আজ : বুধবার, ১৮ই জুলাই, ২০১৮ ইং | ৩রা শ্রাবণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

খালেদা জিয়ার সেই বিপুল অর্থের এতিমখানাটি কোথায়?


জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায় হবে ৮ ফেব্রুয়ারি, যেখানে অন্যতম আসামি বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। রায়ের তারিখ ঘোষণার পরপরই রাজনৈতিক অঙ্গনে দেখা গেছে ব্যাপক তোড়জোড়। বিএনপি একের পর এক বৈঠক করে চলছে। এমনকি বেগম জিয়ার দণ্ডের আশঙ্কায় দলের গঠনতন্ত্র পরিবর্তন করে দুর্নীতিবাজদের আশ্রয়ের ব্যবস্থা পাকাপোক্তও করা হয়েছে। অবশ্য জনগণের মধ্যে আগ্রহ ভিন্ন বিষয় নিয়ে। অনেকের আগ্রহ যেই বিষয় নিয়ে মামলা সেই বিপুল অর্থে তৈরি এতিমখানাটি দেখতে কেমন, এর অবস্থানই বা কোথায়।

জনগণের আগ্রহের কথা চিন্তা করেই একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলর প্রতিবেদক মুখোমুখি হয়েছিলেন বিএনপির একপাল আইনজীবী ও নেতাদের কাছে। প্রশ্ন ছিল একটাই, বেগম জিয়ার এতিমখানা কোথায়?

আশ্চর্য ও দু:খজনক হলেও বাস্তবতা হলো দেশজুড়ে তোলপাড় হওয়া বিষয় অথচ বিএনপির নেতা, আইনজীবীরাই জানেন না এতিমখানা কোথায়। আইনজীবী আর বিএনপির নেতাদের কেউ কেউ এতিমখানার অবস্থান প্রশ্নে দিয়েছেন সরল স্বীকারোক্তি, জানিনা কোথায়। কেউ বলেছেন, সিনিয়ররা জানেন। আর সিনিয়র আইনজীবীরা বললেন, এতিমখানার অবস্থান জানতে চাওয়র দরকার কি? আর বিএনপি দুয়েকজন নেতা তো মহাচিন্তায় পড়ে গেলেন। দীর্ঘ বিরতি দিয়ে চিন্তার পর উত্তর, ঠিকানা আমার জানা নেই। তবে জানে কে? আর বিএনপির আলোচিত আইনজীবী কাম নেতা মওদুদ আহমেদ বলেন, অবশ্য সাবলীল উত্তরই দিলেন, এতিমখানা তো হয়নি…।

একাধিক সূত্রে জানা গেছে, এতিমদের জন্য বিদেশ থেকে আসা টাকা বেগম জিয়া ও সন্তানদের নামে এফডিআর করে রাখা হয়েছিল। এতিমখানার ট্রাস্টে ছিলেন বেগম জিয়া ও তাঁর দুই সন্তান তারেক ও কোকোসহ পরিবারের ঘনিষ্ঠজনরা। ট্রাস্ট গঠনের পর নয় বছর ক্ষমতায় থাকলেও বেগম জিয়ার এতিমখানা দৃশ্যমান হয়নি। কিন্তু ট্রাস্টের টাকা সুদে আসলে জমা বেড়েছে ট্রাস্টিদের অ্যাকাউন্টে। এই অর্থ পাচারেরও অভিযোগ আছে।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলা

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলা

Top