২১শে অক্টোবর, ২০১৮ ইং, রবিবার

মনিরামপুরে কলেজছাত্রীকে হত্যার প্রতিবাদে বিক্ষোভ

আপডেট: আগস্ট ৩১, ২০১৮

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

অমারেশ কুমার বিশ্বাস,জেলা প্রতিনিধি (যশোর): যশোরের মনিরামপুরে কলেজছাত্রী লাবনী দাসকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে এমন অভিযোগ তুলে স্বামী পরেশসহ জড়িতদের সর্বোচ্চ শাস্তি ফাঁসির দাবিতে বৃহস্পতিবার (৩০ আগস্ট) মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করেছে এলাকাবাসী। এতে ঋষি পল্লীর নারী-পুরুষ এবং শিশু-কিশোররাসহ স্থানীয় অনেকেই অংশ নেয়।

এ ব্যাপারে মনিরামপুর ওসি মোকাররম হোসেন বলেন, যেহেতু লাবনি নিহতের ঘটনায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। সে কারণে ময়না তদন্ত রিপোর্ট হাতে আসার পর পরবর্তী আইনী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নিহত লাবণীর মা লিপিকা দাস কান্নাজড়িত কন্ঠে বলেন, অন্য স্থানে তার মেয়ের বিয়ের আয়োজন ঠিক-ঠাক থাকার মধ্যেই পরেশ তাকে নানা প্রলোভন দিয়ে নিয়ে যায়। এর পরে আর আমার মেয়েকে দেখতে পায়নি। বিয়ের আঠারো দিনের মাথায় আমার মেয়েকে মেরে ফেললো ওরা। তিনি আরো বলেন, মৃত. অবস্থায় লাবনীল মুখের মধ্যে রুমাল ও ভাঙ্গা কলম ছিল। আমার মেয়েকে পরেশ দাস তার ভাই গোলক দাস, বোন চায়না এবং পিতা গৌর দাসসহ অন্যান্যরা মেরে ফেলেছে।

লাবণীর পিতা স্বপন দাস দাবি করেন, তার মেয়েকে বিয়ের পর পরেশ তাদের কাছে প্রথমে দুই লাখ ও তার কয়েকদিন পর পাঁচ লাখ টাকা যৌতুক দাবী করে। যৌতুকের টাকা না দিলে আমার মেয়ের ক্ষতিসহ নানা ধরনের হুমকি দেয় পরেশ। লাবনীকে উঠিয়ে নিয়ে যাওয়ার পর পুলিশকে জানানো হয়। ওই সময় পুলিশ যদি আইনী ব্যবস্থা গ্রহন করতো তাহলে আমাদের মেয়েকে এভাবে জীবন দিতে হতো না।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন