বাড়ি ঘরে হামলা, পালাচ্ছে শত শত মুসলিম

শ্রীলঙ্কায় ভয়াবহ সিরিজ বোমা হামলায় এখন পর্যন্ত ৩৫৯ জন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এতে আহত হন পাঁচ শতাধিক মানুষ। এ হামলার দায় স্বীকার করেছে জঙ্গিগোষ্ঠী আইএস। গীর্জা এবং হোটেলে ভয়াবহ আত্মঘাতী বোমা হামলার পর শ্রীলঙ্কার বন্দর নগরী নেগোম্বো ছেড়ে পালাচ্ছেন দেশটির শত শত মুসলিম। ইস্টার সানডের দিনের ওই হামলার পর সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার আশঙ্কায় তারা এলাকা ছেড়ে অন্যত্র পালিয়ে আত্মগোপন করছেন বলে বৃহস্পতিবার ব্রিটিশ দৈনিক দ্য গার্ডিয়ান এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে। ১০ বছর আগে দেশটির হিন্দু এবং জাতিগত তামিলদের বিরুদ্ধে শুরু হওয়া যে গৃহযুদ্ধের অবসান ঘটেছিল তারপর এবারই প্রথম শ্রীলঙ্কায় সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার শঙ্কা দেখা দিয়েছে।নেগোম্বো শহরের সেবাস্তিয়ান গীর্জায় আত্মঘাতী বোমা হামলায় হতাহতের ঘটনার পর থেকে ওই এলাকার মুসলিমদের নানাভাবে হুমকি দিচ্ছে স্থানীয় বৌদ্ধরা। বুধবার কলম্বোর কাছের এই বন্দরনগরী ছেড়ে পালিয়েছেন কয়েকশ’ মুসলিম। পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত এই মুসলিমদের প্রতিশোধ নেয়া হবে বলে হুমকি দেয়া হচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে তারা বাসে গাদাগাদি করে চড়ে এলাকা ছাড়ছেন। পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত আদনান আলী নামের এক তরুণ বার্তাসংস্থা রয়টার্সকে বলেন, বোমা হামলা ও বিস্ফোরণের পর শ্রীলঙ্কান জনগণ আমাদের ঘর-বাড়িতে হামলা করেছে। তিনিও বাড়ি-ঘর ছেড়ে অন্যত্র চলে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। শ্রীলঙ্কায় ফের বোমা বিস্ফোরণ: শ্রীলঙ্কায় ইস্টার সানডে উপলক্ষ্যে ৭টি স্থানে ৩টি গির্জা ও ৪টি স্বনামধন্য হোটেলে একইসময়ে সিরিজ বোমা হামলার ঘটনার রেশ কাতটে না কাতটেই ফের বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। কলম্বো শহর থেকে ৪০ কিলোমিটার দুরে পুগোদা শহরে আদালতের পিছনের দিকে এই হামলা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৫ এপ্রিল) রাজধানী কলম্বো থেকে ৪০ কিলোমিটার পূর্বের পুগোদা শহরে একটি বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। স্থানীয় পুলিশের এক মুখপাত্র রুয়ান গুনাসেকেরা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের পেছনের খোলা মাঠে বিস্ফোরণের ঘটনায় তদন্ত করছে পুলিশ।তবে ওই বিস্ফোরণ থেকে কোন হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। এই মুখপাত্র আরও বলেন, আদালতের পেছনে একটি বিস্ফোরণ হয়েছে। আমরা তদন্ত করছি। তিনি জানিয়েছেন, সাম্প্রতিক সময়ে যে ধরনের নিয়ন্ত্রিত বিস্ফোরণ হয়েছে এটা সেরকম না। উল্লেখ্য, গত রবিবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে একই সময়ে ৭টি স্থানে সিরিজ বোমা হামলার ঘটনা ঘটে। ওই হামলায় নিহতের সংখ্যা প্রায় ৩৫৯ জন। ভয়াবহ ওই হামলায় আহত হয়েছেন কমপক্ষে পাঁচ শতাধিক। তবে সিরিজ বোমা হামলার দায় স্বীকার করেছে জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট (আইএস)। একের পর এক এ ধরনের বিস্ফোরণ আরও আতঙ্ক বাড়িয়ে দিচ্ছে। গত বুধবার রাজধানী কলম্বোর স্যাভয় নামের জনপ্রিয় একটি সিনেমা হলের পাশে বিস্ফোরণের খবর পাওয়া গেছে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*