নুসরাতকে হত্যার ঘটনায় সরাসরি অংশ নেয়া সেই মনি ৫ দিনের রিমান্ডে

ফেনীর সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদরাসার ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় সরাসরি অংশ নেওয়া কামরুন্নাহার মনির পাঁচদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। আজ ১৭ এপ্রিল বুধবার দুপুরে ফেনীর জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম শরাফ উদ্দিন আহমেদের আদালত এই রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এর আগে মনিকে আদালতে হাজির করে অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ১০ দিনের রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা শাহ আলম। এরপর আজ শুনানি শেষে বিচারক পাঁচদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এদিকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে, নুসরাত হত্যাকাণ্ডে তিনটি বোরকা কেনার দায়িত্ব ছিল কামরুন্নাহার মনির। এরপর মাদরাসার ছাদে নুসরাতের বান্ধবীকে মারধর করা হচ্ছে বলে সেই নুসরাতকে ডেকে নিয়ে যায়। গায়ে আগুন দেওয়ার সময় জড়িত আরেক নারী উম্মে সুলতানা পপিকে শম্পা নামে ডেকেছিল এই মনিই। এর আগে গত ৬ এপ্রিল আলিম পরীক্ষা দিতে গেলে সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদরাসায় বোরকা পরা ৪/৫জন নুসরাত জাহান রাফিকে অধ্যক্ষ সিরাজউদ্দৌলার বিরুদ্ধে মামলা ও অভিযোগ তুলে নিতে চাপ দেয়। এতে অস্বীকৃতি জানালে হাত-পা বেঁধে তারা নুসরাতের গায়ে আগুন দিয়ে পালিয়ে যায়। এরপর গত ১০ এপ্রিল বুধবার রাত সাড়ে ৯টায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে মারা যান প্রতিবাদী নুসরাত জাহান রাফি।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*