আজ : সোমবার, ১৮ই জুন, ২০১৮ ইং | ৪ঠা আষাঢ়, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

আমারে দৈনিক ৫ হাজার টাকা দিলেই হয়


অভিনেত্রী উর্বশী রাউতেলার অঢেল চাহিদা আর বায়না চরমে উঠেছে। অহংকারে যেন মাটিতে পা পড়ছে না। তার সমস্ত মনোযোগ খাওয়া-দাওয়ায়। আর তার এমন আচরণে রীতিমতো বিরক্ত ছবির নির্মাতারা। এ সংক্রান্ত একটি খবর প্রকাশ করেছে ভারতের সংবাদ প্রতিদিন পত্রিকা।

জানা গেছে, প্রতিদিন পাঁচতারা হোটেল থেকে বিপুল পরিমাণ খাবারের অর্ডার দিচ্ছেন তিনি। যে খাবারে আরাম করে ১০-১২ জনের খাওয়া হয়ে যায়। আর সেই খাবারের বিল ধরাচ্ছেন প্রযোজককে। সবচেয়ে অদ্ভুত বিষয় হল, যে পরিমাণ খাবার তিনি অর্ডার করেন, তার সামান্যই নিজে খান। বাকিটা বাড়ির লোকজনের জন্য পাঠিয়ে দেন। শুধু তাই নয়, শুটিংয়ের মাঝেই লম্বা লম্বা বিরতি নিচ্ছেন তিনি।

শুটিং ইউনিটের এক ব্যক্তি জানান, শুটিং সেটে আসার জন্য বাড়ি থেকে বেরিয়ে গাড়িতে বসা মাত্র প্রযোজকদের ফোন করে উর্বশীর সহকারী জানিয়ে দেন সেদিন কী কী খাবেন তিনি। মেনুতে তার কোন কোন খাবার প্রয়োজন।

প্রায় এক-দেড় ঘণ্টা নিজের ভ্যানিটি ভ্যানে বসেই কাটিয়ে দেন তিনি। কিন্তু এত লম্বা ব্রেক নিয়ে করেন কী? উর্বশী আর কী কী খাবেন, সে কথাই বসে ভাবেন। মেক-আপ ম্যানের থেকে রোজ ওয়েট-টিস্যুর প্যাকেটও নিয়ে নেন। সব মিলিয়ে ছবির কর্মী, প্রযোজক সকলেই তার ব্যবহারে অত্যন্ত অসন্তুষ্ট। তার ভাবমূর্তি যে ভক্তদের কাছে অপ্রীতিকর হতে পারে, তা কি খেয়াল আছে অভিনেত্রীর? কে জানে!

এই ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ...
Top