২১শে অক্টোবর, ২০১৮ ইং, রবিবার

প্রাইভেট পড়তে বেরিয়ে ধর্ষিত ছাত্রী, অতঃপর

আপডেট: সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৮

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

তাসনিম সুলতানা তুহিন। পরিবারের চার ভাই-বোনের মধ্যে সবার ছোট। সবার আদরে বেড়ে ওঠা ওই ছাত্রী পড়াশোনা করতো হাটহাজারী গালস্ স্কুল এ­ন্ড কলেজের অষ্টম শ্রেণিতে। বাবা-মা হজ্বে গিয়েছেন। তাই মামার বাড়িতে ছিল ওই ছাত্রী। এরই মাঝে প্রাইভেট পড়তে গিয়ে নিখোঁজ হয় ওই ছাত্রী। কিন্তু এই ছাত্রীটির ভাগ্যে এমন নির্মমতা-নৃশংসতা হবে তা জানা ছিল না।
প্রাইভেট পড়তে যাওয়ার সময় এলাকার বখাটে যুবক তাকে তুলে নিয়ে যায়। পৌরসভার চন্দ্রপুর গ্রামের পল্লী চিকিৎসক মোহাম্মদ শাহাজান সিরাজের বখাটে বালক শাহনেওয়াজ সিরাজ মুন্না ওই ছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা করে।
তুহিনের ছোট মামা মো. সাইফুল ইসলাম জানান, বুধবার (১৯ সেপ্টেম্বর) আমার বোন ও ভগ্নিপতি তুহিনের পিতা-মাতা হজ্ব পালন শেষে দেশে ফিরে আসার কথা রয়েছে। বাড়ি ফিরলে তাদেরকে প্রাণের প্রিয় কন্যা তুহিনকে আমরা কিভাবে ফিরিয়ে দেব।
উল্লেখ্য, হাটহাজারী পৌরসভার ফটিকা গ্রামের শাহজালাল পাড়া এলাকা থেকে নিখোঁজ হওয়ার দুই দিন পর তাসনিম সুলতানা তুহিন (১৩) নামে এক স্কুল ছাত্রীর গলিত লাশ উদ্ধার করেছে মডেল থানা পুলিশ। রোববার রাতে সালাম ম্যানশন নামে ছয় তলা বিশিষ্ট একটি ভবনের চতুর্থ তলার একটি ফ্ল্যাট থেকে পুলিশ তুহিনের লাশ উদ্ধার করে। তুহিন ওই ভবনের মালিক উপজেলার গড়দুয়ারা ইউনিয়নের নেয়ামত আলী সারাং বাড়ির আবু তৈয়বের মেয়ে এবং হাটহাজারী গালর্স স্কুল এন্ড কলেজের ৮ম শ্রেণির ছাত্রী।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন