আজ : বৃহস্পতিবার, ১৭ই আগস্ট, ২০১৭ ইং | ২রা ভাদ্র, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

ধর্ষণের শঙ্কায় ছিলেন কিম কার্দাশিয়ান

সময় : ৩:০২ পূর্বাহ্ণ , তারিখ : ২২ মার্চ, ২০১৭


ধর্ষণের শিকার হতে পারেন এমন শঙ্কায় ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের জনপ্রিয় মডেল ও অভিনেত্রী কিম কারদাশিয়ান।

তিনি বলেন, প্যারিসে ডাকাতেরা আমার পা চেপে ধরে টেনেহিঁচড়ে বিছানার দিকে নিয়ে যাচ্ছিল। তখন আমার মনে হয়েছিল, তারা আমাকে এই মুহূর্তে ধর্ষণ করতে যাচ্ছে। আর এটার জন্য আমি মানসিকভাবে প্রস্তুতও হয়েছিলাম।

টিভি রিয়্যালিটি শো ‘কিপিং আপ উইথ দ্য কারদাশিয়ানস’-এর পর্বে ৩৬ বছর বয়সী তারকা কিম কারদাশিয়ান প্যারিসে ডাকাতির ঘটনা প্রসঙ্গে এসব কথা বলেন।

ডাকাতির ঘটনা প্রসঙ্গে রিয়্যালিটি শোয়ে কিম বলেন, চিৎকার যেন করতে না পারি, এ কারণে পুলিশের পোশাকে আসা ডাকাতেরা আমার মুখ টেপ দিয়ে আটকে ফেলে। একজন পা চেপে ধরে। সে সময় আমার পায়ের দিকে কোনো পোশাক ছিল না। তারা আমাকে টেনেহিঁচড়ে বিছানার দিকে নিয়ে যাচ্ছিল। তখন আমার মনে হয়েছিল, তারা আমাকে এই মুহূর্তে ধর্ষণ করতে যাচ্ছে।

এটার জন্য আমি মানসিকভাবে প্রস্তুত হয়েছিলাম। কিন্তু তাঁরা ধর্ষণ করেননি। বরং বিছানায় নিয়ে পা দুটি বাঁধার পর মাথায় বন্দুক তাক করে রাখে। সেই মুহূর্তে মনে হয়েছিল, তারা তখনই মাথায় গুলি করে দেবে। মনে মনে প্রার্থনা করছিলাম, বোন কোর্টনি যেন বিছানায় আমার লাশ দেখেও স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে পারে।

কিম বলেন, ডাকাতেরা হোটেলে আমার কক্ষে ঢোকার আগে হোটেলের একজন নিরাপত্তা রক্ষীকে জোর করে নিয়ে এসেছিল। আমার মুখে টেপ লাগানোর আগে তাদের বলেছিলাম, আমরা কী মরে যাচ্ছি। তারা আমার কথা বুঝতে পারছিল না। এ সময় ওই নিরাপত্তারক্ষীকে বলেছিলাম, তারা আমার কথা বুঝবে না। দয়া করে আপনি তাদের বলুন, আমার বাচ্চা আছে, পরিবার আছে। আমাকে যেন বাঁচিয়ে রাখে।

কিম কারদাশিয়ান বলেন, এরপর ডাকাতেরা আমার ৪০ লাখ ডলার মূল্যের বিয়ের আংটি নিয়ে আরও অর্থ দাবি করে। আমি জানাই, আমার কাছে আর কোনো অর্থ নেই। পরে তারা কক্ষ থেকে সব লুট করে আমাকে টেনেহিঁচড়ে বারান্দা দিয়ে সিঁড়ির কাছে নিয়ে যায়। আমি তখন একবার বন্দুকের দিকে, আরেকবার সিঁড়ির দিকে তাকাচ্ছিলাম। তবে তারা পালিয়ে যাওয়ার সময় আমাকে গুলি না করে বাথরুমে ছুড়ে ফেলে দেয়।

গত বছরের অক্টোবরে ফ্রান্সে প্যারিস ফ্যাশন উইকে যোগ দিতে গিয়েছিলেন দুই সন্তানের মা কিম কারদাশিয়ান। সে সময় হোটেলের কক্ষে অস্ত্রধারী ডাকাতেরা ঢুকে তাঁকে বেঁধে ফেলে। এরপর তারা গয়নাসহ প্রায় ১০ মিলিয়ন ডলার (এক কোটি ডলার) লুট করে পালিয়ে যায়।

Top