আজ : রবিবার, ২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং | ১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

হকার ইস্যুতে আবার উত্তপ্ত ‘হচ্ছে’ নারায়ণগঞ্জ


হকার ইস্যুতে নারায়ণগঞ্জ আবার উত্তপ্ত হওয়ার শঙ্কা জেগেছে নারায়ণগঞ্জে। কারণ, একজন হকার নেতা জানিয়েছেন, ১৬ জানুয়ারির সংঘর্ষের পর শহরে তাদেরকে বসতে দেয়ার যে ব্যবস্থা হয়েছে সেটা না মেনে আগের মতই মূল সড়কে ফিরবেন তারা।

তাদের দাবি অনুযায়ী আগের মতোই বঙ্গবন্ধু সড়কে বসতে না দিলে কঠোর কর্মসূচি দেয়ার ঘোষণা এসেছে হকারদের পক্ষ থেকে।

শনিবার নারায়ণগঞ্জ জেলা হকার্স সংগ্রাম পরিষদের আহ্বায়ক আসাদুল ইসলাম আসাদ এক বিবৃতিতে এই ঘোষণা দেন। তিনি বলেন, ‘পুনর্বাসন ছাড়া নির্বিচারে হকার উচ্ছেদ করা যাবে না।’

গত ২৫ ডিসেম্বর নারায়ণগঞ্জ থেকে উচ্ছেদ করা হয় হকারদের। এরপর হকাররা ছুটে যান মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভীর প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে পরিচিত এ কে এম শামীম ওসমানের কাছে। আর শামীম পক্ষ নেন হকারদের।

দুই পক্ষে কথার লড়াইয়ের পর ১৬ জানুয়ারি হয় মাঠের লড়াই। আগত হয় ৫০ জনেরও বেশি।

এরপরদিন জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সিটি করপোরেশনের সম্মতিতেই সিদ্ধান্ত আসে বঙ্গবন্ধু সড়ক ছাড়া অন্য সড়কে বিকাল পাঁচটা থেকে বসবে হকাররা। আর ছুটির দিন বসবে সারা দিন।

এর মধ্যে নারায়ণগঞ্জ সদর আসনের সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান বিদেশে থেকে কথা বলেছেন হকারদের সঙ্গে। বলেছেন, চিকিৎসা শেষে দেশে ফিরে তিনি স্থায়ী ব্যবস্থা করবেন মার্চের মধ্যে।

দুই দিন আগে সেলিম ওসমানের কথা মেনেও নিয়েছিলেন হকাররা। কিন্তু শামীম ওসমান আগামী ৩ ফেব্রুয়ারি নারায়ণগঞ্জে জনসভা করার ঘোষণা করেছেন শনিবার আর এই দিনই সমঝোতা ভাঙার ঘোষণা আসল হকারদের পক্ষ থেকে।

ফুটপাতে জনসাধারনের নির্বিঘ্নে চলাচলের দিকটি খেয়াল রাখা হবে জানিয়ে পুনর্বাসন না হওয়া পর্যন্ত বঙ্গবন্ধু সড়কেও কর্মদিবসে পাঁচটার পর এবং ছুটির দিন সারাদিন বসতে দেয়ার দাবি জানানো হয় হকারদের বিবৃতিতে।

দ্রুত সময়ের মধ্যে এ সংকট সমাধান করা না হলে নারায়ণগঞ্জসহ সারাদেশের হকার ও গরিব মেহনতি মানুষকে সঙ্গে নিয়ে বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তোলার হুঁশিয়ারিও দেয়া হয়।

এই ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ...
Top