক বিদ্যালয়। এল,জি,ই,ডি কতৃক ১৯৭২ সালের স্থাপিত ঐতিহ্যবাহী স্কুলটির কোমলমতি শিশুরা শ্বাসকষ্ট ও বায়ুজনিত অনেক রোগে ভুগছে। ইট ভাটায় কাঁচা বাঁশ, কাঠ,গাছ পোড়ানো হয়। আশেপাশের ৩ টা গ্রামের বন উজার করেছে ইতি মধ্যে ভাটা কতৃপক্ষ। নদী পাড়ের জমির মাটি কেটে তৈরি হয় লুনা ইট। ফলে, নদীর পাড় ভাঙ্গন ও ধানিজমি ‘র প্রচুর ক্ষতির পরিমান বাড়ছে। ইটভাটার প্রভাব পড়েছে এলাকার মানুষের জনজীবন এর প্রতি ।এলাকাবাসীর সাথে ইট ভাটার কতৃপক্ষ জিহাদ ঘোষণা করেছে। সমস্ত মানুষের চাঁপা ক্ষোভ এখন এই ভাটার পরিচালক ও জনপ্রতিনিধি ছবি’র উপর। এদিকে, পরিবেশ বিরোধী এ ভাটার কারনে বন উজার হয়ে যাচ্ছে, মাটির উর্ভরতা হারাচ্ছে। যেখানে পরিবেশ অধিদফতর এর সম্পূর্ণ নূন্যতম এক কিলোমিটার এর মধ্যে স্কুল কলেজ নিষিদ্ধ, সেখানে ভাটার মধ্যে স্কুলটি একটি জলন্ত প্রতিবাদ। চোঁখের সামনে এমন অবৈধ ভাটাটি বিষয়ে পরিবেশ অধিদফতর এর এ.ডি আরেফিন বাদল বলেন,” এ ধরনের ইট ভাটা পুরোপুরিভাবে নিষিদ্ধ। আমরা এ ধরনের ভাটার কোন নবায়ন বা লাইসেন্স দেই না। ইট পোড়ানোর মৌসুমে এদের বিরুদ্ধে ব্যাবস্থা নেয়া হবে।” স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা দেলোয়ার বেগম বলেন ” আমার এ বিষয়ে মন্তব্য না নিলে খুশি হব, কারন এ ভাটা সবাই দেখে। আমি শুধু শুধু চেয়ারম্যান এর শত্রু হব কেন? ”
স্থানীয়দের মধ্যে অনেকে বলেন, “আমরা বেশ কয়েকবার এ ভাটার প্রতিবাদ করেছি। লাঞ্চনা ছাড়া কিছুই মেলেনি।

আরও পড়ুন...
Top