আজ : শনিবার, ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং | ৭ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

মির্জা ফখরুলের অপসারন চেয়েছেন তারেক রহমান


অপসারিত হতে পারেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। রোববার রাতে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের একটি সাক্ষাৎকার প্রচার করে বেসরকারী টেলিভিশন চ্যানেল এন.টিভি। রাত ১২টায় প্রচারিত ঐ সাক্ষাৎকারে ফখরুল আওয়ামী লীগের ভূয়সী প্রশংসা করেন।

ফখরুল বলেন ‘আওয়ামী লীগই সুন্দর ভবিষ্যতের পথ দেখাবে’ তিনি আরো বলেন ‘আওয়ামী লীগ পুরনো, বড় একটি রাজনৈতিক দল।’

সাক্ষাৎকারটি বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক জিয়া সহ নেতৃবৃন্দের মধ্যে তীব্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করেছে। তারেক রাতেই মির্জা ফখরুলকে ফোন করে তীব্র প্রতিক্রিয়া জানান। তারেক তাকে তীব্র ভৎর্সনা করেন।

বিএনপির তারেকপন্থী নেতারা অবিলম্বে ফখরুল ইসলাম আলমগীরের অপসারণ চেয়েছেন। তবে, সিনিয়র নেতারা এখন এনিয়ে বাড়াবাড়ি করার পক্ষপাতী নন। বরং এসময় দলের মহাসচিবের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নিলে, দলের ঐক্য বাধা গ্রস্থ হতে পারে বলে একাধিক সিনিয়র নেতা মনে করেন।

বিএনপির গঠনতন্ত্র অনুযায়ী চেয়ারম্যান তার উপর অর্পিত ক্ষমতা বলে যে কোন সময় মহাসচিবকে অপসারন করতে পারেন।

তবে বিএনপির একাধিক সূত্র বলছে, এ যাত্রায় অপসারিত না হলেও, মির্জা ফখরুলের ক্ষমতা হ্রাস করা হতে পারে। একক ভাবে তার বক্তব্য দেয়ার অধিকার কেড়ে নেয়া হতে পারে বলেও জানা গেছে।

১৪ হাজার কোটি টাকার বিচারে কত দিন লাগবে : জয়নাল আবদীন ফারুক

বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা জয়নাল আবেদীন ফারুক বলেছেন, বেগম খালেদা জিয়া একটি অসত্য, কাল্পনিক ও সাজানো মামলায় ১২ দিন কারাগারে বন্দী। মাদকাসক্তরা যদি জাতি নষ্ট করতে পারে তেমনি আওয়ামী লীগের মতো দল গণতন্ত্র নষ্ট করতে পারে। তাই খালেদা জিয়া মুক্ত না হওয়া পর্যন্ত শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি চলবে। আজ ২ কোটি টাকার মামলার রায়ের কপি পেতে ১২ দিন সময় লাগে তাহলে ১৪ হাজার কোটি টাকার বিচার যখন হবে তখন কত দিন লাগবে। আমরা আইন ভাঙব না বরং শন্তিপূর্ণ আন্দোলন করবো। আর তাতেই জনতার মাকে মুক্ত করব।
মঙ্গলবার নারায়ণগঞ্জ শহরে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে প্রতিবাদ সভায় এ কথা বলেন তিনি।

প্রশাসনের উদ্দেশে জয়নাল আবেদীন ফারুক বলেন, আমরা শান্তিপূর্ণ ভাবে কর্মসূচি করছি। তবে দলে অনুপ্রবেশ করে শান্তি ব্যাঘাত করতে চাইলে আপনাদের সঙ্গে আমরাও প্রতিহত করব। অন্যায় ভাবে ছাত্রদল যুবদলের নেতাকর্মীদের ধরবেন না। তাদের হয়রানী করবেন না।

ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন করছেন। দেশ রূপা দিয়ে বাঁধিয়ে দিচ্ছেন। আর তাই রডের পরিবর্তে বাঁশ দিয়ে দিয়েছেন। আসেন বঙ্গবন্ধু সড়কের একটি রশি দিয়ে এক পক্ষে তৈমূর আর কাজী মনির থাকবে এক পক্ষে মেয়রসহ অন্যরা থাকুক। তবে পুলিশ থাকতে পারবে না। তখন দেখবো কে জিতে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা তৈমূর আলম খন্দকার, নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সভাপতি আবুল কালাম, সেক্রেটারী এটিএম কামাল, নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক জাহিদ হাসান রোজেল, সহ-সাংগঠনিক রুহুল আমিন সিকদার, নারায়ণগঞ্জ জেলা যুবদলের সভাপতি মোশারফ হোসেন প্রমুখ।

Top