আজ : বৃহস্পতিবার, ২৯শে জুন, ২০১৭ ইং | ১৫ই আষাঢ়, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

দুই সংবাদ সম্মেলনের দিকেই তাকিয়ে দেশবাসী

সময় : ২:৫৬ অপরাহ্ণ , তারিখ : ১১ এপ্রিল, ২০১৭


ঢাকা: একই দিনে দুটি সংবাদ সম্মেলন। একটি আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিষয়ে, অন্যটি প্রেম আর পারিবারিক সম্পর্কের বিষয়ে। একটি সংবাদ সম্মেলনে আসছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, অন্যটিকে আসছেন এই মুহূর্তে বাংলাদেশের রূপালি পর্দার প্রধান নায়ক শাকিব খান। দুই সংবাদ সম্মেলন নিয়েই এখন আলোচনা-অপেক্ষা দেশ জুড়ে।

আজ মঙ্গলবার শাকিব খান সংবাদ সম্মেলন করবেন বেলা ১১টায়, আর প্রধানমন্ত্রীরটি বিকাল সাড়ে চারটায়।

এই দুই সংবাদ সম্মেলনকে ঘিরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আলোচনার ঝড়। সরকার সমর্থক আর বিরোধীরা যেমন সরকারের পক্ষে-বিপক্ষে নানা বক্তব্য আর মত প্রকাশ করে যাচ্ছেন, তেমনি শাকিব আর অপু ভক্তরাও চালিয়ে যাচ্ছেন তাদের কথা।

গত কয়দিন ধরেই দেশবাসীর একটি বড় অংশের মনযোগ ছিল ভারতের দিকে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেশটি সফরে করা চুক্তির পর প্রতিক্রিয়া-পাল্টা প্রতিক্রিয়ায় উত্তপ্ত ছিল রাজনৈতিক অঙ্গন। বিরোধীদের দেশ বেচে দেয়ার অভিযোগ, এ নিয়ে ক্ষমতাসীনদের পাল্টা আক্রমণ-দুই নিয়ে আলোচনার মোড় ঘুরিয়ে দিয়েছেন চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস। সন্তান সমেত টেলিভিশনে হাজির হয়ে জানিয়েছেন, এই শিশুর বাবা শাকিব খান। তাদের বিয়ে হয়েছে নয় বছর আগেই।

মুহূর্তেই তোলপাড়। শাকিব কোথায়, খোঁজ করতে করতে পাওয়া যায় তাকেও। তিনিও কথা বলেন বিভিন্ন গণমাধ্যমের সঙ্গে। জানালেন, হ্যাঁ, এই ছেলে তারই। তবে অপু বিশ্বাস স্ত্রী কি না-এই বিষয়ে তিনি একেক গণমাধ্যমের কাছে কথা বলেছেন একেক রকম। একটি গণমাধ্যমকে বলেছেন, তাদের বিয়ের খবর গোপন রাখার পরিকল্পনা হয়েছিল আলোচনা করেই। আবার অন্য একটি গণমাধ্যমকে তিনি বলেছেন, অপুকে তিনি বিয়ে করেননি।

এর মধ্যেই টেলিভিশন স্ক্রলে ‘সদ্য সংবাদ’ হয়ে আসে শাকিব খানের সংবাদ সম্মেলনের কথা। শাকিব গণমাধ্যমকে জানান, গুলশানের একটি হোটেলে তিনি গণমাধ্যম কর্মীদের মুখোমুখি হবেন মঙ্গলবার বেলা ১১টায়। এখানে তিনি তার বিরুদ্ধে তোলা সব প্রশ্নের জবাব দেবেন, জানাবেন তার বক্তব্য।

বিদেশ সফর থেকে দেশে ফিরলেই বরাবর গণমাধ্যমের মুখোমুখি হন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এবারও তার ব্যতিক্রম হচ্ছে না। চার দিনের ভারত সফরে করা চুক্তি আর সমঝোতা স্মারক নিয়ে রাজ্যের আলোচনা। কিন্তু কী আছে, এসব চুক্তিতে তার বিস্তারিত প্রকাশ হয়নি। তার আগেই দেশ বেঁচে দেয়া, পাঁচ বছর পর কাগজপত্র করে দেশ দিয়ে দেয়ার অভিযোগ তুলেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া।

এরই মধ্যে ভারতে বসে কিছুটা জবাব দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এবার অপেক্ষা দেশের গণমাধ্যমকর্মীদের প্রশ্নের জবাবে কী উত্তর আসে।

Top