আজ : মঙ্গলবার, ১৭ই জুলাই, ২০১৮ ইং | ২রা শ্রাবণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

ফাস হল ঐশ্বরিয়ার যৌন কেলেঙ্কারি


হলিউডে এখন আলোচিত ঘটনা প্রযোজক হার্ভি ওয়াইনস্টিনের যৌন কেলেঙ্কারি। ৫ অক্টোবর ‘দ্য নিউইয়র্ক টাইমস’ আর ১০ অক্টোবর ‘দ্য নিউ ইয়র্কার’ পত্রিকা হার্ভির যৌন কেলেঙ্কারি নিয়ে দুটি অনুসন্ধানী প্রতিবেদন প্রকাশ করার পরই হৈচৈ পড়ে যায়। এরপর থেকে একের পর এক থলের বিড়াল বের হয়ে আসতে শুরু করে। প্রতিবেদন দুটি প্রকাশ পাওয়ার পর প্রায় প্রতিদিনই কোনো না কোনো অভিনেত্রী ও মডেল এই বিষয়ে মুখ খুলছেন। তাঁরা নানা মাধ্যমে হার্ভির সঙ্গে নিজেদের খারাপ অভিজ্ঞতার কথা জানাচ্ছেন।

হার্ভির যৌন কেলেঙ্কারি নিয়ে যখন হলিউড উত্তপ্ত, তখনই এই ব্যক্তি সম্পর্কে আরেকটি বিস্ফোরক তথ্য জানা গেল। সিমন শেফিল্ড নামের এক ব্যক্তি বলেন, বলিউড অভিনেত্রী ও সাবেক বিশ্বসুন্দরী ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চনের সঙ্গেও একবার একান্তে দেখা করতে চেয়েছিলেন হার্ভি। সিমন হলিউডে ঐশ্বরিয়ার ব্যবস্থাপকের দায়িত্বে ছিলেন।

ঐশ্বরিয়া যখন হলিউডে কাজ করতে যান, তখন তাঁর সঙ্গে হার্ভির দেখা হয়। একবার এই প্রযোজকের সঙ্গে একটি মিটিংয়ে অংশ নিয়েছিলেন এই ভারতীয় সুন্দরী। সঙ্গে তাঁর ব্যবস্থাপক সিমন শেফিল্ডও ছিলেন। কিন্তু হার্ভি ঐশ্বরিয়াকে মিটিং রুমে একান্তে পেতে চেয়েছিলেন। সিমনকে নাকি তিনি কয়েকবার রুমের বাইরে যাওয়ার ইঙ্গিতও দেন। কিন্তু প্রতিবারই সিমন তাঁর এই আদেশ বিনীতভাবে ফিরিয়ে দেন। এরপর তাঁকে আলাদা ডেকে নিয়ে হার্ভি বলেন, ‘রুম থেকে বের হওয়ার জন্য তুমি কী চাও?’

আসলে তখন যেকোনো কিছুর বিনিময়েই অ্যাশকে একা চাইছিলেন হার্ভি। কিন্তু তাঁর স্বভাব সম্পর্কে আগেই ধারণা ছিল সিমনের। ঐশ্বরিয়ার নিরাপত্তার কথা ভেবে তিনি সেদিন তাঁকে একা ছাড়েননি। এরপর অবশ্য হার্ভির চক্ষুশূলে পরিণত হন সিমন। এমনকি তাঁর চাকরি কেড়ে নেওয়ারও হুমকি দিয়েছিলেন।

হার্ভি ওয়াইনস্টিন আর তাঁর বান্ধবীর সঙ্গে অভিষেক বচ্চন ও ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চনঅ্যাঞ্জেলিনা জোলি, গিনেথ প্যাল্ট্রো, অ্যাশলে জুড, কারা ডালাভিনেন, কেট বেকিনসেল, লি সিডু, হিথার গ্রাহামসহ অনেক অভিনেত্রী ও মডেলকে বিভিন্ন সময় অনৈতিক শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনের প্রস্তাব দিয়েছেন হার্ভি। অভিনেত্রী রোজ ম্যাকগোয়ানও টুইটারে হার্ভির বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ করেছিলেন। এর মধ্যে ব্রিটিশ মডেল ও অভিনেত্রী কারা ডালাভিনেন হার্ভির যৌন নির্যাতনের বর্ণনা দিয়ে ইনস্টাগ্রামে একটি দীর্ঘ পোস্ট দেন। সেটি নিয়ে একটি সংবাদ প্রকাশ করে ‘ভ্যারাইটি’ পত্রিকা। পত্রিকাটির ওয়েব পোর্টালের মন্তব্যের ঘরেই শিমন শেফিল্ড ঐশ্বরিয়ার ও হার্ভির সঙ্গে তাঁর সেই অভিজ্ঞতার কথা জানান। হলিউডে ঐশ্বরিয়া অভিনীত ছবিগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য ‘দ্য পিংক প্যানথার টু’, ‘দ্য লাস্ট লিজান’, ‘দ্য মিসট্রেস অব স্পাইস’।

আর ‘পাল্প ফিকশন’, ‘মালেনা’, ‘দ্য কিংস স্পিচ’, ‘শেকসপিয়ার ইন লাভ’, ‘মাই উইক উইথ মেরিলিন’, ‘গ্যাংস অব নিউইয়র্ক’-এর মতো ছবির প্রযোজক হার্ভি ওয়াইনস্টিন। তিনি প্রভাবশালী প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান দ্য ওয়ানস্টিন কোম্পানির প্রধান ছিলেন। ছিলেন মিরাম্যাক্স ফিল্মসের প্রতিষ্ঠাতাও। কিন্তু যৌন হয়রানির অভিযোগ পাওয়ায় তাঁকে তাঁরই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান দুটি থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

সূত্র: ইন ইয়ুথ।

Top