২৩শে অক্টোবর, ২০১৮ ইং, বুধবার

লন্ডনে বৃষ্টি উপেক্ষা করে শেখ হাসিনার হোটেল ঘিরে বিএন‌পির বিক্ষোভ

আপডেট: সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১৮

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

জাতিসংঘের ৭৩তম সাধারণ অধিবেশনে যোগ দিতে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে যাওয়ার পথে লন্ডনে যাত্রাবিরতি করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ যাত্রাবিরতির তৃতীয় দিন রবিবারও লন্ডনে টানা বিক্ষোভ করে যুক্তরাজ্য বিএনপি। গত শুক্রবার হিথ্রো বিমানবন্দরে শেখ হাসিনাকে বিক্ষোভ দেখাবার কর্মসূচি শুরু করে তারা।

তবে প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাতে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের গুটি কয়েক নেতা-কর্মীরাও উপস্থিত ছিলেন।

রবিবার নিউইয়র্কের উদ্দেশ্যে লন্ডন ছাড়েন প্রধানমন্ত্রী।

এবার যাত্রাবিরতির সময় লন্ডনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অবস্থান করা হোটেল ও আশপাশের এলাকায় মেট্রোপলিটন পুলিশের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো। পুলিশের পাশাপাশি প্রাইভেট সিকিউরিটি কোম্পানির নিরাপত্তাকর্মীদেরও হোটেলের আশপাশে নিরাপত্তা দিতে দেখা গেছে। এর আগে ডিম ও পানির বোতল ছোড়াছুড়ির ঘটনা ঘটলেও এবার কড়া নিরাপত্তার কারণে তেমন কোনো ঘটনা ঘটেনি।

রবিবার এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত লন্ডন সময় সকাল ৮টায় সেন্ট্রাল লন্ডনের ক্লারিজ হোটেলের সামনে বৃষ্টি উপেক্ষা করে বিএনপির শত শত নেতা-কর্মী বিক্ষোভে অংশ নেন। এসময় যুক্তরাজ্য বিএনপির সভাপতি এম এ মালেক, সাধারণ সম্পাদক কয়সর এম আহমদ, সাবেক প্রধান উপদেষ্টা শায়েস্তা চৌধুরী কুদ্দুছ, সাবেক সিনিয়র সহসভাপতি আব্দুল হামিদ চৌধুরী, সাবেক সহসভাপতি আবুল কালাম আজাদ, লুৎফুর রহমান, হাজী তইমুছ আলী, গোলাম রাব্বানী, গোলাম রাব্বানী সোহেল, সাবেক উপদেষ্টা সলিসিটর একরামুল হক মজুমদার, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি পারভেজ মল্লিক, সাবেক যুগ্ম-সম্পাদক ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ খান, কামাল উদ্দিন, নাসিম আহমেদ চৌধুরি, সামসুর রহমান মাতাব, সাবেক সিনিয়র সদস্য মিসবাউজ্জামান সোহেল, সাবেক সহ-সাধারণ সম্পাদক ফেরদৌস আলম, আজমল হোসেন চৌধুরী জাবেদ, যুবদলের সভাপতি রহীম উদদীন, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি নাসির আহমেদ শাহীন, জাসাসের সভাপতি এমদাদ আহমেদ, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক শামিম আহমেদ, খসরুজ্জামান খসরু, লন্ডন মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবেদ রাজা, সাবেক সহ সাংগঠনিক সম্পাদক কে আর জসিম, মোশাহিদ আলী তালুকদার, কোষাধক্ষ আব্দুস ছাত্তার, সাবেক দপ্তর সম্পাদক নাজমুল হাসান জাহিদ, কেন্দ্রীয় যুবদলের সাবেক সহ-আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক এনামুল হক লিটন, যুক্তরাজ্য বিএনপির সাবেক যুববিষয়ক সম্পাদক আব্দুল হামিদ খান হেভেন, যুব দলের সাধারন সম্পাদক আফজল হোসেন, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারন সম্পাদক মোহাম্মদ আবুল হোসেন, জাসাসের সাধারন সম্পাদক তাজচৌধুরী সিমুল, সাবেক ছাত্রবিষয়ক সম্পাদক আবু নাসের শেখ, সাবেক সহ-দফতর সম্পাদক সেলিম আহমান, সাবেক তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক জাহিদ গাজী, সাবেক সদস্য কামাল চৌধুরী, গুলযার আহমেদ, আব্দুল বাসিত বাদশা, সোহেল আহমেদ, সোহেল আহমেদ, কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সহ-সভাপতি শফিকুল ইসলাম রিবলু, ইস্ট লন্ডন বিএনপির সভাপতি ফখরুল ইসলাম বাদল, সাধারণ সম্পাদক এস এম লিটন, সেন্ট্রাল লন্ডন বিএনপির সভাপতি আব্দুস সামাদ, সাধারণ সম্পাদক জুয়েল আহমেদ,লন্ডন নর্থ ওয়েস্ট বিএনপির সভাপতি হাজী এম এ সেলিম, কেমডেন এন্ড ওয়েস্ট মিনিস্টার বিএনপির সাধারণ সম্পাদক পারভেজ কবির, সাউথ ইস্ট বিএনপির সভাপতি সালেহ আহমেদ জিলান, সাসেক্স বিএনপির সভাপতি তোফাজ্জল হোসেন, মিল্টন কিংস বিএনপির সভাপতি আব্দুল ওয়াদুদ সাহেল, কার্ডিফ বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মোঃ রফিকুল ইসলাম, কেন্ট বিএনপির সাধারন সম্পাদক রুহুল ইসলাম রুলু, ইসলাম, শেফিল্ড বিএনপির সিনিয়র সহ সভাপতি মিসবা চৌধুরী, কেমডেন এন্ড ওয়েস্ট মিনিস্টার বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক এম সাইফুল শিপু, কেম্ব্রিজ বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি মনোয়ার আলী, যুক্তরাজ্য বিএনপি নেতা আসসাদুজ্জামান আহমেদ, তোফায়েল বাসিত তপু, নাজমুল হোসেন চৌধুরী, মাওলানা শামিম আহমেদ, আহসানুল আম্বিয়া সুমন, লন্ডন মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি আব্দুল কুদ্দস, সায়েদ উদ্দিন চৌধুরী, শরীফ উদ্দিন ভুইয়া বাবু, আব্দুল রব, কদর উদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ চৌধুরী, যুগ্ম সম্পাদক ফয়সল আহমেদ, আবু তাহের, রোমান আহমদ চৌধুরী, মাহবুবুর রহমান সাকিব ,মাহবুব হাসান সাকিব, তোফায়েল হোসেন মৃধা, কাওছার আহমেদ, আবু তাহের , নজরুল ইসলাম খান, মোঃ জিয়াউর রহমান, মো: মঈনুল ইসলাম, সেলিম মাহমুদ, মোঃ মাকসুদুল হক, মোঃ রবিউল আলম, দেওয়ান মইনুল হক উজ্জ্বল, মিলাদ হসেন রুবেল, কামরুন্নহার সাহানা, আসমা জামান, আবু নোমান, মিছবাহ উদ্দিন , শাকিল আহমদ, ইমরান হোসেন, মোহাম্মদ শাহনেওয়াজ, জামাল হোসেন, দেলোয়ার হোসেন, মোঃ ফরিদউল্লাহ মুন্সী, আরিফুল হক, আব্দুস সামাদ রাজ, আইনজীবী ফোরামের সিনিয়র সহসভাপতি ব্যারিস্টার আবু ইলিয়াছ, যুগ্ম সম্পাদক সলিসিটির নাসের খান অপু, যুবদলের সিনিয়র সহসভাপতি আব্দুল হক রাজ, দেওয়ান আব্দুল বাসিত, সুরমান খান, যুগ্ম সম্পাদক বাবর চৌধুরী, সুয়েদুল হাসান, সাহেল শাহ, মোশারফ হোসেন, ,মনোয়ার হোসেন, সিনিয়র সহসভাপতি তরিকুর রশিদ চৌধুরী শওকত, সাবেক সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন, স্বেচ্ছাসেবক দলের সহসভাপতি শরিফুল ইসলাম, আতাউর রহমান, স্বেচ্ছাসেবক দলের সহসভাপতি ডালিয়া লাকুরিয়া, যুগ্ম সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম শিমু, সাংগঠনিক সম্পাদক জিয়াউর রহমান, জাহিদুর রহমান, জাসাসের যুগ্ম সম্পাদক হাবিবুর রহমান বাবলু, আব্দুল মোতালিব লিটন, মাহফুজুর রহমান, ছাত্রনেতা সাইফুল ইসলাম মিরাজ, ইমতিয়াজ এনাম তানিম, মাহবুবুর রহমান, মোঃ মাসুদুজ্জামান, ফুয়াদ আহমেদ, মনির আহমেদ, ফজলে রহমান পিনাক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এম এ মালেক বলেন, ‘টানা তিন দিন হোটেলের সামনে বিএনপির শত শত নেতাকর্মী বৃষ্টিতে ভিজে বিক্ষোভ করছেন।’

তিনি বলেন, সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে নির্বাচন থেকে দূরে রাখতে সরকার ষড়যন্ত্র করছে। ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ দলের সব পর্যায়ের নেতা-কর্মীদের ওপর ষড়যন্ত্রমূলক রাজনৈতিক মিথ্যা মামলা দায়েরের মাধ্যমে করা হয়রানির প্রতিবাদে এবং সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবিতে আমাদের এ বিক্ষোভ।’

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন