আজ : বৃহস্পতিবার, ২৭শে এপ্রিল, ২০১৭ ইং | ১৪ই বৈশাখ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

অপরাধের বিচার ধনী গরীব মেনে হয় না: হাইকোর্ট

সময় : ৩:১১ অপরাহ্ণ , তারিখ : ১১ এপ্রিল, ২০১৭


ঢাকা: অপরাধের বিচার ধনী গরীব মেনে হয় না। বিচারকের কাছে সবাই সমান। সাধারণ মানুষের ইমোশন থাকতে পারে কিন্তু বিচারকদের ইমোশন থাকে না বলে মন্তব্য করেছেন হাই কোর্ট।

আজ মঙ্গলবার সিলেটের সবজি বিক্রেতা শিশু শেখ সামিউল আলম রাজন হত্যা মামলার হাই কোর্টের রায় ঘোষণার সময় বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেন ও বিচারপতি মো. জাহাঙ্গীর হোসেনের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ একথা বলেন।

গত ১২ মার্চ শিশু শেখ সামিউল আলম রাজন হত্যা মামলার ডেথ রেফারেন্স (মৃত্যুদণ্ড অনুমোদন) ও আসামিদের করা আপিলের শুনানি শেষে হাইকোর্ট ১১ এপ্রিল রায়ের জন্য দিন ধার্য করেন।

২০১৫ সালের ৮ জুলাই সিলেটের কুমারগাঁওয়ে চুরির অভিযোগ তুলে শিশু রাজনকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়। পরে হত্যাকারীরাই সেই নির্যাতনের ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়। এঘটনায় দেশজুড়ে তোলপাড় সৃষ্টি হয়।

পরে ওই বছরের ১৬ আগস্ট ১৩ জনকে আসামি করে আদালতে অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ। একই বছরের ৮ নভেম্বর বিচারিক আদালতের দেয়া রায়ে ১০ আসামিকে দণ্ডিত করা হয়। যাদের মধ্যে কামরুল ইসলাম, ময়না চৌকিদার, তাজউদ্দিন আহমদ বাদল ও জাকির হোসেন পাভেল আহমদের ফাঁসির আদেশ হয়।

কামরুলের সহযোগী নূর মিয়াকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং কামরুলের তিন ভাই মুহিত আলম, আলী হায়দার ও শামীম আহমদকে (পলাতক) সাত বছর করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়। এক বছর করে দণ্ড হয় দুলাল আহমদ ও আয়াজ আলীর।

বিচারিক আদালতের রায়ের পর পলাতক পাভেল আহমেদ ছাড়া মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত অপর তিন আসামি হাইকোর্টে আপিল ও জেল আপিল করেন। এছাড়া আপিল করেন যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত নূর মিয়া।

Top