আজ : শুক্রবার, ২৩শে জুন, ২০১৭ ইং | ৯ই আষাঢ়, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

স্ত্রী ও শশুর বাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ ॥ মেয়ের বাল্যবিয়ের প্রতিবাদ করে বাবা বিপাকে ॥

সময় : ৭:১৫ অপরাহ্ণ , তারিখ : ১২ এপ্রিল, ২০১৭


আনোয়ার হোসেন আনু,কুয়াকাটা ॥ পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় নবম

শ্রেণি পড়–য়া মাদ্রাসা ছাত্রী আয়শার বাল্যবিয়েতে বাধা দেয়ায় বাবা

জসিম উদ্দিন হাওলাদার স্ত্রী ও শশুরবাড়ির লোকজনের রোসানলে পড়েছেন। স্ত্রী

পিয়ারা বেগম মেয়েকে তার বোন মমতাজ বেগমের বাড়িতে নিয়ে

গার্মেন্টস কর্মী হাবিবুর রহমানের সঙ্গে বিয়ে দিয়েছেন। এর প্রতিবাদ

করায় এখন স্ত্রী এবং শ^শুর বাড়ির লোকজন জসিমকে মামলা দিয়ে হয়রাণি সহ

নানা হুমকি দিচ্ছে। জসিম এখন চরম বিপাকে পড়েছেন। শ্রমজীবি বাবার

ইচ্ছা ছিল মেয়েকে তিনি লেখাপড়া শিখিয়ে ভালো চাকুরী কিংবা একজন

শিক্ষিত যুবকের কাছে বিবাহ দিবেন। স্ত্রী ও শশুর বাড়ির লোকজনের চক্রান্তে

শ্রমজীবি বাবার সে ইচ্ছা আর পুরন হল না। তিনি এ ঘটনার প্রতিকার

চেয়ে উপজেলা প্রশাসনের বিভিন্ন দফতরে লিখিত আবেদন করেছেন।

জানা যায়, চাকামইয়া ইউনিয়নের গান্ধাপাড়া গ্রামের দিনমজুর জসিমের

স্ত্রী পিয়ারা বেগম অপ্রাপ্ত বয়ষ্ক মেয়ে আয়শাকে নিয়ে প্রায় একমাস

আগে একই ইউনিয়নের পশ্চিম চাকামইয়া গ্রামের শ^শুরবাড়ি বেড়াতে যায়।

সেখানে গিয়ে তার মেয়েকে জবরদস্তি বিয়ে দেয়। এর প্রতিবাদ করায়

জসিমকে নানা রকম হুমকি দেয়া হচ্ছে। জসিম এ ঘটনায় তার স্ত্রী, শ্যালক-

শ্যালিকাসহ ৬জনকে অভিযুক্ত করে আইনী প্রতিকার চেয়েছেন।

কলাপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জিএম শাহনেওয়াজ জানান, বাল্য

বিবাহের খবর তিনি জানেন না। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া

হবে।

Top