আজ : সোমবার, ২৩শে অক্টোবর ২০১৭ ইং | ৮ই কার্তিক ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

মাশরাফিতেই বদলে যাবে বাংলাদেশ


সকল নিউজ আপডেট পেতে পেইজে লাইক দিন

সম্প্রতি দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজটা ভালো যাচ্ছে না টাইগারদের। টেস্টে ভরাডুবি, প্রায় তিন বছর ইনিংস পরাজয়। সবই দেখাচ্ছে চলমান দক্ষিণ আফ্রিকা সফর। আর এবার টাইগারদের সামনে ওয়ানডে সিরিজ। ফরম্যাট ভিন্ন। ওয়ানডে সিরিজ দিয়েই স্বরুপে ফিরতে চায় টাইগাররা।

বর্তমান সময়ে বাংলাদেশের সাফল্যের নানা কারণ থাকতে পারে। তবে সবচেয়ে বড় কারণটি সবার জানা – মাশরাফি বিন মুর্তজা। টাইগার ক্রিকেট এখন আর কেবল সাকিব-তামিম নির্ভর নয়, তবে নিশ্চিতভাবেই কেবল `অধিনায়ক মাশরাফি` নির্ভর। চৌকস এক সেনাপতি, সঙ্গে একদল তুখোড় যোদ্ধা। ‘নড়াইল এক্সপ্রেস’ ওয়ানডে দলের দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই বাংলাদেশ দল বদলে গেছে। কেবল অধিনায়কত্ব দিয়েই যে দলকে জেতানো যায় সেটি বাংলাদেশের ক্রিকেটকে প্রথম দেখিয়েছেন মাশরাফি।

এক কথায় ওয়ানডে সিরিজের দলে টেস্ট সিরিজ খেলা প্রায় সবাই আছেন। তাহলে প্রশ্নটা চলেই আসে কিভাবে বদলে যাবে টিম বাংলাদেশ? যে কাউকেই এউ প্রশ্ন করা হলে, আত্মবিশ্বাসী ভঙ্গিতেই উত্তরাটা আসেব। কারন একজন মাশরাফি আছেন বলে। কারণ সবাই জানে দলকে সঠিক পথে নিয়ে আসার জন্য `জিয়ন কাঠি` মাশরাফির পানে চেয়ে থাকাই যথেষ্ট।

কারণ এই দলটা তাঁর। পরিবর্তন এসেছে দলের নেতৃত্বে। আর নেতা হলেন সবার প্রিয় আমাদের মাশরাফি। আর তাঁতেই বদলে যাওয়ার মন্ত্রটা খুজে পাচ্ছে বাংলাদেশ। মাঠে, এমনকি গ্যালারীতেও ম্যাশের উপস্থিতি দলের প্রতিটি ক্রিকেটারকে আলাদা শক্তি যোগায়। যার প্রমাণ শ্রীলঙ্কায় শততম টেস্ট জয়। সেই ম্যাচেও শেষ দিনে মাঠেই ছিলেন ম্যাশ। তাঁকে পেয়েই যেন জ্বলে উঠেছিল টাইগাররা।

মাশরাফির প্রভাব প্রতিটি খেলোয়াড়ের মাঝে বিদ্যমান। সবাই তাঁর কথা একবাক্যে মেনে চলে। মাশরাফি যেমন বকা দেন আবার ঠিক স্নেহের ছোয়ায় বুকে টেনে নেন। আর এটাই তো একজন নেতার বড় বৈশিষ্ট।

মোদ্দা কথা মাশরাফি একজন অধিনায়ক নয়, একজন নেতা। যাকে ভালোবাসার মানুষ আছে, কিন্তু ঘৃণা করারা মত কোনো মানুষ নেই। ইংল্যান্ডের সাবেক ক্রিকেটার এবং বর্তমানে ধারাভাষ্যকার একবার বলেছিলেন, ’নেতা, মানষ আর খেলোয়াড়। এই তিনটি শব্দ যোগ করলে মাশরাফির মত কোন ক্রিকেটার ক্রিকেটবিশ্ব এর আগে দেখেনি।‘

সত্যিই তো তাই! কয়জন আছে ম্যাশের মত। যে একজন পেস বোলার হয়েও এতবার ইনজুরিতে পরেও, ফিরে এসেছেন স্বমহিমায়। অতীতের থেকে আরও বিধ্বংসী রুপে। এখনও ঠিকমত হাটতে না পারলেও, খেলার মাঠে দেখা যায় ম্যাশ নামক এক বাঘের দৌড়। যা দেখে প্রতিপক্ষ হয়তো নিমিষেই বলে ওঠে, ‘দৌড়া বাঘ আইলো রে।

Top