আজ : সোমবার, ১৮ই জুন, ২০১৮ ইং | ৪ঠা আষাঢ়, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

নতুন ভোটার সোয়া ২ কোটি


আগামী একাদশ সংসদ নির্বাচনে জীবনে প্রথমবারের মতো ভোট দিতে পারবেন ৪৩ লাখ তরুণ-তরুণী। এই সরকারের দুই মেয়াদের সময়ে অর্থ্যাৎ গত দশ বছরে সোয়া দুই কোটি ভোটার যুক্ত হয়েছেন।

এ নিয়ে আগামী সংসদ নির্বাচনে ভোটার হচ্ছেন দশ কোটি ৪১ লাখ ৪২ হাজার ৩৮১ জন। বুধবার(৩১ জানুয়ারি) এই চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশ হচ্ছে দেশজুড়ে।

২০০৮ সালে ছবিসহ ভোটার তালিকা প্রণয়নের পর থেকে ১০ বছরে দেশে ভোটার বেড়েছে সোয়া দুই কোটির বেশি।

নির্বাচন কমিশনের কর্মকর্তারা জানান, এ বছর হালনাগাদে যোগ হচ্ছে ৪৩ লাখ ২০ হাজারের মতো নতুন ভোটার। বিদ্যমান ১০ কোটি ১৪ লাখের বেশি ভোটার থেকে মৃত ১৭ লাখ বাদ দেয়া হয়েছে।

২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি দশম সংসদ নির্বাচনের সময় ভোটার ছিল ৯ কোটি ১৯ লাখ ৬৫ হাজার ১৬৭ জন। ২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বরে নবম সংসদ নির্বাচনের সময় দেশে মোট ভোটার ছিল ৮ কোটি ১০ লাখ ৮৭ হাজার।

নবম সংসদ নির্বাচনের পর যারা ভোটার হয়েছেন, তাদের অধিকাংশের বয়স এখন ১৮ বছর থেকে ২৮ বছর।

নির্বাচন পর্যবেক্ষক সংস্থাগুলোর একটি মোর্চা ইলেকশন ওয়ার্কিং গ্রুপের (ইডব্লিউজি) পরিচালক আব্দুল আলীম গণমাধ্যমকে বলেন, নবম সংসদ নির্বাচনের পর যারা ভোটার হয়েছেন তাদের আমরা তরুণ ভোটার হিসাবেই বিবেচনা করতে পারি। এ তরুণ ভোটাররা শিক্ষা ও প্রগতিশীলতার চিন্তা ধারণ করে।

অনেক চিন্তাভাবনা করেই ভোটকেন্দ্রে যাবেন তারা। বলা যায়, আগামী সংসদ নির্বাচনে এ তরুণ ভোটাররাই একটা বড় নিয়ামক হবেন।

তিনি বলেন, ভোটার তালিকাভুক্তির পাশাপাশি জাতীয় পরিচয়পত্র দেওয়ায় নাগরিকদের মধ্যে আগ্রহ বেড়েছে। শুরুর দিকে প্রত্যন্ত অঞ্চলে নারী ভোটারের আগ্রহ কম দেখা গেলেও এখন তাদের তালিকাভুক্তিও বাড়ছে। সার্বিকভাবে মোট ভোটারে নারী-পুরুষের অনুপাতও কাছাকাছি রয়েছে।

২০০৭-২০০৮: ভোটার প্রায় ৮ কোটি ১১ লাখ (যাদের জন্ম ১৯৯০ সালের ১ জানুয়ারি বা তার আগে)

২০০৯-২০১০ : ভোটার বেড়েছে ৪৭ লাখ ৭৫ হাজার (জন্ম ১ জানুয়ারি ১৯৯২)
২০১২-২০১৩ : ভোটার বেড়েছে ৭০ লাখ ৭৯ হাজার (জন্ম ১ জানুয়ারি ১৯৯৫)
২০১৩-২০১৪ : ভোটার বেড়েছে ১৮ লাখ ৩০ হাজার (জন্ম ১ জানুয়ারি ১৯৯৬)
২০১৪ : ভোটার বেড়েছে ১৯ লাখ ৬৮ হাজার (জন্ম ১ জানুয়ারি ১৯৯৭)
২০১৫-২০১৫ : ভোটার বেড়েছে ১৬ লাখ ৮ হাজার (জন্ম ১ জানুয়ারি ১৯৯৮)
২০১৭ : ভোটার বেড়েছে ১১ লাখ ৪৪ হাজার (জন্ম ১ জানুয়ারি ১৯৯৯)
২০১৮ : ভোটার যোগ হচ্ছে ৪৩ লাখ ২০ হাজার (জন্ম ১ জানুয়ারি ২০০০)

ইসি কর্মকর্তারা জানান, প্রতিবছর গড়ে ২৫ লাখ তরুণ ভোটার তালিকায় যোগ হচ্ছেন। হালনাগাদের সময় নতুনদের অন্তর্ভুক্তির পাশাপাশি বিদ্যমান তালিকা থেকে মৃতদের বাদ দেওয়া হচ্ছে।

১ জানুয়ারি ১৮ বছর হলেই নাগরিকদের ভোটার তালিকাভুক্ত করা হয়। নির্বাচন কমিশন বছরের উপযুক্ত সময়ে হালনাগাদ করার জন্যে কর্মসূচি ঘোষণা করে; বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোটারদের তথ্য সংগ্রহ চলে। এছাড়া বছরের যে কোনো সময় ভোটারযোগ্যদের নিবন্ধন করা হয়।

একাদশ সংসদ নির্বাচন হবে এ বছরের ৩০ অক্টোবর থেকে ২০১৯ সালের ২৪ জানুয়ারির মধ্যে।

এই ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ...
Top