আজ : শনিবার, ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৭ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

নাটোরে মেলার নামে অবৈধ কর্মকান্ড বন্ধের দাবীতে মানববন্ধন


জেলা প্রতিনিধি, নাটোরঃ
এক হও, রুখে দাঁড়াও প্রতিবাদ করো- এমন প্রতিপাদ্য নিয়ে নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলার চাঁচকৈড় বাজার এলাকায় মেলার নামে অবৈধ লটারী, জুয়া, হাউজি ও নগ্ননৃত্য বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী। উপজেলা সচেতন নাগরিক সমাজের ব্যানারে বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে শুরু হওয়া ওই মানববন্ধন চলে ঘন্টা ব্যাপি।

মানববন্ধনে ও প্রতিবাদ সভায় সাংবাদিক, শিক্ষক, শিক্ষার্থী, রাজনীতিবিদ, ব্যবসায়ী ও সাধারন মানুষ ব্যানার-ফেস্টুন নিয়ে অংশগ্রহণ করেন। বক্তব্য রাখেন- সমাজ সেবক আমিরুল ইসলাম, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সম সেলিম, চলনবিল প্রেসক্লাবের সহসভাপতি জালাল উদ্দিন শুক্তি, গুরুদাসপুর বার্তার সম্পাদক সাজেদুর রহমান, উপজেলা বস্ত্র ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক হাজী বরকত আলী, নাটোর জেলা পরিষদের সদস্য সরকার মেহেদী হাসান প্রমুখ।

মানববন্ধনে দাবি জানানো হয় প্রশাসন এখনই অবৈধ জুয়া ও লটারীর আসর বন্ধের ব্যবস্থা গ্রহন করে এলাকার জনসাধারনের মনে স্বস্তি ফিরিয়ে দেবেন। দ্রুত অবৈধ মেলার প্যান্ডেল অপসারন না হলে সচেতন সর্বসাধারণ বৃহত্তর স্বার্থে আগামীতে মিছিল-মিটিং,অবস্থান কর্মসূচি এমনকি হরতালের মতো কঠোর কর্মসূচী দিতে বাধ্য হবে। তারা আরও ঘোষণা দেন প্রয়োজনে জনগন নিজেরা ওই প্যান্ডেল ভেঙ্গে দেবে। এমন হলে আইন-শৃঙ্খলার অবনতি ঘটতে পারে, প্রাণহানীর মতো বড় ধরনের দুর্ঘটনাও হবার আশংকা থেকে যাচ্ছে।

পরে নেতৃবৃন্দ মেলার নামে অবৈধ লটারী, জুয়া, হাউজি ও নগ্ন নৃত্য বন্ধের দাবী সম্বলিত স্বারকলিপি জেলা প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে হস্তান্তর করেন।স্বারকলিপিতে উল্লেখ করা হয়, গুরুদাসপুর উপজেলা চত্তরের দক্ষিন পার্শে গ্রামীন মেলার নামে অবৈধ লটারী, জুয়া, হাউজি ও নগ্ন নৃত্য চালানোর জন্য কতিপয় অসাধু ব্যাক্তি অন্তত ১০ বিঘা জমির রসুনচারা ধ্বংস করে প্যান্ডেল তৈরী শুরু করেছে। পৌর ও উপজেলার কেন্দ্রস্থলে ওই অবৈধ-অনৈতিক কর্মকান্ড পরিচালিত হলে সরকার ও প্রশাসনের ওপর মানুষের নেতিবাচক ধারনা জন্মাবে। এলাকায় অর্থনৈতিক বিপর্যয় দেখা দেবে, মাদক ব্যবসা-মাদক সেবীর সংখ্যা বেড়ে যাবে, চুরি-ডাকাতি বেড়ে যাবে। আসন্ন এইচএসসি পরিক্ষার্থীরা ক্ষতিগ্রস্থ হবে। হবে ব্যাপক শব্দ দূষণ। কতিপয় অসাধু স্বার্থন্মেষী ব্যক্তিস্বার্থ উদ্ধারে একটি বিশেষ সংগঠনের নামে মিথ্যা ও ভিক্তিহীন তথ্য দিয়ে ওই মেলার নামে অবৈধ কর্মকান্ড পরিচালনা করতে তৎপর।

মেলার আয়োজনের বিরুদ্ধে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন স্থানীয় সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস। তিনি বলেন, কোন ভাবেই অনৈতিক কর্মকান্ড মেনে নেওয়া হবে না। তিনি কঠোর হস্তে স্থানীয় প্রশাসনকে মেলা বন্ধের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্দেশ দিয়েছেন বলেও তিনি জানান।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মনির হোসেন বলেন, উপজেলা প্রশাসন ও সরকারের ভাবমুর্তি ক্ষুন্ন করতে একটি মহল গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। প্রশাসন জাতী ধর্ম ও জনস্বার্থ বিরোধী কোন কর্মকান্ড গুরুদাসপুরে হতে দেবে না।

গুরুদাসপুর পৌর মেয়র শাহনেওয়াজ আলী মোল্লা জানান, জনস্বার্থ বিঘœকারী এলাকার সব ধরনের অনৈতিক কর্মকান্ডের বিপক্ষে তার অবস্থান।

উল্লেখ্য, গত জানুয়ারি মাসে জেলার বড়াইগ্রাম উপজেলার বনপাড়ায় অনুরুপ মেলার আয়োজন করে এলাকা থেকে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয় ঐ চক্র যা এসএসসি পরীক্ষার কারনে ২৮ জানুয়ারি বন্ধ করে দেয় প্রশাসন।

এই ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ...
Top