আজ : মঙ্গলবার, ১২ই ডিসেম্বর ২০১৭ ইং | ২৮শে অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

টাইটানিকের শেষে ডিক্যাপ্রিও কেন মরলেন, ব্যাখ্যা দিলেন পরিচালক


সকল নিউজ আপডেট পেতে পেইজে লাইক দিন

‘টাইটানিক’ নিয়ে ভক্তদের আগ্রহের শেষ নেই। লিওনার্ডো ডিক্যাপ্রিও ও কেট উইন্সলেট অভিনীত ছবিটির বহু দৃশ্য দর্শকদের ভীষণভাবে আলোড়িত করে। সর্বাধিক আয় ও সর্বাধিক অস্কার জয়ের রেকর্ড গড়া সিনেমাটির শেষ দৃশ্য নিয়ে ভক্তরা বহু বহু তত্ত্ব তৈরি করেছে। সবগুলো তত্ত্বের একটাই সিদ্ধান্ত – শেষ দৃশ্যে রোজ চাইলেই জ্যাককে বাঁচাতে পারত।
.
এমনকি কেট উইন্সলেটও এসব তত্ত্বের সাথে একমত পোষণ করেছেন। কিন্তু ইন্টারনেটে অসংখ্য ভক্তদের মিনতি সত্ত্বেও ছবিটির পরিচালক জেমস ক্যামেরন মনে করেন জ্যাককে জীবিত পাওয়ার কোনো উপায়ই নেই।
‘টাইটানিক’-এর বিশ বছর মুক্তি উপলক্ষে সম্প্রতি জেমস ক্যামেরনের সাক্ষাৎকার নেয় ভ্যানিটি ফেয়ার। তার মত হচ্ছে – যা হওয়ার হয়ে গেছে। শিল্পের খাতিরে ওইটাই কাহিনীর সবচেয়ে স্বাভাবিক পরিণতি।

ভ্যানিটি ফেয়ারকে ক্যামেরন বলেন, ওই ভাসমান কাঠের দরজার উপর রোজের পাশে জ্যাকের জায়গা হলেও, কাহিনীর স্বার্থেই তাকে মরতে হয়।
ক্যামেরন এর আগেও দর্শকদের বাতলে দেয়া জ্যাককে বাঁচানোর বিভিন্ন উপায় নিয়ে মন্তব্য করেছিলেন। এ বছরের শুরুতে এই প্রসঙ্গে তিনি ডেইলি বিস্ট-কে বলেন, “দেখুন, বিষয়টা খুবই সহজ। স্ক্রিপ্টের ১৪৭ নম্বর পৃষ্ঠায় গিয়ে দেখুন, সেখানে লেখা আছে ‘জ্যাক কাঠের বোর্ডটা থেকে নেমে গিয়ে রোজকে জায়গা করে দেয়, যেন সে বাঁচতে পারে। জিনিসটা এত সিম্পল! এখন যত খুশি গবেষণা করুন, কিছু বদলাবে না’।”

বোর্ডে দুই জনের জায়গা হলেও শিল্পী হিসেবে তিনি জ্যাকের ডুবে যাওয়াই ভাল মনে করেছিলেন, এবং এসব নিয়ে কথা বলতে বিরক্ত বোধ করেন ক্যামেরন।
তবে ইন্টারনেট দুনিয়াকে সন্তুষ্ট করা এত সহজ নয়। সিনেমাটির ২০ বছর পূর্তি উপলক্ষে ডিসেম্বরে আবার নতুন করে মুক্তি দেয়া হবে ‘টাইটানিক’। এবং আশা করা যাচ্ছে এবার আরও নতুন নতুন থিওরি নিয়ে হাজির হবেন দর্শক ও ভক্তরা।

Loading...

আরও পড়ুন...
Top