আজ : বৃহস্পতিবার, ১৭ই আগস্ট, ২০১৭ ইং | ২রা ভাদ্র, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

স্বামীর গোপনাঙ্গ কর্তন করায় স্ত্রীর ৫ বছর কারাদন্ড।

সময় : ১১:০৩ পূর্বাহ্ণ , তারিখ : ২৩ মার্চ, ২০১৭


স্টাফ রিপোর্টারঃ স্বামীর গোপনাঙ্গ কর্তন করার অপরাধে স্ত্রীকে ৫ বছর কারাদন্ড দিয়েছে আদালত।বুধবার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আলী হোসাইন বিচারাধীন আদালত আসামীকে আরো ৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৩ মাস কারাদন্ড দেয়।আদালত সূত্র জানায়,সাজাপ্রাপ্ত আসামীর নাম লিপি বেগম।বাড়ি ফরিদপুরের মোল্লা বাড়ি সড়কে।২০০৮ সালে বরিশাল নগরীর মুসলিম গোরস্থান এলাকার মেহেদী হাসানের সাথে তার বিয়ে হয়।বিয়ের পর তাদের একটি সন্তান হয়।সন্তান হওয়ার একবছর পর থেকে লিপি অনৈতিক কর্মকান্ডে জড়িয়ে পড়ে।এ নিয়ে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে বিরোধ সৃষ্টি হলে লিপির বোনেরা এসে ২০১২ সালের ২৫ ডিসেম্বর মিমাংসা করে দেয়।দুইদিন পরে গভীর রাতে লিপি তার স্বামী মেহেদীর গোপনাঙ্গ কেটে সন্তান নিয়ে পালিয়ে যায়।মেহেদীকে উদ্ধার করে চিকিৎসা করান হয়।এ ঘটনায় মেহেদীর ভাই মাইদুল ইসলাম বাদী হয়ে ২৯ ডিসেম্বর কোতয়ালী মডেল থানায় লিপি ও তার দুই বোন নাজমা বেগম এবং পপি বেগমের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে।প্লাস্টিক দিয়ে বিকল্প অঙ্গ লাগিয়ে সার্জারীর মাধ্যমে মেহেদীকে সুস্থ্য করতে সক্ষম হয় চিকিৎসকরা।থানার এস আই তদন্তে সত্যতা পেয়ে ২০১৩ সালের ৩১ মার্চ তাদের বিরুদ্ধে চার্জশীট দাখিল করেন।রাষ্ট্রপক্ষ ৪ জনের সাক্ষ্য প্রদানে সক্ষম হয়।সাক্ষ্য প্রমানে দোষী সাব্যস্ত হলে লিপিকে সাজা এবং অপরাধ প্রমানিত না হওয়ায় লিপির বোনদ্বয়কে খালাস দেয়া হয়।রায়ের সময় লিপি পলাতক থাকায় তার বিরুদ্ধে সাজা পরোয়ানা ও গ্রেপ্তারী পরোয়ানা জারী করা হয়।

Top