গুগল প্লে-স্টোর থেকে সরে গেল টিকটক

বিভিন্ন গান, বিখ্যাত সিনেমার সংলাপসহ নানা রকম মজাদার অডিওর সঙ্গে ঠোঁট মিলিয়ে ছোট ভিডিও তৈরি করে আপলোড করা যায় টিকটক অ্যাপে। আদালতের আদেশের পর চীনা জনপ্রিয় অ্যাপ টিকটক ভারতে ডাউনলোড বন্ধ করে দিয়েছে গুগল। আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী গতকাল মঙ্গলবার এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে এ বিষয়ে সরাসরি জ্ঞান রাখেন—এমন ব্যক্তি রয়টার্সকে জানিয়েছেন। টিকটক অ্যাপ নির্মাতা চীনের বাইটড্যান্স টেকনোলজির পক্ষ থেকে অ্যাপটি নিষিদ্ধ বন্ধের অনুরোধ প্রত্যাখ্যান করেন তামিলনাড়ুর একটি আদালত। এ কারণে ভারতের মতো জনপ্রিয় বাজারে অ্যাপটির ভবিষ্যৎ শঙ্কায় পড়ে গেল। ৩ এপ্রিল মাদ্রাজ হাইকোর্টের পক্ষ থেকে সরকারকে টিকটক অ্যাপ বন্ধের ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দেওয়া হয়। বলা হয়, এটি পর্নোগ্রাফিতে উৎসাহ দিচ্ছে এবং শিশুদের ঝুঁকিতে ফেলছে। জনস্বার্থের একটি মামলা আমলে নিয়ে রুল দেন আদালত। ভারতের তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা বলেন, সরকারের পক্ষ থেকে আইন অনুযায়ী চলার জন্য অ্যাপল ও গুগলের কাছে চিঠি দেওয়া হয়। গতকাল থেকেই ভারতে গুগল প্লে স্টোর থেকে অ্যাপটি সরিয়ে ফেলা হলেও অ্যাপ স্টোরে তা রয়ে গেছে। গুগল বলছে, কোনো একক অ্যাপের বিষয়ে তারা কোনো মন্তব্য করবে না। তারা আইন মেনে চলবে। বিশেষ ইফেক্ট যুক্ত করে সংক্ষিপ্ত ভিডিও প্রকাশের অ্যাপ হিসেবে ভারতে ব্যাপক জনপ্রিয় হয়ে ওঠে চীনা প্রতিষ্ঠানের তৈরি টিকটক অ্যাপ। তবে এর কনটেন্টের যথার্থতা নিয়ে রাজনীতিবিদেরা সমালোচনা শুরু করেন।

অ্যাপ বিশ্লেষক প্রতিষ্ঠান সেন্সর টাওয়ারের তথ্য অনুযায়ী, গত ফেব্রুয়ারি মাস পর্যন্ত ভারতে ২৪ কোটিবার ডাউনলোড হয়েছে অ্যাপটি। এ বছরের জানুয়ারিতে তিন কোটি ব্যবহারকারী এটি ইনস্টল করেছে, যা গত বছরের জানুয়ারি মাসের চেয়ে ১২ শতাংশ বেশি। আদালতের দেওয়া আদেশ ভারতে বাক্‌স্বাধীনতার ওপর হস্তক্ষেপ—এ যুক্তিতে সুপ্রিম কোর্টে যায় বাইটড্যান্স। তবে তা আবার নিম্ন আদালতে ফেরত পাঠান। গতকাল বাইটড্যান্সের আবেদন নামঞ্জুর করেন আদালত। বাইটড্যান্স বলছে, তাদের খুব অল্প কনটেন্টকে অশ্লীল বলা যেতে পারে। দেশটিতে ২৫০ জনের বেশি কর্মী রয়েছে তাদের। সেখানে আরও বিনিয়োগের পরিকল্পনাও রয়েছে। বার্তা সংস্থা এএনআইয়ের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, সম্প্রতি ছোট ভিডিও শেয়ারের অ্যাপটি অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএস প্ল্যাটফর্মে ১০০ কোটিবার ডাউনলোডের মাইলফলক পেরিয়েছে। বেশ কিছু দিন ধরে নানা রকম ভিডিও তৈরির কারণে অ্যাপটি জনপ্রিয় হয়। তবে এর বিরুদ্ধে নানা কুৎসিত ভিডিও ছড়ানোর অভিযোগও ওঠে। টিকটক অ্যাপ নিয়ে বাংলাদেশেও আলোচনা হচ্ছে। বাংলাদেশে অ্যাপটি বন্ধ করার কথা বলেছেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। এর আগে টিকটক অ্যাপে আপত্তিকর ভিডিও প্রকাশের অভিযোগে চিত্রনায়িকা সানাইকে রাজধানীর মিন্টো রোডের পুলিশের সাইবার নিরাপত্তা ও অপরাধ দমন বিভাগে ডাকা হয়।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*