১৪ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং, শনিবার

সহবাসের আগে যা করলে টানা ৪ ঘন্টা করতে পারবেন

আপডেট: ডিসেম্বর ৬, ২০১৮

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

পূর্বরাগের শুরু ঠিক কখন বলা মুশকিল, হয়তো চোখে চোখে রেখে শিহরিত হওয়া অথবা হাতে হাত রেখে ভালোবাসা জানান দেওয়া থেকে। আর পূর্বরাগের শেষটা হলো প্রবল উত্তেজিত হয়ে যৌন মিলন শুরু করা পর্যন্ত।

সুতরাং বোঝাই যাচ্ছে যে, পূর্বরাগ একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ পর্যায় মিলনের ক্ষেত্রে। বিশেষ করে মেয়েদের জন্য। ছেলেরা যৌন মিলনের সময় মূলত উম্মুখ হয়ে থাকে নারীদেহে প্রবেশের জন্য। কিন্তু মেয়েরা যোনিপথে পুরুষের উন্মুক্ত অঙ্গখানিকে আশ্রয় দেওয়ার চেয়েও বেশি কামনা করে ভালোবাসার মানুষটির প্রেমময় আদর সোহাগ। নারীও পুরুষের মতোই উত্তেজিত হয় যৌন বিষয়ে, কিন্তু তার সেই উত্তেজনা আসে অত্যন্ত ধীর গতিতে। পুরুষ যেমন দ্রুত উত্তেজিত হয়ে উঠে, নারী তেমন নয়। নারীকে উত্তেজিত করে তোলার জন্য প্রয়োজন দীর্ঘ সময় ধরে আদর সোহাগ।

ঘাড়ের কালো দাগ যা খুব অস্বস্তিকর এবং বিব্রতকর। এটি ত্বকের পিগমেনশন ডিসর্ডারের কারণে হয়ে থাকে। এটি ছোঁয়াচে রোগ নয়। বিভিন্ন কারণে ঘাড়ে কালো দাগ পড়তে পারে। ডায়াবেটিস, পলিসিস্টিক ওভারি সিনড্রোম, স্বাস্থ্যবিধি না মানা, হঠাৎ করে ওজন বৃদ্ধি পাওয়া বা কমে যাওয়া, সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মি ইত্যাদি এর মধ্যে অন্যতম। ঘাড়ের কালো দাগ দূর করতে ঘরোয়া কিছু উপায় বেশ কার্যকর। আসুন সেই জাদুকরী উপায়গুলো জেনে নিই।ঘাড়ের কালো দাগ

১। লেবুঃ ১ চা চামচ লেবুর রস এবং ১ চা চামচ গোলাপ জল মিশিয়ে নিন। এটি তুলোর বল অথবা আঙ্গুল দিয়ে ঘাড়ে ম্যাসাজ করে লাগান। এটি সারা রাত রাখুন। পরের দিন পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। প্রতিদিন এক মাস এটি ব্যবহার করুন। আপনি চাইলে সারা রাত না রেখে কয়েক ঘন্টা রেখে ধুয়ে ফেলতে পারেন। তবে ভাল এবং দ্রুত ফল পেতে সারা রাত রাখুন। এছাড়া লেবুর রস(Lemon juice) এবং এক চিমটি হলুদ গুঁড়ো মিশিয়ে ১০-১৫ মিনিট ঘাড়ে ম্যাসাজ করে লাগান। কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

কিন্তু স্বামী যৌন উত্তেজিত অবস্থায় অধীর হয়ে উঠে আপনার যোনিতে তার লিঙ্গ প্রবেশ করানোর জন্য। এভাবে অস্থির হয়ে দ্রুত মিলন শুরু করে দিলে উভয়ের পরিপূর্ণ তৃপ্তির আগেই খুব দ্রুত তা শেষ হয়ে যাবে। তাই স্বামীকে পূর্বরাগের জন্য ধরে রাখতে হবে মিলনের আগে। এই ধরে রাখাটা স্বামীর জন্য যেন আনন্দময় হয়, স্ত্রীর উচিৎ সেই চেষ্টা করা যথাসাধ্য।

যৌন মিলনের সময় আদর সোহাগের নেতৃত্বভাব স্বামীর উপর ছেড়ে দিয়ে নির্ভার হয়ে উপভোগ করার চেষ্টা করবেন। স্বামীকে মিলনের সময় সমস্ত নিয়ন্ত্রণ ছেড়ে দিলে সে পুরুষালী মানসিকতায় অনেক বেশি সুখলাভ করতে পারে আর আপনাকেও সর্বোচ্চ সুখ দেওয়া নিজের দায়িত্ব মনে করে নেয়। ফলে মিলন হয়ে উঠে অনেক আনন্দময়।

আপনার সুখ লাভের জন্য প্রয়োজনীয় মিলনপূর্ব আদর সোহাগে স্বামীকে ধগরে রাখার জন্য নারীসুলভ লজ্জা প্রদর্শন করে স্বামীকেও আলতো করে আদর করুন। স্বামী যখন আপনার শরীরের বিভিন্ন জায়গায় চুমু খেতে থাকে, তখন আপনিও স্বামীর শরীরের যেই অংশ যখন মুখের সামনে পান, সেখানে চুমু দিন। স্বামীর মাথায়, পিঠে হাত বুলিয়ে দিন। এতে স্বামী আরও প্রবল উৎসাহে আপনাকে আদর করতে থাকবে।

তবে মনে রাখবেন যে, আপনার করা আদর যেন হয় নরম ও কোমল প্রকৃতির। স্বামীর মিলনের সময় স্ত্রীকে নরম ও কোমল রূপে চায়।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন