আজ : মঙ্গলবার, ২১শে নভেম্বর ২০১৭ ইং | ৭ই অগ্রহায়ণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

শীতে উত্তাপ ছড়াবে রাজনীতি


সকল নিউজ আপডেট পেতে পেইজে লাইক দিন

আবহাওয়ার পূর্বাভাসে জানানো হয়েছে, নভেম্বরের মাঝামাঝি নাগাদ দেশে শীত পড়বে। রাজনীতির পূর্বাভাস বলছে, এবার শীতেই উত্তপ্ত হবে রাজনীতির মাঠ। নির্বাচন কিংবা আন্দোলন যেটাই হোক না কেনো, রাজনীতির মাঠে নামবে প্রধান দুই দল আওয়ামী লীগ এবং বিএনপি।

আওয়ামী লীগ সূত্রে জানা গেছে, নভেম্বরের মাঝামাঝি নাগাদ দলের সভাপতি এবং প্রধানমন্ত্রী দেশব্যাপী সফরে বেরুবেন। বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মসূচির উদ্বোধন ছাড়াও দেশের বিভিন্ন স্থানে তিনি রাজনৈতিক সমাবেশ করবেন। এর মধ্যে দিয়ে আওয়ামী লীগ আনুষ্ঠানিক প্রচারিভিযান শুরু করবে। তবে শুধু নির্বাচনই আওয়ামী লীগের দেশব্যাপী সাংগঠনিক কার্যক্রমের একমাত্র লক্ষ্য নয়। আওয়ামী লীগের কাছে খবর আছে, এ সময় বিএনপি তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবিতে বিএনপি দেশব্যাপী রাজনৈতিক কর্মসূচি নিয়ে দেশে নামবে। রাজনৈতিক কর্মসূচি রাজনৈতিকভাবে মোকাবেলার জন্য আওয়ামী লীগ ডিসেম্বর-জানুয়ারি জুড়ে নানা কর্মসূচি পরিকল্পনা করছে। শুধু দলের সভাপতি নয়, শীর্ষস্থানীয় সব নেতাদেরই সাংগঠনিক সফরের জন্য প্রস্তুত করা হচ্ছে। এই মুহূর্তে আওয়ামী লীগের প্রধান সমস্যা মাঠ পর্যায়ে অন্তঃকলহ এবং বিরোধ। আওয়ামী লীগের কাছে আসা একাধিক জরিপে দেখা গেছে, শুধুমাত্র নিজেদের বিরোধেই অন্তত ১০০ আসন বিপজ্জনক হয়ে উঠতে পারে। এজন্য দ্রুততম সময়ের মধ্যে বিরোধ মীমাংসার জন্য মাঠে নামছেন হেভিওয়েটরা। দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বাংলা ইনসাইডারকে জানিয়েছেন, ‘আগামী বছর নির্বাচন হবে। তাই আমরা বছরজুড়ে সাংগঠনিক কর্মসূচি রাখছি। আমরা জনগণের কাছে যাব, আওয়ামীলীগ কি করেছে তা বলব।’ তিনি বলেন, ‘নির্বাচনকে সামনে রেখে বিএনপি জামাত নানা ষড়যন্ত্র করতে পারে।’ আমরা সবাই সচেতন থেকে এই ষড়যন্ত্র রুখে দেব। এজন্য রাজনীতির মাঠে থাকতেই হবে।‘

অন্যদিকে ঢাকা-কক্সবাজার রোড শো ছিল বিএনপির জন্য টেস্ট কেস। বেগম জিয়া বহুদিন পর বেরুলেন। তিনি দেখলেন মানুষ কেমন সাড়া দেয়। বিএনপি নেতা আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীর মতে, ’বেগম জিয়ার কক্সবাজার সফরে মানুষের ঢল নেমেছিল। এটা নেতা কর্মীদের উজ্জীবিত করেছে।‘ তিনি বলেন,;সরকার যদি শেষ পর্যন্ত অবাধ, নিরপেক্ষ নির্বাচনের ক্ষেত্র প্রস্তুত না করে, সেক্ষেত্রে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে আন্দোলনের কোনো বিকল্প আমাদের সামনে নেই।’

বিএনপির একাধিক নেতা বলেছেন, বিএনপি বেশিদিন অপেক্ষা করবে না। খুব শিগগিরই আমরা নির্দলীয় সরকারের দাবি নিয়ে মাঠে নামব। বেগম জিয়া ঢাকা-কক্সবাজারের মতো দেশব্যাপী রোড শো করার পরিকল্পনা নিয়েছে। আগামী মাসেই তিনি সিলেট, খুলনা, দিনাজপুর, রাজশাহীতে সফরে যাবার চিন্তা করছেন। বিএনপির ধারণা এসব সফরের মাধ্যমে সারাদেশে ‘জোয়ার’ সুষ্টি হবে। এই জোয়ার তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবিকে সংহত করবে।

তবে, আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতারা খুব স্পষ্ট করে বলেছে, মানবিক কারণে বেগম জিয়াকে কক্সবাজার যেতে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু রাজনৈতিক কর্মসূচির নামে কোনো অরাজকতা ও বিশৃঙ্খলাকে বরদাস্ত করবে না।

এরকম পরিস্থিতিতে, এবার শীতে উত্তাপ ছড়াবে রাজনীতি। সেই উত্তাপ সাধারণ মানুষের জন্য কতটা সহনীয় হয় তাই দেখার বিষয়।

আরও পড়ুন...
Top