আজ : বৃহস্পতিবার, ২৯শে জুন, ২০১৭ ইং | ১৫ই আষাঢ়, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

বাচ্চা আমার, কিন্তু অপুর সঙ্গে বিয়ে হয়নি

সময় : ১০:৫৪ অপরাহ্ণ , তারিখ : ১০ এপ্রিল, ২০১৭


জনপ্রিয় অভিনেত্রী অপু বিশ্বাসের সঙ্গে বিয়ের খবরটি অস্বীকার করেছেন চিত্রনায়ক শাকিব খান। তবে অপু বিশ্বাসের কোলের বাচ্চাটিকে নিজের বলে স্বীকার করেছেন ঢাকাই ছবির এই সুপারস্টার।

আজ সোমবার বিকেলে নিউজ ২৪-এ অপু বিশ্বাসের সরাসরি সাক্ষাৎকারের কিছুক্ষণ পরেই এনটিভি অনলাইনের সঙ্গে একান্ত ফোনালাপে এই কথা জানান দুই বাংলার জনপ্রিয় এই নায়ক।

নিউজ ২৪-এর সঙ্গে আলাপের সময় অপু জানান, ২০০৮ সালে শাকিবের সঙ্গে তাঁর বিয়ে হয়েছিল। এ সময় তাঁর নাম পাল্টে রাখা হয় অপু ইসলাম খান। তবে অপু বিয়ের কথা বললেও এই বিষয়টি স্বীকার করেননি শাকিব। পুরো বিষয়টিকে তিনি বাংলা ছবির ইন্ডাস্ট্রি এবং তাঁর তারকা ইমেজকে ধ্বংস করে দেওয়ার বিশাল চক্রান্ত হিসেবে দাবি করেছেন। এ সময় তিনি বেশ কয়েকবার বিষয়টিকে ‘ট্র্যাপ’ বলে উল্লেখ করেন।

এনটিভি অনলাইনের সঙ্গে আলাপে শাকিব এভাবেই দাবি করেন যে, অপুর এই মিডিয়ায় সরাসরি সাক্ষাৎকারে এসে ‘এসব’ কথা বলা আসলে ষড়যন্ত্রের অংশ। অপু যদি স্ত্রীর মর্যাদা চাইতেন, তাহলে এভাবে এসে কথা বলতেন না। শাকিব বলেন, ‘সে যদি আমার ওয়াইফ হতো, তাহলে সে কি আমার কথা ছাড়া কোথাও যাবে? আরে ওর সঙ্গে তো আমার বিয়েই হয়নি!’

এই পুরো বিষয়টিকে তিনি তাঁকে, তার তারকা ইমেজ এবং ইন্ডাস্ট্রিকে ধ্বংস করে দেওয়ার বিশাল ষড়যন্ত্র হিসেবে দাবি করেছেন বারবার।

অপু বিশ্বাস সাক্ষাৎকার অনুষ্ঠানে জানান যে শাকিব খান এসে তাঁদের বিশাল অংকের টাকা দিয়ে যান। এ প্রসঙ্গে শাকিব খান বলেন, তিনি টাকা দিচ্ছেন তা নিজের বাচ্চার জন্য। কয়েকদিন আগেও তিনি ১২ লক্ষ টাকা দিয়ে এসেছেন।

সন্তানের জন্য স্বীকৃতি বা ভালোবাসার কথা বললেও অপুর সঙ্গে নিজের সম্পর্কের বিষয়টি নিয়ে পুরোপুরি নেতিবাচক অবস্থান নেন শাকিব। এই ‘সবকিছু’ স্ত্রীর স্বীকৃতি নয়, বরং ‘রংবাজ’ ছবির নায়িকা হয়ে ওঠার জন্যই অপু করেছেন বলে মনে করেন শাকিব। এ প্রেক্ষিতে তিনি বলেন, ‘ওর (অপু) সঙ্গে আমার কিছু নাই। সে তো বউয়ের মর্যাদা চায় না, সে চায় নায়িকার মর্যাদা।’

সন্তানের বিষয়টি স্বীকার করেছেন শাকিব। ‘এভাবে’ সন্তানকে সরাসরি অনুষ্ঠানে নিয়ে ‘এসব’ কথা বলায় অপুর প্রতি হতাশা প্রকাশ করেন তিনি। এ সময় তিনি আবেগে খানিকটা ভেঙে পড়েন। তিনি বলেন, ‘আমার খুব দুঃখ লেগেছে। আমি আমার ছেলেটাকে এভাবে দেখতে চাই নাই।’

শাকিব আলাপের শেষে জানিয়েছেন, শিগগিরই সবার সঙ্গে এ বিষয় নিয়ে কথা বলবেন তিনি।

এর আগে আজ বিকেলে অপু বিশ্বাস একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলের সরাসরি সম্প্রচারিত অনুষ্ঠানে দাবি করেন, ‘শাকিবের সঙ্গে আমার বিয়ে হয়েছিল ২০০৮ সালের ১৮ এপ্রিল। বিয়ের সময় আমার নাম পরিবর্তন করা হয়েছিল। আমার নাম রাখা হয়েছিল অপু ইসলাম খান। বিয়ের সময় শাকিবের ভাই ও একজন প্রযোজক উপস্থিত ছিলেন।’

‘বাচ্চা নিয়ে আমাকে অনেক সংগ্রাম করতে হয়েছে। আমি দীর্ঘদিন আড়ালে ছিলাম। পাঁচ মাস হয় ঢাকায় এসেছি। দীর্ঘ নয় মাস আমি কলকাতা, ব্যাংকক ও সিঙ্গাপুরে ছিলাম’, বলেন অপু বিশ্বাস।

আধঘণ্টার বেশি সরাসরি সম্প্রচারিত ওই অনুষ্ঠানে কথা বলতে বলতে প্রায় কেঁদে ফেলেন অপু বিশ্বাস। এ সময় মাঝেমধ্যে টিস্যু দিয়ে তাঁকে চোখের পানি মুছতে দেখা গেছে।

ছেলের নাম আব্রাহাম খান জয়

অপু বিশ্বাস জানান, ২০১৬ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর তাঁর ছেলের জন্ম হয়। নাম রাখা হয়েছে আব্রাহাম খান জয়। তিনি বলেন, ‘শাকিব যদি এই অনুষ্ঠান দেখে থাকে তবে ওর (শাকিবের) দায়িত্ব হবে দূর থেকে ওকে (ছেলেকে) আদর করে দেওয়া। বাবা হয়ে আমার ছেলেকে যেন না ঠকায়।’

অপুর ছেলে দেখতে কার মতো?

অনুষ্ঠানে অপু বিশ্বাস বলেন, ‘ছেলের হাত-পা বাবার (শাকিবের) মতোই হয়েছে। আমার ছেলের দ্বারা যেন কোনো মেয়ে প্রতারিত না হয়, আমি সে চেষ্টাই করব।’

বাচ্চাকে নিয়ে আপনি নিরাপদ কি না- উপস্থাপকের এমন প্রশ্নের জবাবে অপু বিশ্বাস বলেন, ‘আমি বলতে পারছি না আমার কী হবে।’

অপু বলেন, ‘ও (শাকিব) তো কাউকে বাবা বলে ডাকে। বাবা হয়ে যেন আমার ছেলেকে না ঠকায়। তাদের আশপাশে তো অনেক লোক আছে, তারাও তো বাবা। তারাও তো তাদের সন্তানদের আদর করে। আমি কী অন্যায় করেছি, যার জন্য এত শাস্তি পেতে হলো?’

বুবলিকে নিয়ে ঝগড়া হতো শাকিব-অপুর

অনুষ্ঠানে নায়িকা বুবলি প্রসঙ্গে কথা বলতে গিয়ে অপু বিশ্বাস বলেন, ‘আজ একটা নিউজ এসেছে, রংবাজ একটা মুভি। এই ছবিতে বুবলি নামে যে মেয়েটা, (শাকিব) তাঁর সাথে আপাতত সে কাজ করবে না, আমি এ ধরনের অনেক নিউজ দেখছি, যে সে (শাকিব) কাজ করবে না, এই না, সেই না।’

‘হঠাৎ আজকে সকালে দেখি যে, সে (বুবলি) নিউজ করেছে- শাকিব বলেছে, আমরা একটা ভালো জুটি। ছবিটি ফেস্টিভ ডে তে আসছে, মানে ঈদে আসছে। ছবিটির ডাইরেক্টর শামীম আহমেদ রনি সে একটা স্টাটাস দিয়েছে খুব সুন্দর করে- কিং খান এখানে জয়েন্ট হচ্ছে। বসগিরি খ্যাত নায়িকা বুবলি এখানে অ্যাড হচ্ছে। এগুলো নিয়ে আমার সাথে শাকিবের প্রায় এক দেড় মাস হলো বাকবিতণ্ডা হতো।’ বলেন অপু।

শাকিবের পরিবার জানত বিয়ের কথা!

অপু বিশ্বাস বলেন, ‘ওর (শাকিব) পরিবারের সবাই জানত আমাদের বিয়ের কথা। আমি তো ওর পরিবারের সঙ্গেই থাকতাম। ওর বাসাতেই থাকতাম।’

অপু বলেন, ‘আমি বাংলাদেশে ফেরার পর শাকিব দেখা করতে এসেছিল। বাচ্চার বয়স তখন তিন মাস। ওর ফ্যামিলির সবাই দেখে গেছে।’

বিয়ে করতে ইসলাম গ্রহণ করেন অপু

উপস্থাপিকার প্রশ্নের জবাবে অপু বলেন, ‘শাকিবকে বিয়ে করতে ধর্ম পরিবর্তন করেছিলাম আমি।’ তখন উপস্থাপিকা প্রশ্ন করেন তখনকার নামের কথা। জবাবে অপু জানান, বিয়ের সময় ধর্ম পরিবর্তনের পর তাঁর নাম হয়েছিল অপু ইসলাম খান।

তবে অপু বিশ্বাস জানান, বিয়ের সময়ই তিনি কেবল তাঁর নাম পরিবর্তন করেছিলেন। তবে অপু বিশ্বাস যেহেতু তাঁর বাবা-মায়ের রাখা নাম সেই নাম তিনি পরিবর্তন করবেন না।

সংবাদ সম্মেলন হলো না

দীর্ঘদিন আত্মগোপনে থাকার পর সম্প্রতি ঢাকায় ফেরেন নায়িকা অপু বিশ্বাস। আজ বিকেল সাড়ে ৪টায় এফডিসিতে সংবাদ সম্মেলন করার কথা জানান অপু। তবে তার আগেই ওই টেলিভিশন চ্যানেলে চলে যান অপু বিশ্বাস। পরবর্তীতে তিনি আর সংবাদ সম্মেলন করেননি।

এনটিভি অনলাইনকে অপু জানিয়েছিলেন, ‘আজ বিকেল সাড়ে ৪টায় এফডিসিতে আমি সংবাদ সম্মেলন করব। সাংবাদিকদের সঙ্গে খোলামেলা কথা বলব। সব প্রশ্নের উত্তর দেব আজ। কেন আমি এতদিন কাজ করিনি, কোথায় ছিলাম এতদিন, কবে থেকে কাজ করতে পারব, কেন গিয়েছিলাম—এমন অনেক প্রশ্নের উত্তর আমি দিতে চাই।’

অপু আরো বলেন, ‘সবার ভালোবাসার প্রতিদান দেওয়ার ক্ষমতা আমার নেই। এতদিন আড়ালে থেকে দেখেছি, সবাই আমাকে কত ভালোবাসে। আমি সবার কাছে অনেক বেশি ঋণী হয়ে গেলাম। গণমাধ্যমে আমাকে নিয়ে যে নিউজ করেছে, তা দেখে নিজের চোখেই পানি চলে আসত। সবাই আমাকে এত মিস করেছে এবং তা নিয়ে নিউজ হচ্ছে, আমি এতদিন দেখেছি, কিন্তু কিছু বলতে পারিনি। এবার সব কথা খুলে বলব। দেখা হবে আজ বিকেলে।’

সংবাদ সম্মেলন না করার ব্যাপারে অপু বিশ্বাস জানান, হঠাৎ করে শিশু ছেলের শরীর অসুস্থ হয়ে পড়ায় তিনি আজ সংবাদ সম্মেলন করতে পারছেন না। পরে সংবাদ সম্মেলন করবেন।

শিগগির কাজে ফিরছেন অপু

কবে থেকে কাজে ফিরবেন—জানতে চাইলে অপু বলেন, “খুব তাড়াতাড়িই ফিরছি, আগামী মাসের প্রথম দিকে হতে পারে। আমি এখনো কোনো পরিচালক-প্রযোজকের সঙ্গে যোগাযোগ করিনি। দু-একদিনের মধ্যে সবার সঙ্গে যোগাযোগ করব। তবে আমার অসমাপ্ত ছবি ‘রাজনীতি’, ‘মাই ডার্লিং’, ‘ভালোবাসা ২০১৬’ ছবিগুলো শেষ করব। এগুলো শেষ করতে করতে বাকি কাজ গোছাব।”

বুলবুল বিশ্বাস পরিচালিত ‘রাজনীতি’ ছবির শুটিং শেষ না করেই গত বছর মার্চে হঠাৎ ‘নিখোঁজ’ হয়ে যান অপু বিশ্বাস। তখন থেকেই সবার সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে ফেলেন এই জনপ্রিয় নায়িকা। অনেকটা ইচ্ছা করেই তিনি চলে যান লোকচক্ষুর অন্তরালে। শুধু ভক্তরা নন, চলচ্চিত্র-সংশ্লিষ্টদের কেউই তাঁর কোনো খবর জানতে পারেননি গত এক বছর। তবে এতদিন কোথায় ছিলেন, কীভাবে কেটেছে—সবটাই তিনি সবাইকে জানাবেন বলে জানিয়েছেন এনটিভি অনলাইনকে।

সূত্রঃএনটিভি অনলাইন

Top