আজ : রবিবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং | ১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

কিবরিয়া হত্যাকাণ্ডেরর ১৩ বছর


সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এ এম এস কিবরিয়া হত্যাকাণ্ডের ১৩ বছর আজ। ২০০৫ সালের এই দিনে সন্ত্রাসীদের হামলায় তিনি নিহত হয়। এরপর এক যুগ পেরিয়ে গেলেন সাবেক অর্থমন্ত্রী হত্যাকাণ্ডের বিচার হয়নি।

হত্যাকাণ্ডের ৯ বছর পর ২০১৪ সালে বিচারকাজ শুরু হয়। তদন্তে গাফিলতি আর স্বাক্ষীদের অনুপস্থিতির কারণে বিলম্বিত হচ্ছে বিচারের কার্যক্রম।

২০০৫ সালের ২৭ জানুয়ারি হবিগঞ্জ সদর উপজেলার বৈদ্যের বাজারে গ্রেনেড হামলায় কিবরিয়াসহ ৫ জন নিহত হন। আহত হন আরও শতাধিক নেতা-কর্মী। ওই ঘটনায় হত্যা এবং বিস্ফোরক আইনে দুটি মামলা দায়ের করা হয়। ২৮ জানুয়ারি মামলা দুটি করেন হবিগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের তৎকালীন সাংগঠনিক সম্পাদক (বর্তমান সাধারণ সম্পাদক) অ্যাডভোকেট আবদুল মজিদ খান এমপি।

উভয় মামলায় একাধিকবার তদন্ত হয়। সর্বশেষ তদন্তে সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর, বিএনপি চেয়ারপার্সনের সাবেক রাজনৈতিক সচিব হারিছ চৌধুরী, সিলেটের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী ও হবিগঞ্জের মেয়র জি কে গউছসহ ৩২ জনকে আসামিভুক্ত করা হয়। এর মাঝে আরিফুল হক চৌধুরী ও জি কে গউছসহ ১০ জন উচ্চ আদালত থেকে জামিনে, ৮ জন পলাতক ও ১৪ জন কারাগারে আটক আছেন।

সিআইডি’র তৎকালীন সহকারী পুলিশ সুপার মুন্সি আতিকুর রহমান মামলাটি তদন্ত করে ১০ জনের বিরুদ্ধে ২০০৫ সালের ২০ মার্চ প্রথম অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

নিহতের স্বজনরা বলেন, বর্তমান সরকারের আমলে কিবরিয়া হত্যার বিচার শেষ না হলে আর কখনো এই বিচার হবে না, যা দেশের জন্য হবে এক বড় কলঙ্ক।

এই ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ...
Top