আজ : রবিবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং | ১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

চট্টগ্রামে একে একে ৭ জন মিলে তরুণীকে ধর্ষণ, বাড়িতে হৃদয়বিদারক দৃশ্য


বাড়িতে হৃদয়বিদারক দৃশ্য – একে একে সাতজন ধর্ষণ করে মীমকে। এরপর গলা টিপে হত্যা করে তারা। ধর্ষকদের আশঙ্কা- বেঁচে থাকলে মীম সবাইকে ধর্ষণের কথা বলে দেবে। এতে ফেঁসে যাবে তারা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ফেঁসেই গেল।

পুলিশের তদন্তে সুরতহাল রিপোর্ট আর সন্দেহভাজন হিসেবে আটক মনিরুল ইসলামের দেয়া তথ্যের সূত্র ধরে পুলিশ ৫ ধর্ষককে আটক করেছে।

চট্টগ্রাম মহানগর আকবর শাহ্‌ থানার পুলিশ বুধবার রাত থেকে বৃহস্পতিবার ভোর পর্যন্ত নগরীর বিভিন্ন জায়গা ও কুমিল্লায় অভিযান চালিয়ে ৫ ধর্ষককে আটক করে।

এ নিয়ে মোট ৬ জনকে আটক করার কথা জানান আকবর শাহ্‌ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আলমগীর মাহমুদ। তিনি জানান, সন্দেহভাজন হিসেবে ঘটনার দিন মমতাজ মহল ভবনের কেয়ারটেকার মনিরুল ইসলামকে (৪১) আটক করা হয়।

মনিরুল ইসলামের স্বীকারোক্তিতে ৫ খুনিকে আটক করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা ৯ বছরের শিশু মীমকে সাতজনে ধর্ষণের পর গলা টিপে হত্যার কথা স্বীকার করেছে বলে জানান ওসি আলমগীর মাহমুদ।

তবে মামলা তদন্তের স্বার্থে তিনি আটক ৫ ধর্ষকের নাম ও পরিচয় প্রকাশ করেননি। বাকি এক ধর্ষককেও আটকে পুলিশের অভিযান চলছে বলে জানান তিনি।

ওসি আলমগীর মাহমুদ জানান, গত ২১শে জানুয়ারি রাত সাড়ে ১০টায় চট্টগ্রাম মহানগরীর আকবর শাহ্‌ থানা সংলগ্ন বিশ্বকলোনি এলাকায় মমতাজ মহল নামক পাঁচতলা একটি ভবনের দ্বিতীয় তলার বারান্দা থেকে ফাতেমা আক্তার মিম নামে ৯ বছরের শিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়।

Top