১৪ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং, শনিবার

১০ মিনিট নারীদের স্তনের দিকে তাকিয়ে থাকলে পুরুষদের আয়ু বাড়বে ৫ বছর !

আপডেট: ডিসেম্বর ৪, ২০১৮

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

নারীর স্তন দর্শনে পুরুষের আয়ু বাড়বে গড়ে পাঁচ বছর। অবিশ্বাস্য হলেও এটাই সত্যি। দিনে অন্তত ১০ মিনিট নারীদের স্তনের দিকে তাকিয়ে থাকলে পুরুষদের আয়ু বাড়বে গড়ে পাঁচ বছর। কারণ এভাবে তাকিয়ে থাকা ৩০ মিনিট ওয়ার্কআউটের সমান। গবেষকরা পাঁচ বছর ধরে প্রায় ২০০ জন পুরুষের ওপর এ গবেষণাটি চালান।

গবেষণায় অংশ নেয়া ১০০ জন পুরুষকে নারীদের স্তনের দিকে তাকিয়ে থাকতে বলা হয়। বাকিদের ঠিক উল্টো কাজ করানো হয়। দেখা গেছে, যাদের নারীদের স্তনের দিকে তাকাতে বলা হয়েছিল, তাদের রক্তচাপ অনেক কম, হৃৎপিণ্ড অনেক বেশি সচল এবং সুস্থ। ওই গবেষকদের আরও দাবি, নিয়মিত নারীদের স্তনের দিকে কিছুক্ষণ তাকিয়ে থাকলে স্ট্রোক বা হার্ট অ্যাটাকের সম্ভাবনাও অনেকটা কমে যায়।

নারীশরীর এমনিতেই রহস্যে মোড়া। নারীদের স্তনযুগলের সুডৌল গড়নের প্রতি আকৃষ্ট হননি, এমন পুরুষ দুনিয়ায় খুঁজে পাওয়া কঠিন। আর শুধু পুরুষদের কথাই বা বলছি কেন, নারীদেরও নিজেদের স্তন নিয়ে গর্বের শেষ নেই। স্তনের আকৃতি, গঠন নিয়ে তাঁরা সদা সচেতন। অন্তর্বাস পরার আগে খুঁতখুঁতে হন অশিকাংশ নারীই। কিন্তু জানেন, স্তনের প্রতি পুরুষদের এহেন দুর্নিবার আকর্ষণের কারণ কী? হাফিংটন পোস্টে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বিশেষজ্ঞরা বেশ কয়েকটি কারণ খুঁজে পেয়েছেন। পড়ুন তেমনই ১০টি কারণ

পুরুষ ও নারীদের মধ্যে শারীরিক গঠনের বেশ কিছু পার্থক্য থাকে। সব পার্থক্য সাধারণত বাইরে থেকে দেখে বোঝা যায় না। সেক্ষেত্রে নারীদের স্তনযুগলের ‘শেপ’ ও ‘সাইজ’ বাইরে থেকেই খানিকটা আঁচ করা যায়। তেমন গঠন হলে পুরুষদের চোখ সেদিকে আটকে যায়। পুরুষদের মনে কামনার আগুন জ্বলতে শুরু করে। পোশাকি ভাষায় একে বলে ‘ভিজুয়াল স্টিমুলেশন’। অর্থাৎ, স্তনের গঠন দেখেই পুরুষদের কামোত্তেজনা জাগতে শুরু করে দেয়।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন