১৭ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ইং, রবিবার

এবার বউয়ের জ্বালায় হোটেলে আত্মগোপনে ব্যবসায়ী!

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১, ২০১৯

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

স্ত্রীর জ্বালায় হোটেলেও আত্মগোপনে থাকা হলো না হাজী মো. জসিম উদ্দিন নামে ওই ব্যবসায়ীর। স্ত্রীর দায়ের করা অপহরণ মামলায় পুলিশের খোঁজাখুঁিজতে হোটেল থেকে নিজেই বেরিয়ে আসেন তিনি।

একপর্যায়ের আর কোনোদিন এই ধরনের কর্মকান্ড করবেন না বলে তার কাছ থেকে মুচলেকাও নেন পুলিশ।

কোহিনুর মামলার এজাহারে অভিযোগ করেন, চট্টগ্রাম নগরীর রিয়াজউদ্দিন বাজারের কাঁচাবাজারে তার স্বামী জসিম উদ্দিনের একটি আড়ৎ আছে। বুধবার বিকেল ৪টার দিকে জসিম উদ্দিন আড়ৎ থেকে নগরীর চান্দগাঁও থানার তৈয়বিয়া সাত্তার হাউজিং সোসাইটিতে বাসায় যান। রাত সাড়ে ১২টার দিকে বাসা থেকে বেরিয়ে তিনি আর ফেরেননি।

নগর কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসীন এ প্রসঙ্গে বলেন, বুধবার বিকেল ৪টার দিকে জসিম উদ্দিন আড়ত থেকে বাসায় যান। বাসায় পারিবারিক বিষয় নিয়ে ঝগড়া হয়। কিন্তু ঝগড়ার বিষয়টি জানাননি স্ত্রী কোহিনুর। রাত সাড়ে ১২টার দিকে তিনি বাসা থেকে বেরিয়ে যান। রাতে কোতোয়ালী এলাকায় একটি আবাসিক হোটেলে আত্মগোপন করেন। পুলিশ খোঁজাখুঁজির পর বৃহস্পতিবার রাতে তিনি আড়তে গিয়ে দেখেন, সেখানে পুলিশ অবস্থান করছে।

জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তিনি আর কোনোদিন এই ধরনের কর্মকান্ড করে পরিবারের সদস্যদের দুশ্চিন্তায় ফেলবেন না মর্মে পুলিশকে মুচলেকা দেন।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ব্যবসায়ী জসিম উদ্দিন বলেন, ভাই স্ত্রীর জ্বালায় ঘর ছেড়ে হোটেলে গেলাম সেখানেও থাকতে পারলাম না। পুলিশ যেখানে আমার স্ত্রীকে শাসানো দরকার সেখানে উল্টো আমাকে শাসিয়ে গেলো। মুচলেকা নিল, যেন এ রকম আমি আর না করি। এখন দেখছি কবরই নিরাপদ।

স্ত্রীর জ্বালাটা কি রকম জানতে চাইলে জসিম উদ্দিন বলেন, ভাই ঘরের কথা বাইরে বলা ভাল না। পারিবারিক অশান্তি আর কি? এগুলো কি বলা যায়। বললে এগুলো নিয়ে বাইরের লোকে আরও হাসহাসি করবে। তাই থাক..। সূত্র: মানবজমিন

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন